শিরোনাম
প্রকাশ : ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ২০:৫২
আপডেট : ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ২২:২২

অস্ত্র ও মাদক মামলায় ৭ দিনের রিমান্ডে যুবলীগ নেতা খালেদ ভূঁইয়া

আদালত প্রতিবেদক

অস্ত্র ও মাদক মামলায় ৭ দিনের রিমান্ডে যুবলীগ নেতা খালেদ ভূঁইয়া

রাজধানীর গুলশান থানায় করা অস্ত্র ও মাদক আইনের আলাদা দুই মামলায় ঢাকা মহানগর দক্ষিন যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়াকে ৭ দিন রিমান্ডে নেওয়ার অনুমতি দিয়েছেন আদালত। 

ঢাকার আলাদা দুই মহানগর হাকিম এ আদেশ দেন। 

এরআগে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা গুলশান থানার পুলিশ পরিদর্শক মো আমিনুল ইসলাম আসামিকে বুলেটপ্রুফ জ্যাকেট এবং মাথায় হেলমেট পরিয়ে রাত ৮টা ২০ মিনিটে ঢাকার সিএমএম আদালতে হাজির করে অস্ত্র ও মামলায় সাত দিন করে মোট ১৪ দিন রিমান্ডে নেওয়ার আবেদন করেন।

এসময় নিয়মানুযায়ী প্রথমে ঢাকা মহানগর হাকিম দেবদাস চন্দ্র অধিকারী আসামি খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়াকে গুলশান থানার এ দুই মামলায় গ্রেফতার দেখানোর আদেশ দেন। পরে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য গুলশান থানার অস্ত্র আইনের মামলায় শুনানী শেষে ঢাকা মহানগর হাকিম বেগম মাহমুদা আক্তার চার দিন এবং মাদক আইনের মামলায় ঢাকা মহানগর হাকিম মো. শাহিনূর রহমান তিন দিন রিমান্ডে নেওয়ার আদেশ দেন। 

রিমান্ড আবেদনে বলা হয়েছে, আসামি খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়া দীর্ঘদিন যাবৎ নিজ হেফাজতে অবৈধ অস্ত্র রেখে মাদক (ইয়াবা) ব্যবসা সহ বিভিন্ন ধরনের অপরাধমূলক কাজ করে আসছেন। মামলার তদন্তের স্বার্থে আসামির দখল থেকে অবৈধ অস্ত্র, মাদকদ্রব্য এবং মানিলন্ডারিং বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ প্রয়োজন। এছাড়া এ আসামির সঙ্গে অপরাধ কর্মকান্ডে জড়িত সহযোগী আসামীদের বিষয়ে তথ্য, নাম ঠিকানা ও গ্রেফতার লক্ষ্যে আসমিদের রিমান্ডে নেওয়ার প্রয়োজন।


এ বিষয়ে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী আজাদ রহমান সাংবাদিকদের জানান, পর্যায়ক্রমে আসামির এই রিমান্ড কার্যকর করা হবে, অর্থাৎ সাত দিন এই দুই মামলায় খালেদকে জিজ্ঞাসাবাদ করবে পুলিশ। 

এরআগে ক্যাসিনো চালানোর ঘটনায় ঢাকা মহানগর যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়াকে বুধবার সন্ধ্যায় গুলশানের বাসা থেকে গ্রেফতার পর বৃহস্পতিবার বিকালে তাকে গুলশান থানায় হস্তান্তর করে র‌্যাব। এরপর তার বিরুদ্ধে অস্ত্র, মাদক ও মুদ্রাপাচার আইনে মামলা দায়ের করা হয়। 

বিডি-প্রতিদিন/সালাহ উদ্দীন


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর