শিরোনাম
প্রকাশ : ৭ জুলাই, ২০২০ ২২:২৮

টেকসই উন্নয়নের তাগিদ দিলেন রাসিক মেয়র

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী

টেকসই উন্নয়নের তাগিদ দিলেন রাসিক মেয়র
রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন পরিষদের ষষ্ঠ সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুর সাড়ে ১২টা থেকে বিকাল পৌনে ৪টা পর্যন্ত নগর ভবনের সিটি হল সভাকক্ষে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন সিটি মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন।
 
সভাপতির বক্তব্যে মেয়র খায়রুজ্জামান লিটন বলেন, রাজশাহী মহানগরীর সমন্বিত নগর অবকাঠামো উন্নয়ন শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় নগরীর প্রতিটি ওয়ার্ডের রাস্তা, গলিপথ, ড্রেন নির্মাণ করা হবে। টেকসই উন্নয়ন কাজ বাস্তবায়নের লক্ষ্যে বিভিন্ন ওয়ার্ডের গলিপথসমূহ ঢালাইকাজে স্টোন চিপস, প্রাইমারী, টারশিয়ারি ও সেকেন্ডারী ড্রেন নির্মাণে উন্নতমানের উপকরণ দিয়ে কাজ সম্পন্নে সংশ্লিষ্ট সবাইকে দায়িত্বশীল হওয়ার নির্দেশনা প্রদান করেন মেয়র। উন্নয়ন কাজ তদারকি ও মানের বিষয়ে সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ড কাউন্সিলরদের সম্পৃক্ত থাকার অনুরোধ জানান মেয়র।
 
মেয়র আরও বলেন, আয় বৃদ্ধির লক্ষ্যে দেশের অন্যান্য সিটি কর্পোরেশনের মতো নতুন খাত সৃষ্টিতে রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন জায়গা ও জমি কেনাবেচা ও সংরক্ষণের উদ্যোগ গ্রহণ করা হবে। সিটি সেন্টার, স্বপ্নচূড়াসহ নির্মাণাধীন মার্কেটসমূহের কাজ এগিয়ে চলেছে। মার্কেটসমূহ চালু হলে সিটি কর্পোরেশনের স্থায়ী আমানত গঠন করে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতনভাতা পরিশোধ করে আর্থিক দিক দিয়ে আর্থিক বুনিয়াদ শক্ত অবস্থানে পৌঁছাতে সক্ষম হবে। 
 
তিনি আরও বলেন, শালবাগান বাজার, নওদাপাড়া বাজারসহ চারটি বাজার নির্মাণে প্রকল্প দাখিল করা হয়েছে। যানজট নিরসনে নগরীর উন্নয়নে বর্ণালী মোড় থেকে বিলসিমলা পর্যন্ত ফ্লাইওভার নির্মাণের পরিকল্পনা করা হচ্ছে। করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে সরকারের পাশাপাশি সিটি কর্পোরেশন নানা উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। ত্রাণ ও আর্থিক সহায়তা প্রদান অব্যাহত রেখেছেন। করোনায় আক্রান্তদের সেবায় নমুনা সংগ্রহ, তাদের খাদ্য সহায়তা প্রদান অব্যাহত রেখেছে। এছাড়াও করোনায় সংক্রামণ নিয়ে মৃতদের দাফন কাজ সম্পন্নে সহযোগিতা অব্যাহত রেখেছে রাজশাহী সিটি কর্পোরেশন। রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের গ্রহণ করা কর্মসূচি বাস্তবায়নে মাঠপর্যায়ে কর্মরত স্বাস্থ্যকর্মীদের আরও দায়িত্বশীল হওয়ার নির্দেশ প্রদান করেন তিনি।   
 
সভায় ২০১৯-২০২০ অর্থ বছরে উন্নয়ন প্রকল্পের ধারাবাহিকতা এবং ২০২০-২০২১ অর্থ বছরে বাস্তবায়নযোগ্য উন্নয়ন প্রকল্প বিষয়ে আলোচনা ও সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। শিশু একাডেমী রাজশাহীর মুক্তমঞ্চ সংস্কারকরণ এবং শেখ রাসেল মুক্তমঞ্চ নামকরণের প্রস্তাব অনুমোদিত হয়।
 
বিডি প্রতিদিন/এনায়েত করিম

আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর