শিরোনাম
প্রকাশ : ১৪ আগস্ট, ২০২১ ১২:৩০
প্রিন্ট করুন printer

রাজধানীর মিরপুর

যুবককে মেয়ে দিয়ে ফাঁসাতে গিয়ে নারী প্রতারক চক্রের প্রধান গ্রেফতার

অনলাইন ডেস্ক

যুবককে মেয়ে দিয়ে ফাঁসাতে গিয়ে নারী প্রতারক চক্রের প্রধান গ্রেফতার
প্রতীকী ছবি
Google News

রাজধানীর মিরপুরে এক যুবককে মেয়ে দিয়ে ফাঁসাতে গিয়ে নারী প্রতারক চক্রের প্রধান রিনা ওরফে গনেশ পুলিশের হাতে গ্রেফতার হয়েছেন। গত বৃহস্পতিবার (১২ আগস্ট) রাতে মিরপুর ১১ নম্বর বাউনিয়াবাঁধ পুকুরপাড় বস্তিতে এ ঘটনা ঘটে। 

এ ঘটনায় গতকাল শুক্রবার (১৩ আগস্ট) পল্লবী থানায় রিনাসহ তিনজনের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজির মামলা হয়েছে। মামলার বাদী সোহেল রবি দাস। মামলায় প্রধান আসামি করা হয়েছে রিনাকে। অন্য আসমিরা হলেন- ফারজানা ও মোস্তফা। 

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, মিরপুর ১১ নম্বর বাউনিয়াবাঁধ পুকুরপাড় বস্তির একটি ঘরে নিয়মিত মদ ও জুয়ার আসর বসে। মাঝে মধ্যে নারী দিয়ে লোকজনকে ফাঁসিয়ে মোটা অংকের টাকা আদায় করা হয়। আর এই চক্রের প্রধান হলেন রিনা ওরফে গনেশ। দেখতে বেঁটে, মোটা ও কালো হওয়ায় স্থানীয়রা তাকে গনেশ নামেই ডাকেন।

মামলার বিবরণীতে জানা গেছে, গত মঙ্গলবার অপরিচিত একটি মোবাইল নম্বর থেকে রবি দাসের মোবাইলে মিসডকল আসে। তিনি ওই নম্বরে কল দিলে ফারজানা পরিচয় দিয়ে এক তরুণী ফোন রিসিভি করেন। ওই তরুণীর সঙ্গে তার কয়েক দফা মোবাইলে কথা হয়। এক পর্যায়ে বাউনিয়াবাঁধ পুকুরপাড় বস্তিতে দেখা করতে চান ওই তরুণী। 

গত বৃহস্পতিবার রাত ১১টায় ওই তরুণীর অনুরোধে দেখা করতে যান রবি দাস। বস্তির মধ্যে একটি টিনশেড ঘরের সামনে যাওয়া মাত্রই ওই তরুণী, একজন নারী ও পুরুষ টেনেহিঁচড়ে ঘরের মধ্যে নিয়ে যান তাকে। এরপর তার  কাছে ১০ হাজার টাকা চাঁদা চান তারা। এরপর কাঠের পিঁড়ি দিয়ে তাকে এলোপাতাড়ি মারতে থাকেন তারা। 

এক পর্যায়ে রবি তার বন্ধু নাজমুলকে ফোন দিয়ে টাকা নিয়ে সেখানে আসতে বলেন। টাকা আনতে দেরি হওয়ায় আবারও তাকে মারধর করা হয়। ওই সময় রিনাসহ তিনজন তাকে ঝাপটে ধরে মাটিতে ফেলে দেয়। এরপর রিনা বটি দা নিয়ে রবিকে গলা কাটতে আসেন। রবি তখন সবাইকে ধাক্কা মেরে জানালা দিয়ে লাফ দিয়ে একটি ডোবায় পড়েন। সাঁতরে নিজেকে রক্ষা করেন। তার চিৎকারে আশপাশের লোকজন এসে তাকে উদ্ধার করেন।

রবি দাস বলেন, আমার বন্ধু টাকা আনেত দেরি করায় রিনা পিঁড়ি দিয়ে আমার মুখে আঘাত করলে আমি মাটিতে পড়ে যাই। আমাকে দুইজন ঝাপটে ধরে। রিনা বটি দা নিয়ে আমার গলা কাটতে আসে। সবাইকে ধাক্কা মেরে জানালা দিয়ে লাফ দিয়ে জীবন বাঁচাই।   

পল্লবী থানার ওসি পারভেজ বলেন, এরা একটি প্রতারক চক্র। মানুষকে  ফাঁদে ফেলে টাকা পয়সা হাতিয়ে নেয়। এ ঘটনায় একটি মামলা হয়েছে। চক্রের প্রধান রিনা নামে একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে কাঠের পিঁড়ি ও একটি বটি, দা জব্দ করা হয়েছে। অন্যদের ধরতে অভিযান চলছে।


বিডি-প্রতিদিন/আব্দুল্লাহ আল সিফাত

এই বিভাগের আরও খবর