শিরোনাম
প্রকাশ : ২৪ মার্চ, ২০২১ ২০:২৬
আপডেট : ২৪ মার্চ, ২০২১ ২০:৩১
প্রিন্ট করুন printer

পুলিশের দুই পরিদর্শকের বিরুদ্ধে উত্যক্তের অভিযোগ নারী পরিদর্শকের

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী

পুলিশের দুই পরিদর্শকের বিরুদ্ধে উত্যক্তের অভিযোগ নারী পরিদর্শকের
রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের (আরএমপি) বোয়ালিয়া এবং দামকুড়া থানার দুই পরিদর্শকের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ পুলিশ একাডেমি সারদায় সংযুক্ত সিআইডির এক নারী পরিদর্শককে উত্যক্ত ও হয়রানির অভিযোগ উঠেছে।
 
এ ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত ও জড়িত দুই পরিদর্শক এবং তাদের সহযোগীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানিয়ে ভুক্তভোগী নারী পরিদর্শক বুধবার আরএমপির কমিশনারকে একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। বাংলাদেশ পুলিশ একাডেমির অধ্যক্ষ ভুক্তভোগী নারী পরিদর্শকের আবেদনটি আইনগতভাবে বিবেচনার জন্য সুপারিশ করেছেন।
 
অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, অভিযুক্ত পরিদর্শকদের একজনের সঙ্গে বাংলাদেশ পুলিশ একাডেমি সারদায় কর্মরত থাকার সুবাদে পরিচয় এবং অপর পরিদর্শক ওই নারী পরিদর্শকের সাবেক স্বামী। দু'জনই ওই নারী পরিদর্শককে বিভিন্নভাবে উত্যক্ত করতেন। এতে সাড়া না দেওয়ায় আরএমপিতে কর্মরত অভিযুক্ত পুলিশ পরিদর্শক, ওই নারী পুলিশ পরিদর্শকের স্বামীকে গভীর রাতে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে শারীরিক-মানসিক নির্যাতন করেন। স্বামীর খোঁজে নগরীর বোয়ালিয়া থানায় গেলে ওই পুলিশ পরিদর্শক, নারী পরিদর্শককে আবারও উত্যক্ত করেন এবং নানা ধরনের আজেবাজে ও আপত্তিকর কথাবার্তা বলেন। এভাবে সারাদিন উত্যক্ত ও হয়রানির পর বিকালে তার স্বামীর বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের কথা বলেন এবং মিথ্যা মামলা দিয়ে আদালতে পাঠান বলে আরএমপির কমিশনারকে দেওয়া অভিযোগে উল্লেখ করা হয়েছে।
 
নগরীর বোয়ালিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নিবারণ চন্দ্র বর্মন জানান, অভিযোগকারী নারী পরিদর্শকের স্বামী একজন সক্রিয় শিবিরকর্মী। পুলিশ অভিযান চালিয়ে গ্রেফতার করেছে। তাকে ছাড়াতে নারী পরিদর্শক থানায় এসেছিলেন। কিন্তু মামলার কারণে তার তদবির রাখা সম্ভব হয়নি। এরপর আজ তিনি একটি অভিযোগ করেছেন বলে শুনেছেন।
 
দামকুড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহবুবুর রহমান বলেন, ওই নারী পরিদর্শকের সঙ্গে তার ২০১৮ সালে ডিভোর্স হয়েছে। তারপর থেকে কোনো যোগাযোগ নেই। এখন কেনো আমার নামে অভিযোগ করলেন, সেটি তিনিই বলতে পারবেন।
 
বিডি প্রতিদিন/আরাফাত

আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর