শিরোনাম
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ৩ নভেম্বর, ২০১৫ ০০:০০ টা
আপলোড : ২ নভেম্বর, ২০১৫ ২৩:৪৮

কলেজের জায়গায় ছাত্রলীগ কার্যালয়

শাহ্ দিদার আলম নবেল, সিলেট

কলেজের জায়গায় ছাত্রলীগ কার্যালয়

সিলেটে কলেজের জায়গা দখল করে ছাত্রলীগ নেতার কার্যালয় নির্মাণ করা হচ্ছে। নগরীর বালুচরে এমসি কলেজ ছাত্রাবাসের জায়গায় কার্যালয়টি নির্মাণ করছেন  জেলা ছাত্রলীগের সাবেক আলোচিত সভাপতি হিরণ মাহমুদ নিপু। অবৈধ এই স্থাপনা অপসারণে ৭ নভেম্বর পর্যন্ত সময় বেঁধে দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন এমসি কলেজের অধ্যক্ষ নিতাই চন্দ্র চন্দ।

সরেজমিন দেখা যায়, বালুচর পয়েন্ট থেকে নতুন বাজারমুখী রাস্তার পূর্ব পাশে কার্যালয়টির নির্মাণ কাজ চলছে। পাকা ঘরের সামনে সাইনবোর্ড এবং জাতির জনক ও প্রধানমন্ত্রীর ছবি টাঙানো হয়েছে। ভিতরে চলছে আস্তরণের কাজ। রং করা হচ্ছে জানালার গ্রিল। পাশের বিদ্যুতের খুঁটি থেকে অবৈধভাবে সংযোগ নেওয়া হয়েছে কার্যালয়টিতে। কার্যালয়ের সামনেই দেখা হয় দখলদার জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি হিরণ মাহমুদ নিপুর সঙ্গে। কলেজের জায়গা দখল করে কার্যালয় স্থাপন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, বালুচর এলাকাটি এক সময় বিএনপি-জামায়াতের ঘাঁটি ছিল। আওয়ামী লীগ-ছাত্রলীগ এই এলাকায় কর্মিসভাও করতে পারত না। তিনি দলের নেতা-কর্মীদের সুসংগঠিত করে ওই এলাকায় আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ-সংগঠনের শক্ত অবস্থান তৈরি করেছেন। তাই নেতা-কর্মীদের বসার জন্য কার্যালয়টি করেছেন। তবে কার্যালয়ের জায়গাটি কলেজের নয় দাবি করে তিনি বলেন, এটি রাস্তার জায়গা। এদিকে, ছাত্রলীগ নেতা হিরণ মাহমুদ নিপুর দখলকৃত জায়গাটি কলেজের দাবি করে এমসি কলেজের অধ্যক্ষ নিতাই চন্দ্র চন্দ জানান, এমসি কলেজের ছাত্রাবাসের পশ্চিমের ছড়া ও পার্শ্ববর্তী রাস্তার পাশের জায়গাও কলেজের। ওই জায়গায় রাজনৈতিক দলের সাইনবোর্ড লাগিয়ে অবৈধভাবে ঘর নির্মাণ করা হয়েছে। ২৯ অক্টোবর তিনি সরেজমিন গিয়ে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে ৭ নভেম্বর পর্যন্ত সময় বেঁধে দিয়ে এসেছেন। নির্ধারিত সময়ের মধ্যে স্থাপনা না সরালে কলেজের পক্ষ থেকে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে। প্রসঙ্গত, ২০১৩ সালের ১৫ সেপ্টেম্বর সিলেট নগরীর কোর্ট পয়েন্টে সিপিবি সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিমের জনসভায় হামলা ও ভাঙচুরের অভিযোগে জেলা ছাত্রলীগের কমিটি ভেঙে দেওয়া হয়। ওই কমিটির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ছিলেন হিরণ মাহমুদ নিপু। অভিযোগ রয়েছে, তার নেতৃত্বেই এই হামলার ঘটনা ঘটেছিল।

 


আপনার মন্তব্য