শিরোনাম
প্রকাশ : ৫ ডিসেম্বর, ২০১৯ ১৮:২৭
আপডেট : ৫ ডিসেম্বর, ২০১৯ ১৮:৩০

চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগ

বিশৃঙ্খলা ঠেকাতে দুই স্থানেই সম্মেলন-কাউন্সিল!

সাইদুল ইসলাম, চট্টগ্রাম

বিশৃঙ্খলা ঠেকাতে দুই স্থানেই সম্মেলন-কাউন্সিল!

চট্টগ্রামে উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন ঘিরে যেমনি উৎসাহ-উদ্দীপনা রয়েছে, ঠিক তেমনি নেতা-কর্মীদের মাঝে ব্যাপকভাবে রয়েছে শংকাও। চট্টগ্রামের তিন সাংগঠনিক কমিটির (মহানগর, উত্তর ও দক্ষিণ জেলা) মধ্যে একমাত্র সুশৃঙ্খল ও বির্তক বিহীন উত্তর জেলা আওয়ামী লীগ। উত্তর জেলার দীর্ঘদিনের ঐতিহ্য ধরে রাখা, নেতা-কর্মীদের উপস্থিতির ধারণ ক্ষমতাসহ নানাবিধ বিষয়ে শংকা এবং বিশৃংখলা ঠেকাতে পৃথকস্থানে সম্মেলন ও কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হচ্ছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে। 

৭ ডিসেম্বর শনিবার সকাল ১০টা থেকে সম্মেলন শুরু হবে লালদীঘির মাঠে এবং বিকাল ৩টায় নগরীর একটি কমিউনিটি সেন্টারে কাউন্সিল অধিবেশন হবে। সম্মেলনে উপস্থিত থাকবেন দলের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এমপিসহ কেন্দ্রীয় ও জেলা-উপজেলার নেতারা।

কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্ত মোতাবেক এই সম্মেলন পৃথকভাবে করা হচ্ছে জানিয়ে আওয়ামী লীগের উপ-প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন বাংলাদেশ প্রতিদিনকে বলেন, চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগসহ উপজেলা পর্যায়ের নেতা-কর্মীরাও সম্মেলনে যোগ দেবেন। এতে একটি কমিউনিটি সেন্টারের ভিতরে স্থান সংকুলন হবে না। তাই নেতা-কর্মীদের সুবিধাসহ নানাবিধ বিষয় বিবেচনা করেই লালদীঘির মাঠে সম্মেলন করা হচ্ছে। তাছাড়া কমিউনিটি সেন্টারে পূর্বে ঘোষিত স্থানেই কাউন্সিল অধিবেশন হবে বলে জানান তিনি।

দলীয় সূত্রে জানান গেছে, গত ২৭ জানুয়ারী উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নুরুল আলম চৌধুরী মারা যাওয়ায় পর ভারপ্রাপ্ত সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন রেলপথ মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি এবিএম ফজলে করিম চৌধুরী এবং সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্বপালন করছেন চট্টগ্রাম জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এমএ সালাম। এবার সভাপতি-সম্পাদক পদের দায়িত্বে কারা আসছেন সেই বিষয়ে নিশ্চিত করে কেউ বলতে না পারলেও দলের সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দিকেই দৃষ্টি নেতা-কর্মীদের। তিনি যোগ্য, ত্যাগী, সততা এবং দীর্ঘদিনের আওয়ামী রাজনীতি জীবনের পাশাপাশি দুঃসময়ে কারা ছিলেন এবং সংসদীয় আসন উপহার দেয়াসহ উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ডে জড়িত রয়েছেন সেসব বিষয়গুলো বিবেচনায় রেখে যোগ্য নেতা নির্বাচন করতে পারেন বলে তৃণমূল নেতা-কর্মীদের অভিমত।

শনিবার ৭ ডিসেম্বর চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনের প্রথম অধিবেশন লালদীঘির মাঠে সকাল ১০টায় এবং নগরীর কাজীর দেউড়িস্থ ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন হলে বিকাল ৩টায় কাউন্সিল অধিবেশন শুরু হবে। সকালের অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি থাকবেন দলের সাধারণ সম্পাদক ও সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এমপি। উদ্বোধক থাকবেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন এমপি। বিশেষ অতিথি থাকবেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী এড. আবদুল মতির খসরু এমপি, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম হানিফ এমপি, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ও তথ্য মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ এমপি, চট্টগ্রামের দায়িত্বপ্রাপ্ত বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও পানিসম্পদ উপমন্ত্রী এ কে এম এনামুল হক শামীম এমপি, আওয়ামী লীগের উপ-প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মো. আমিনুল ইসলাম আমিনসহ কেন্দ্রীয় ও জেলার নেতৃবৃন্দরা উপস্থিত থাকার কথা রয়েছে। বিকালে শুধুমাত্র কাউন্সিলরা উপস্থিত থাকবেন।

বিডি-প্রতিদিন/সালাহ উদ্দীন


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর