শিরোনাম
প্রকাশ : ৪ জানুয়ারি, ২০২১ ১০:২০
আপডেট : ৪ জানুয়ারি, ২০২১ ১২:৪৮
প্রিন্ট করুন printer

ইন্টারের গোল উৎসব, মার্তিনেসের হ্যাটট্রিক

অনলাইন ডেস্ক

ইন্টারের গোল উৎসব, মার্তিনেসের হ্যাটট্রিক

সিরি’আ লিগে ঘরের মাঠ সান সিরোতে লওতারো মার্তিনেসের হ্যাটট্রিকে ক্রোটনকে ৬-২ ব্যবধানে উড়িয়ে দিয়েছে ইন্টার মিলান।

এদিন, ম্যাচের ১২তম মিনিটে এগিয়ে গিয়েছিল ক্রোটন। তবে সেই ব্যবধান বেশিক্ষণ ধরে রাখতে দেয়নি আন্তনিও কন্তের দল। রোমেলু লুকাকুর পাস থেকে ১৯তম মিনিটে ইন্টারকে সমতায় ফেরান মার্তিনেস। এরপরে ফের এগিয়ে যায় নেরাজ্জুরিরা। এবার নিজেদের ভুলে ৩১তম মিনিটে গোল হজম করে বসে ক্রোটন। অবশ্য আত্মঘাতি গোল হজম করলেও ৩৬তম মিনিটে পেনাল্টি থেকে সমতায় ফেরে তারা।  

২-২ ব্যবধানে প্রথমার্ধ শেষ করলেও বিরতির পর ভয়ঙ্কর হয়ে ওঠে ইন্টার। ৫৭ ও ৭৮তম মিনিটে গোল করে হ্যাটট্রিক পূরণ করেন মার্তিনেস। আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ডের জ্বলে ওঠার রাতে থেমে থাকেননি লুকাকো ও আশরাফ হাকিমিরা। মার্তিনেসের হ্যাটট্রিক পূরণের আগে ৬৪তম মিনিটে দলের হয়ে চতুর্থ গোলটি করেন লুকাকু। ৮৭তম মিনিটে ইন্টারের শেষ গোলটি করেন হাকিমি।  

এ নিয়ে টানা ৮ ম্যাচে জয় পেলো ইন্টার।


বিডি প্রতিদিন/ ওয়াসিফ


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১৯:০৬
আপডেট : ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১৯:১২
প্রিন্ট করুন printer

ভক্তের কাণ্ড দেখে ভয়ে ছোটাছুটি কোহলির!

অনলাইন ডেস্ক

ভক্তের কাণ্ড দেখে ভয়ে ছোটাছুটি কোহলির!
বিরাট কোহলি। ফাইল ছবি

যেকোনো মাঠেই নিরাপত্তা গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। বিশেষ করে যখন দুটি দেশের আন্তর্জাতিক স্তরের ক্রিকেটাররা খেলেন। ভারতে নরেন্দ্র মোদি স্টেডিয়ামে খেলা চলাকালীন দর্শক মাঠে ঢুকে পড়ায় স্টেডিয়ামের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে।

বুধবার এই স্টেডিয়ামে ভারত-ইংল্যান্ড তৃতীয় টেস্ট ম্যাচকালীন এক ক্রিকেটভক্ত অনায়াসে ঢুকে পড়েন মাঠে।

সেই ভক্তের কাণ্ড দেখে রীতিমতো ভয় পেয়ে গেলেন বিরাট কোহলি। ওই ভক্তের কাণ্ড দেখে ততক্ষণে দুই দলের অন্য ক্রিকেটাররা বেশ অস্বস্তিতে পড়েছিলেন। নিরাপত্তারক্ষীরা অবশ্য তড়িঘড়ি সেই সমর্থককে মাঠ থেকে বের করে দেন।

প্রসঙ্গত, ভারতের আহমেদাবাদে শুরু হওয়া সিরিজের তৃতীয় ডে-নাইট টেস্টে প্রথম ইনিংসে অক্ষর প্যাটেলের ঘূর্ণি জাদুতে মাত্র ১১২ রানে গুটিয়ে যায় সফরকারী ইংল্যান্ড।

এদিকে, প্রথম ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে ইংলিশ স্পিনার জো রুটের বিষাক্ত স্পিনে ১৪৫ রান করেই অলআউট ভারত। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত তৃতীয় দিনের দ্বিতীয় ইনিংসে আজ বৃহস্পতিবার ৮০ রানে ৮ উইকেট হারিয়ে ব্যাটিং করছে ইংল্যান্ড।

বিডি প্রতিদিন/এমআই


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১৭:১০
প্রিন্ট করুন printer

রুটের বিষাক্ত স্পিনে দেড়শ’ রানের আগেই গুটিয়ে গেল ভারত!

অনলাইন ডেস্ক

রুটের বিষাক্ত স্পিনে দেড়শ’ রানের আগেই গুটিয়ে গেল ভারত!

ভারতের আহমেদাবাদে শুরু হওয়া সিরিজের তৃতীয় ডে-নাইট টেস্টে প্রথম ইনিংসে অক্ষর প্যাটেলের ঘূর্ণি জাদুতে মাত্র ১১২ রানে গুটিয়ে যায় সফরকারী ইংল্যান্ড। এদিকে প্রথম ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে ইংলিশ স্পিনার জো রুটের বিষাক্ত স্পিনে ১৪৫ রান করেই অলআউট ভারত। 

মাত্র ৬.২ ওভার বল করে ৩টি মেডেন নিয়ে ৮ রান দিয়ে একাই ৫টি উইকেট তুলে নিয়েছেন ইংলিশ অধিনায়ক। মাত্র ৩৩ রানের লিড নিতে পেরেছে কোহলিরা।

প্রথম দিনই ৩৩ ওভার ব্যাট করে ৯৯ রান তুলেছিল ভারত। তাও ওপেনার রোহিত শর্মা কিছুক্ষণ দাঁড়াতে পেরেছিলেন বলে। ৯৬ বল মোকাবেলা করে সর্বোচ্চ ৬৬ রান করেন তিনি। বিরাট কোহলি করেন দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২৭ রান।

তবে দ্বিতীয় দিনে নেমে ২৬ রান যোগ করতেই আরও ৫ উইকেট হারায় ভারত। ভারতের এই দুর্দশার জন্য একমাত্র দায়ী স্লো লেফট আর্ম অর্থডক্স বোলার জ্যাক লিচ ও ডানহাতি অফব্রেক বোলার জো রুট। জো রুট এসেই একের পর এক উইকেট তুলে নিতে শুরু করেন।

অন্য স্পিনার জ্যাক লিচও নিয়েছেন ৪ উইকেট। জোফরা আরচারই কেবল পেসারদের মধ্যে একটি উইকেট নিতে সক্ষম হয়েছেন।

এর আগে বুধবার টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে অক্ষর প্যাটেলের গোলাপি ঘূর্ণি জাদুতে রীতিমতো কুপোকাত সফরকারীরা। ইংল্যান্ডের ১১২ রানের গুটিয়ে যাওয়ার পেছনে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখেন অক্ষর প্যাটেল। ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় টেস্টেই মাত্র ৩৮ রানে ৬ উইকেট শিকার করেছেন স্পিনার অক্ষর প্যাটেল।  

বিডি-প্রতিদিন/বাজিত হোসেন


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১৬:০৩
প্রিন্ট করুন printer

রোমাঞ্চকর জয়ের দিনে গাপটিলের ছক্কার রেকর্ড!

অনলাইন ডেস্ক

রোমাঞ্চকর জয়ের দিনে গাপটিলের ছক্কার রেকর্ড!

আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে সর্বোচ্চ ছক্কা হাঁকানোর রেকর্ড গড়েছেন মার্টিন গাপটিল। বর্তমানে আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে তার ছক্কার সংখ্যা ১৩২টি। পেছনে ফেলেছেন ১২৭টি ছক্কা হাঁকানো রোহিত শর্মাকে।

তার অন্যবদ্য ব্যাটিংয়েই পাঁচ ম্যাচ সিরিজের দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে অস্ট্রেলিয়াকে ৪ রানে হারিয়েছে নিউজিল্যান্ড। রোমাঞ্চকর জয় পেলেও ৩ রানের জন্য ক্যারিয়ারে তৃতীয় সেঞ্চুরি থেকে বঞ্চিত হন গাপটিল।

বৃহস্পতিবার ডানেডিনের ইউনিভার্সিটি ওভালে প্রথমে ব্যাটে করে গাপটিল, কেন উইলিয়ামসন ও জিমি নিশামের ঝড়ো ব্যাটিংয়ে নির্ধারিত ২০ ওভার শেষে ৭ উইকেট হারিয়ে ২১৯ রান করে নিউজিল্যান্ড। জবাবে ৮ উইকেট হারিয়ে ২১৫ রান করে অজিরা।

২২০ রানের লক্ষ্যে ব্যাটিংয়ে নেমে দারুণ লড়াই করে সফরকারী অস্ট্রেলিয়া। দুই ওপেনার ভালো না করলেও তিন নাম্বারে নামা জস ফিলিপ ৩২ বলে ৪৫ রানের ইনিংস খেলেন। তবে সপ্তম উইকেট জুটিতে আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টির ইতিহাসে রেকর্ড গড়েন মাকার্স স্টোইনিস ও ডানিয়েল স্যামস।

৯২ রানের এই জুটি দলকে জয়ের পথেই নিয়ে যাচ্ছিল। তবে জেমস নিশামের করা ইনিংসের শেষ ওভারে জয়ের জন্য অজিদের ১৫ রান দরকার হলেও এই দুজনই উইকেট হারায়। সফরকারীরা তুলতে পারে ১০ রান। ৩৭ বলে ৭৮ রানের ইনিংস খেলার পথে স্টোইনিস ক্যারিয়ারের প্রথম হাফসেঞ্চুরি তুলে নেন। ৭টি চারের পাশাপাশি তিনি ৫টি ছক্কা হাঁকান। আর ১৫ বলে ২টি চার ও ৪টি ছক্কায় ৪১ রান করেন স্যামস।

কিউই বোলারদের মধ্যে সর্বোচ্চ ৪টি উইকেট পান স্পিনার মিচেল স্যান্টনার। নিশাম ২টি এবং টিম সাউদি ও ইশ সোধি একটি করে উইকেট দখল করেন।

এর আগে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে দলীয় ২০ রানের ওপেনার টিম সেইফার্টের উইকেট হারায় নিউজিল্যান্ড। তবে এরপর অধিনায়ক উইলিয়ামসনকে নিয়ে ১৩১ রানের জুটি গড়েন গাপটিল। ১৬তম ফিফটি করা ডানহাতি এই ব্যাটসম্যান ৫০ বলে ৯৭ রান করে স্যামসের বলে ফেরেন। সেঞ্চুরি না পাওয়ার আক্ষেপ নিয়ে মাঠ ছাড়লেও অসাধারণ একটি কীর্তি গড়েছেন তিনি। ৮টি ছক্কা হাঁকিয়ে সর্বোচ্চ ওভার বাউন্ডারির মালিক হলেন তিনি।

দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৩৫ বলে ৫৩ করেন উইলিয়ামসন। ১৩তম ফিফটির দেখা পাওয়া এই তারকা ২টি চার ও ৩টি ছক্কা মারেন। শেষদিকে ঝড় তোলেন নিশাম। ১৬ বলে তিনি ৪৫ করে অপরাজিত থাকেন। মাত্র একটি চার মারলেও তিনি ৬টি ছক্কা হাঁকান।

অজি বোলারদের মধ্যে কেইন রিচার্ডসন সর্বোচ্চ তিনটি উইকেট পান। এছাড়া স্যামস, ঝাই রিচার্ডসন ও অ্যাডাম জাম্পা একটি করে উইকেট নেন। দারুণ ব্যাটিংয়ের সুবাদে ম্যাচ সেরা হয়েছেন গাপটিল।

আগামী ৩ মার্চ ওয়েলিংটনের ওয়েস্টপ্যাক স্টেডিয়ামে সিরিজের তৃতীয় টি-টোয়েন্টি অনুষ্ঠিত হবে।

বিডি-প্রতিদিন/বাজিত হোসেন


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১১:৩৩
আপডেট : ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১১:৩৯
প্রিন্ট করুন printer

আহমেদাবাদে প্রথম দিনেই চালকের আসনে ভারত

অনলাইন ডেস্ক

আহমেদাবাদে প্রথম দিনেই চালকের আসনে ভারত
সংগৃহীত ছবি

শেষ বেলায় সাজঘরে ফিরে গেলেন ভারত ধিনায়ক বিরাট কোহলি। এরপরও আহমেদাবাদে ডে-নাইট টেস্টের প্রথম দিনের শেষে চালকের আসনে ভারত। ইংলিশ পেসার এবং স্পিনারদের সামলে প্রথম দিন শেষে ৩ উইকেট হারিয়ে ৯৯ তুলেছে ভারত। অর্ধশতরান করে অপরাজিত রয়েছেন রোহিত শর্মা। এর আগে, ১১২ রানেই গুটিয়ে গেছে ইংল্যান্ডের প্রথম ইনিংস।

