শিরোনাম
প্রকাশ : ২৩ জুন, ২০২০ ১৯:৫৬

চতুর্থ দিনে ঢাকা উত্তরের ৩১ হাসপাতালে বিশেষ মশকনিধন কার্যক্রম

অনলাইন ডেস্ক

চতুর্থ দিনে ঢাকা উত্তরের ৩১ হাসপাতালে বিশেষ মশকনিধন কার্যক্রম

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) অধীন এলাকাসমূহের কোভিড ও নন-কোভিড হাসপাতালগুলোতে অবস্থানরত রোগী, ডাক্তার, নার্স ও চিকিৎসা সেবার সাথে নিয়োজিত অন্যদের ডেঙ্গু রোগে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি রোধকল্পে গত শনিবার থেকে সপ্তাহব্যাপী বিশেষ মশকনিধন কার্যক্রমের আজ মঙ্গলবার চতুর্থ দিন। 

আজও বিকাল সাড়ে ৪টা থেকে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টা পর্যন্ত ঢাকা উত্তরের মোট ৩১টি হাসপাতালে ডিএনসিসি কর্তৃক মশক নিধন কার্যক্রম পরিচালিত হয়েছে। 

হাসপাতালগুলো হচ্ছে: উত্তরা অঞ্চল-১, ৬ ও ৭ এর অধীন আর এম সি হাসপাতাল, ক্রিসেন্ট হাসপাতাল, হাই কেয়ার হাসপাতাল, লুবনা হাসপাতাল, আশকোনা মেডিকেল, আর রাহা মেডিকেল, তারেক মেডিকেল, রোজা হাসপাতাল, আশকোনা ডায়গনেস্টিক সেন্টার, ল্যাব ওয়ান ডায়গনেস্টিক সেন্টার। 

মিরপুর-২, অঞ্চল-২ এর অধীন সুরক্ষা জেনারেল হাসপাতাল, আনোয়ারা নার্সিং হোম, ব্রাক ম্যাটারনিটি, ব্রাক মানসি, আলোক ডায়গনেস্টিক এন্ড কনসাল্টেশন সেন্টার, আকলিমা ম্যাটারনিটি ক্লিনিক।

মহাখালী অঞ্চল-৩ এর অধীন মেট্রোপলিটন হাসপাতাল, ইউনিভার্সেল হাসপাতাল, ফরায়েজী হাসপাতাল, আল রাজি হাসপাতাল, মা ও শিশু ক্লিনিক রামপুরা, হ্যান্ডস ক্লিনিক রামপুরা। 

মিরপুর অঞ্চল-৪ এর অধীন সেলিনা জেনারেল হাসপাতাল, ইবনে সিনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, ডেলটা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, গ্যালাক্সি হাসপাতাল, এক্সিম ব্যাংক হাসপাতাল। 

কারওয়ান বাজার অঞ্চল-৫ এর অধীন আল রাজি হাসপাতাল, জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউট, জাতীয় চক্ষু বিজ্ঞান ইনস্টিটিউট, ঢাকা শিশু ও নবজাতক হাসপাতাল। 

২০ জুন থেকে শুরু করে আজ পর্যন্ত এই ৪ দিনে মোট ১২৩টি হাসপাতালে এই বিশেষ মশক নিধন কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়েছে।  

উল্লেখ্য, প্রতিদিন বিকাল সাড়ে ৪টা থেকে সাড়ে ৬টা পর্যন্ত লার্ভিসাইডিং (মশার লার্ভার কীটনাশক) ও এডাল্টিসাইডিং (পরিণত মশার কীটনাশক) প্রয়োগ করা হচ্ছে। ইতোমধ্যে ডিএনসিসি কর্তৃক বিভিন্ন হাসপাতালের আঙ্গিনায় এবং আশেপাশে বিশেষ পরিচ্ছন্নতা অভিযান সম্পন্ন করা হয়েছে। ঢাকা উত্তরের হাসপাতালগুলোতে আগামীকালও মশক নিধন কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে। ডিএনসিসির অন্যান্য এলাকায় মশক নিধনের স্বাভাবিক কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে।

বিডি প্রতিদিন/এনায়েত করিম


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর