Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ১৭ আগস্ট, ২০১৯ ২০:১০

বন্দর নগরীর বিনোদন কেন্দ্রগুলোতে এখনও উপচেপড়া ভিড়

ফারুক তাহের, চট্টগ্রাম

বন্দর নগরীর বিনোদন কেন্দ্রগুলোতে এখনও উপচেপড়া ভিড়

কোরবানির ঈদের ষষ্ঠদিনেও চট্টগ্রাম নগরী ও আশপাশের বিনোদন কেন্দ্র এবং দর্শনীয় স্থানগুলোতে দর্শনার্থীদের ছিল উপচেপড়া ভিড়। ঈদের সরকারি ছুটি শেষ হলেও নগরীতে পুরোপুরি কর্মমুখর পরিবেশ এখনও ফিরে আসেনি। তাই সাপ্তাহিক ছুটির দিনগুলোও পরিবার-পরিজনের সঙ্গে আমোদ-আহ্লাদে কাটাচ্ছেন নগরীর চাকুরিজীবী থেকে সাধারণ ব্যবসায়ীরা। 

শনিবার সকাল থেকে নগরীর উল্লেখযোগ্য বিনোদন কেন্দ্র ফয়ে’স লেক, কনকর্ড সী-ওয়ার্ল্ড, চিড়িয়াখানা, আগ্রাবাদ উন্মুক্ত পার্ক, ওয়ার সিমেট্টি, বহদ্দারহাট স্বাধীনতা পার্ক, জিয়া শিশুপার্ক, পতেঙ্গা সমুদ্রসৈকত, কর্ণফুলী নদীর তীরসহ সবখানেই ছিল বিনোদনপ্রিয় মানুষের জটলা। 

শিশু-কিশোর থেকে প্রায় সব বয়সী নারী-পুরুষের সরব উপস্থিতি লক্ষ্য করা গেছে নগরীর এসব বিনোদন কেন্দ্রে। তবে রবিবার থেকে পুরোদমে অফিস আদালত ও দোকানপাট চালু হলে ফের কর্মব্যস্ত সময়ে প্রবেশ করবে নগরবাসী।

এদিকে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, নগরীর অন্যতম বিনোদন কেন্দ্র বহদ্দারহাট স্বাধীনতা পার্ক ও কাজীর দেউড়ি জিয়া শিশুপার্কের বেশ কিছু রাইড ভাঙা এবং ব্যবহার অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। শিশুরা ব্যবহার করতে না পেরে মনখারাপও করেছে।

স্বাধীনতা পার্কে পরিবারের সদস্যদের নিয়ে বেড়াতে আসা বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা রবিউল হাসান জানান, এখানে অনেকগুলো রাইড বন্ধ। ব্যবহার অনুপযোগী এসব রাইডে আমার মেয়ে চড়তে চাইলেও পারেনি বলে মন খারাপ করেছে। কর্তৃপক্ষের উচিত যেসব রাইড ব্যবহার করা যাচ্ছে না, সেগুলো দ্রুত সংস্কার করা। কারণ চট্টগ্রাম শহরে বসবাসরত জনসংখ্যার তুলনায় এ ধরনের পার্ক ও বিনোদন কেন্দ্র খুবই কম।

এদিকে জিয়া শিশুপার্কেও দেখা গেছে কয়েকটি রাইড বেশ লক্কড়-ঝক্কড় হয়ে গেছে। তবে পার্কের পরিচালক মো. সোহরাব হোসেন বলেন, আমাদের ২০টি রাইডের মধ্যে মাত্র একটি রাইড বন্ধ রয়েছে। অন্যগুলো পুরনো হয়ে গেলেও চলছে মোটামুটি। অনেকগুলো রাইড মেরামত করতে হবে এটা ঠিক।   


বিডি-প্রতিদিন/বাজিত হোসেন


আপনার মন্তব্য