অক্ষর প্যাটেল এবং রবিচন্দ্রন অশ্বিনের দাপটে প্রথম ইনিংসে ধস নামে ইংল্যান্ড ব্যাটিংয়ে। ঘরের মাঠে মাত্র ৩৮ রানে ৬ উইকেট নিয়ে আমেদাবাদের নরেন্দ্র মোদি স্টেডিয়ামে প্রথম টেস্ট ম্যাচটিকে স্মরণীয় করে রাখলেন অক্ষর। অশ্বিন নেন তিন উইকেট। শততম টেস্ট খেলতে নেমে একটি উইকেট তুলে নেন ইশান্ত শর্মাও। ইংল্যান্ডের ১১২ রানের মধ্যে ক্রলি একাই করেন ৫৩ রান।

ব্যাট করতে নেমে ইংলিশ পেসারদের মধ্যেই ভালই সামলান রোহিত-গিল জুটি। কিন্তু ১১ রানের মাথায় গিলকে ফেরান আর্চার। রানের খাতা খোলার আগেই ফিরে যান চেতেশ্বর পূজারাও। দ্রুত ২ উইকেট হারিয়ে কিছুটা চাপে পড়ে গিয়েছিল ভারত। কিন্তু রোহিত শর্মার সঙ্গে জুটি বেঁধে দলের রানকে এগিয়ে নিয়ে যেতে থাকেন অধিনায়ক বিরাট কোহলি (২৭)। তৃতীয় উইকেটে অর্ধশতরানের পার্টনারশিপ গড়েন তারা। কিন্তু প্রথম দিনের খেলা শেষ হওয়ার মুখে বাঁহাতি স্পিনার জ্যাক লিচের বলে ফিরে যান বিরাট।

তবে রোহিত শর্মা যে দুরন্ত ছন্দে ব্যাট করছেন, তাতে হিটম্যানের ব্যাট থেকে ফের একটি বড় ইনিংসের আশা করতেই পারেন ভারতীয় সমর্থকরা। দিনের শেষে ৫৭ রানে অপরাজিত রয়েছেন রোহিত। এদিন আমেদাবাদের উইকেট থেকে ভারতীয় স্পিনাররা যেমন সাহায্য পেয়েছেন, সেরকমই একটা সময় রোহিত-গিলদের যথেষ্ট বিব্রত করছেন ইংলিশ পেসাররাও। বিশেষ করে ফ্লাডলাইটের আলোয় স্পিনারদের পাশাপাশি পেস বোলাররাও গোলাপি বলে উইকেট থেকে সাহায্য পেয়েছেন। ফলে কঠিন উইকেটে প্রথম ইনিংসে ইংল্যান্ডের থেকে যতটা বেশি সম্ভব এগিয়ে থাকাই লক্ষ্য কোহলিদের।


বিডি-প্রতিদিন/আব্দুল্লাহ সিফাত


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১১:২০
আপডেট : ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ১২:০৮
প্রিন্ট করুন printer

নিউজিল্যান্ডে বিশেষ ট্রাউজার পরে খেলবে টাইগাররা

অনলাইন ডেস্ক

নিউজিল্যান্ডে বিশেষ ট্রাউজার পরে খেলবে টাইগাররা

করোনাকালীন সময়ের ক্রিকেটের জন্য যে পাঁচটি নতুন নিয়মের প্রবর্তন করেছে আইসিসি, তার মধ্যে অন্যতম হলো ক্রিকেট বলে লালার ব্যবহার নিষিদ্ধ করা। যে কারণে এখন বলের উজ্জ্বলতা ধরে রাখতে বেগ পেতে হচ্ছে। পুরোনো বলে রিভার্স সুইং আদায়ে বেশ কষ্টই হচ্ছে বোলারদের।

এ সমস্যা সমাধানে অভিনব উপায় বের করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে আসন্ন সিরিজে বিশেষ ধরনের ট্রাউজার পরে খেলবে টাইগাররা। সাধারণ কাপড়ের চেয়ে খানিক ভিন্ন হবে থাইল্যান্ড থেকে আনা কাপড় দিয়ে বানানো এ ট্রাউজার। যাতে করে ট্রাউজারে ঘষে বলের উজ্জ্বলতা বেশি সময় ধরে রাখা যায়।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সবশেষ ঘরের মাঠের সিরিজ থেকেই এ বিশেষ ট্রাউজার ব্যবহারের প্রাথমিক পরিকল্পনা ছিল। তবে সেটি বাস্তবায়িত হয়নি। মূল ম্যাচের বদলে অনুশীলনের জন্য টাইগারদের এ বিশেষ ট্রাউজার সরবরাহ করেছিল জাতীয় দলের জার্সি প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান স্পোর্টস এন্ড স্পোর্টস।

বিডি প্রতিদিন/ফারজানা


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর