শিরোনাম
প্রকাশ : ২২ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ১৯:৪৬

শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে শ্রীলঙ্কার জয়

অনলাইন ডেস্ক

শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে শ্রীলঙ্কার জয়
সংগৃহীত ছবি

বারবার রং পাল্টানো ম্যাচের শেষ দিকে নাটকীয়তা জমে উঠলেও ভানিদু হাসারাঙ্গার দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে শেষ পর্যন্ত ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হারিয়ে শেষ হাসি হেসেছে শ্রীলঙ্কা। ক্যারিবীয় ওপেনার শাই হোপের সেঞ্চুরি বিফল করে শ্বাসরুদ্ধকর জয়ের স্বাদ পেল লঙ্কানরা। তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে আজ ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ১ উইকেটে হারিয়েছে তারা। 

প্রথমে ব্যাট করে হোপের ১১৫ রানের সুবাদে ৫০ ওভারে ৭ উইকেটে ২৮৯ রান করে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। জবাবে ১ উইকেট ও ৫ বল হাতে রেখে জয়ের বন্দরে পৌঁছে লঙ্কানরা। ২৬২ রানে ৮ উইকেট পতন হলেও সেখান থেকে এক প্রান্ত আগলে লঙ্কানদের জয় নিশ্চিত করেন আট নম্বরে নামা হাসারাঙ্গা ডি সিলভা। ৩৯ বলে ম্যাচ জয়ী অপরাজিত ৪২ রান করেন তিনি।

কলম্বোতে টস জিতে প্রথমে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ব্যাটিংয়ের আমন্ত্রণ জানায় শ্রীলঙ্কা। শুরুতে ক্যারিবীয় ওপেনার সুনীল অ্যামব্রিস ৩ রানে ফিরলেও, দলের রানের চাকা সচল রাখেন হোপ ও তিন নম্বরে নামা ড্যারেন ব্রাভো। দ্বিতীয় উইকেটে ৭৭ রানের জুটি গড়ে ব্যক্তিগত ৩৯ রানে থামেন ব্রাভো।

ব্রাভো ফিরলে ক্রিজে হোপের সঙ্গী হন রোস্টন চেজ। চেজকে নিয়েও বড় জুটি গড়েন হোপ। তৃতীয় উইকেটে ৮৫ রান যোগ করেন দু’জনে। ৪১ রান করে থামেন চেজ। তবে ১২৮তম বলে ৭৫ ম্যাচের ওয়ানডে ক্যারিয়ারে নবম সেঞ্চুরি তুলে নেন হোপ। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে প্রথম হলেও এশিয়ার মাটিতে এটি ষষ্ঠ সেঞ্চুরি হোপের।

হোপকে ব্যক্তিগত ১১৫ রানে থামান শ্রীলঙ্কার পেসার উসুরু উদানা। ১৪০ বল মোকাবেলা করে ১০টি চার মারেন হোপ। ৪৬তম ওভারের প্রথম বলে দলীয় ২৩০ রানে হোপের বিদায়ের পর দলকে ৭ উইকেটে ২৮৯ রানের বড় সংগ্রহ এনে দেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের দুই টেল-এন্ডার কিমো পল ও হেইডেন ওয়ালশ। পল ১৭ বলে ৪টি চার ও ১টি ছক্কায় অপরাজিত ৩২ ও ওয়ালশ ২টি চার ও ১টি ছক্কায় ৮ বলে অপরাজিত ২০ রান করেন। শ্রীলঙ্কার উদানা ৮২ রানে ৩ উইকেট নেন।

জবাবে উড়ন্ত সূচনা পায় শ্রীলঙ্কা। ১৮ ওভারে দলকে ১১১ রান এনে দেন দুই ওপেনার আবিস্কা ফার্নান্দো ও অধিনাক দিমুথ করুনারত্নে। দু’জনই হাফ-সেঞ্চুরি তুলে ফিরেন। ফার্নান্দো ৫৫ বলে ৫০ ও করুনারত্নে ৫৭ বলে ৫২ রান করেন।

দুর্দান্ত শুরুর পর শ্রীলঙ্কার মিডল-অর্ডার ব্যাটসম্যানরা বড় ইনিংস খেলতে ব্যর্থ হন। কুশল মেন্ডিস ২০, সাবেক অধিনায়ক অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুজ ৫ ও ধনঞ্জয়া ডি সিলভা ১৮ রান করে ফিরেন। তবে এর মাঝেও এক প্রান্ত আগলে রেখেছিলেন কুশল পেরেরা। কিন্তু ৫০ বলে ৪২ রানের বেশি করতে পারেননি তিনি।

৩৮তম ওভারে দলীয় ২১৫ রানে ষষ্ঠ ব্যাটসম্যান হিসেবে আউট হন পেরেরা। এ অবস্থায় উইকেটে আসেন হাসারাঙ্গা। তখন ক্রিজে ছিলেন থিসারা পেরেরা। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বোলারদের উপর চড়াও হন তিনি। ২২ বলে ৩টি চার ও ১টি ছক্কায় ৩২ রান করে বলের সাথে রানের ব্যবধান কমিয়ে আনেন পেরেরা। সপ্তম ব্যাটসম্যান হিসেবে পেরেরা যখন আউট হন তখন জয়ের জন্য ৪৪ বলে ৩৭ রান দরকার পড়ে শ্রীলঙ্কার।

এরপর দলীয় ২৬২ রানে আউট হন উদানা। এ অবস্থায় লক্ষণ সান্দাকানকে নিয়ে নবম উইকেটে ২৭ রান যোগ করে শ্রীলঙ্কাকে জয়ের কাছাকাছি নিয়ে যান হাসারাঙ্গা। কিন্তু জয় থেকে ১ রান দূরে থাকতে আউট হন সান্দাকান। শেষ পর্যন্ত শেষ ওভারের দ্বিতীয় বলে জয়ের স্বাদ পায় শ্রীলঙ্কা। ম্যাচ সেরা হয়েছেন হাসারাঙ্গা।

আগামী ২৬ ফেব্রুয়ারি হাম্বানটোটায় হবে সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডে।

বিডি প্রতিদিন/এনায়েত করিম


আপনার মন্তব্য