শিরোনাম
প্রকাশ : ২ এপ্রিল, ২০২০ ১৪:১৭
আপডেট : ২ এপ্রিল, ২০২০ ১৪:২৮

থানা হেফাজতে আসামির মৃত্যু, সেই বরখাস্ত পুলিশ পরিদর্শকের বিরুদ্ধে মামলা

বরগুনা প্রতিনিধি :

থানা হেফাজতে আসামির মৃত্যু, সেই বরখাস্ত পুলিশ পরিদর্শকের বিরুদ্ধে মামলা
শানু হাওলাদার

বরগুনার আমতলী থানা হেফাজতে হত্যা মামলায় সন্দেহভাজন আসামি শানু হাওলাদারের রহস্যজনক মৃত্যুর ঘটনায় সাময়িক বরখাস্ত পরিদর্শক (তদন্ত) মনোরঞ্জন মিস্ত্রির বিরুদ্ধে মামলা নিয়েছে পুলিশ। নির্যাতন ও হেফাজতে মৃত্যু (নিবারণ) আইন- ২০১৩ এর ১৫ ধারায় মামলাটি নেওয়া হয়েছে। 

বরগুনার ডিবি'র ওসি হারুন অর-রশিদকে মামলার তদন্তভার দেওয়া হয়েছে। আমতলী থানা সূত্রে জানা গেছে, গতকাল বুধবার (১ এপ্রিল) রাতে বরগুনার পুলিশ সুপারের নির্দেশে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী অ্যাডভোকেট ইশরাত হাসানের দায়ের করা অভিযোগটি থানায় মামলা হিসেবে নথিভুক্ত হয়েছে।

অভিযোগ দায়েরকারী সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী অ্যাডভোকেট ইশরাত হাসান গণমাধ্যমকে বলেন, গত ২৬ মার্চ সকালে আমতলী থানা পুলিশ হেফাজতে হত্যা মামলার সন্দেহভাজন আসামি শানু হাওলাদারের মৃত্যুর চার দিন অতিবাহিত হলেও এ ঘটনায় থানায় কোনো মামলা হয়নি। এ কারণে দেশের একজন সচেতন নাগরিক হিসেবে আমি লিখিতভাবে পুলিশ সুপারের কাছে নির্যাতন ও হেফাজতে মৃত্যু (নিবারণ) আইন- ২০১৩ এর ৬ ও ৭ ধারায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছি। 

আজ বৃহস্পতিবার সকালে বরগুনার পুলিশ সুপার তার সরকারি ই-মেইল থেকে আমাকে মামলা নেওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। আমতলী থানার পুলিশ পরিদর্শক মো. শাহ আলম গণমাধ্যমকে মামলা নেওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, অ্যাডভোকেট ইশরাত হাসান যে অভিযোগ দায়ের করেছেন পুলিশ সুপারের নির্দেশে আমরা তা নথিভুক্ত করেছি। মামলাটি বরগুনা গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) ওপর তদন্তভার দেওয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ২৬ মার্চ বরগুনার আমতলী থানা থেকে হত্যা মামলায়  সন্দেহভাজন আসামি শানু হাওলাদারের (৫৫) ঝুলন্ত লাশ  উদ্ধার করা হয়। ওই ঘটনায় থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মনোরঞ্জন মিস্ত্রি ও এএসআই আরিফ হোসেনকে সাময়িক বরখাস্ত করেন জেলা পুলিশ সুপার মারুফ হোসেন (পিপিএম)। ঘটনার পরের দিন পরিদর্শক মো. আবুল বাশারকেও থানা থেকে প্রত্যাহার করা হয়। ওইদিন ময়না তদন্ত শেষে রাত ১১টার দিকে শানু হাওলাদারের লাশ তার পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়।

বিডি-প্রতিদিন/শফিক


আপনার মন্তব্য