Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ১৬ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৫ মার্চ, ২০১৯ ২১:২০

বাংলাদেশ প্রতিদিন পড়ার পর বই পড়েছি

সমরেশ মজুমদার

বাংলাদেশ প্রতিদিন পড়ার পর বই পড়েছি

বাংলাদেশের অগুনতি পাঠকের সঙ্গে আমার যে সম্পর্ক শুরু হয়েছিল উনিশ শো সাতাশি-আটাশি সাল থেকে তা পাকাপোক্ত হয়েছে বাংলাদেশ প্রতিদিনের সৌজন্যে

 

পয়লা চৈত্রের তোড়জোড় শুরু হয়ে গেছে মনের মধ্যে। আমি জানি না, কখন কীভাবে কেমন করে বাংলাদেশ প্রতিদিনের সঙ্গে আমার নিবিড় আত্মীয়তা তৈরি হয়ে গেছে। চৈত্র মাসের প্রথম দিকে যে পত্রিকার পথচলা শুরু, সেই মাস নিয়ে রবীন্দ্রনাথ অসাধারণ কবিতা লিখেছিলেন- ‘প্রহর শেষের আলোয় রাঙা সেদিন চৈত্র মাস, তোমার চোখে দেখেছিলাম, আমার সর্বনাশ।’ আহা, এমন সর্বনাশের জন্য আমি কয়েক লাখ মাইল হেঁটে যেতে পারি। তবে মাসটা হতে হবে চৈত্র মাস।

বাংলাদেশের অগুনতি পাঠকের সঙ্গে আমার যে সম্পর্ক শুরু হয়েছিল উনিশ শো সাতাশি-আটাশি সাল থেকে তা পাকাপোক্ত হয়েছে বাংলাদেশ প্রতিদিনের সৌজন্যে। বাংলাদেশ প্রতিদিনের যে নির্ভীকতা এবং সত্যি কথা বলার সাহসের সঙ্গে সাহিত্যের প্রতি মমত্ববোধ পাঠককে মুগ্ধ করে চলেছে।

প্রসঙ্গত, একটি ঘটনার কথা না বলে পারছি না। মাস দুয়েক আগে দিন দশেকের জন্য বাংলাদেশে গিয়েছিলাম। বাংলাদেশ বাতিঘর প্রস্তাব দিলেন তারা আমার সঙ্গে ঢাকা এবং চট্টগ্রামের পাঠকদের সঙ্গে দুটো আলাদা আড্ডার ব্যবস্থা করে দেবেন। প্রস্তাবটি লোভনীয়। পাঠকদের সঙ্গে আড্ডা মারতে সব লেখকেরই ভালো লাগে।

ঢাকা শহরে বাতিঘরের ভিতরে পাঠকরা যেন উপচে পড়েছিলেন। অনেক আড্ডা জমেছিল। চট্টগ্রাম থেকে প্রেক্ষাগৃহে অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছিল সেখানে তিল ধরার জায়গা ছিল না। প্রাথমিক বক্তৃতা শেষ হওয়ার পর যখন আমাকে বলতে বলা হলো তখন দেখলাম সেই উপচেপড়া ভিড়ের সামনের সারিতে দাঁড়িয়ে এক তরুণী তার ডান হাত মাথার ওপর তুলে দৃষ্টি আকর্ষণ করছে। সবাইকে থামিয়ে আমি তাকে জিজ্ঞাসা করলাম, তুমি কি কিছু বলবে? মেয়েটি হাত নিচে নামিয়ে গলা তুলে বলল, ‘আমি আপনাকে ভালোবাসি।’

শোনামাত্র প্রেক্ষাগৃহের সবাই মজা পেয়ে চিৎকার করে হেসে উঠল। আমি মেয়েটিকে মঞ্চের ওপর ডেকে কথা বলে জানতে পারলাম, সে কলেজে পড়ে। আমার লেখা তার খুব ভালো লাগে।

জিজ্ঞাসা করলাম, ‘আমার লেখা প্রথম কোথায় পড়েছ?’ সে জবাব দিয়েছিল, ‘বাংলাদেশ প্রতিদিনে পড়ার পর বই পড়েছি’ বুঝতে পারলাম, সেতু নির্মাণ করে দিয়েছে বাংলাদেশ প্রতিদিন।

আজ ছাব্বিশ ফাল্গুন। এই দিন পৃথিবীতে এসেছিলাম। বাংলাদেশ প্রতিদিন এসেছে পয়লা চৈত্রে। মাসের বিচারে একদম ফারাক নেই। তাই তো!

লেখক : খ্যাতিমান কথাসাহিত্যিক।


আপনার মন্তব্য