Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ১৪ অক্টোবর, ২০১৯ ১১:২১
আপডেট : ১৪ অক্টোবর, ২০১৯ ১৫:০৩

শিশুর সাথে এ কেমন পাশবিকতা!

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি

শিশুর সাথে এ কেমন পাশবিকতা!

সুনামগঞ্জে দিরাই উপজেলার রাজানগর ইউনিয়নের কেজাউরা গ্রামে ৫ বছর বয়সী এক শিশুকে ছুরিকাঘাতে হত্যার পর লিঙ্গ ও কান কেটে মৃতদেহ গাছে ঝুলিয়ে রেখেছে অজ্ঞাত দুর্বৃত্তরা। রবিবার দিনগত রাতে কেজাউরা গ্রামে এই ঘটনাটি ঘটে। সোমবার ভোরে তার মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। নিহত তুহিন (৫) কেজাউরা গ্রামের আব্দুল বাছিরের ছেলে।

পুলিশ জানায়, রবিবার দিনগত রাতে তুহিনের বাবা দুই ছেলেকে নিয়ে এক বিছানায় ঘুমান। রাত ১ টার দিকে তুহিন পশ্রাব করার জন্য ঘর থেকে বের হয়। রাত ৩টার দিকে তুহিনকে বিছানায় দেখতে না পেয়ে পরিবারের সবাইকে নিয়ে খোঁজাখুঁজি শুরু করেন বাবা। এক পর্যায়ে বাড়ির অদূরে একটি কদম গাছের সাথে তার ঝুলন্ত মৃতদেহ দেখতে পান তারা।  দুর্বৃত্তরা শিশু তুহিনকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করে দুটি ছুরি পেটের মধ্যে রেখেই মৃতদেহ গাছের সাথে ঝুলিয়ে রাখে। পৈচাশিক কায়দায় তার কান ও  লিঙ্গ কেটে ফেলে তারা। 

তুহিনের ঝুলন্ত মৃতদেহ দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেয় স্বজনরা। সোমবার ভোরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে। পরবর্তীতে ময়নাতদন্তের জন্য সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়। 

নিহত শিশু তুহিনের বাবা আব্দুল বাছির বলেন, প্রতিবেশী কারো সাথে আমার শত্রুতা ছিল না। করা আমার ছেলেকে এমন পৈচাশিক ভাবে খুন করল কিছুই বলতে পারছি না। 

এদিকে, শিশু তুহিনকে এমন নৃশংসভাবে কারা এবং কেন খুন করেছে সে ব্যাপারে এখনও কিছু জানতে পারেনি পুলিশ। 

দিরাই থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) রূপক কর্মকার জানান, শিশুটির মৃতদেহের সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করে ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতালে পাঠানো হচ্ছে। হত্যাকাণ্ডের রহস্য উদঘাটনে ডিবিসহ পুলিশ তদন্ত শুরু করেছে। 

 

বিডি প্রতিদিন/ ওয়াসিফ


আপনার মন্তব্য