Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ১৩ এপ্রিল, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১২ এপ্রিল, ২০১৯ ২২:৫৫

যুবজাগরণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে যুবলীগ : চেয়ারম্যান

নিজস্ব প্রতিবেদক

যুবজাগরণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে যুবলীগ : চেয়ারম্যান

পাঁচ হাজার শিশুর মাঝে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’ বিতরণ করল ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগ। গতকাল বিকালে কাকরাইলে যুবলীগের গবেষণা সেল যুব জাগরণ কেন্দ্রে এ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন যুবলীগ চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ওমর ফারুক চৌধুরী। শিশুদের মাঝে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ছড়িয়ে দিতে ‘বঙ্গবন্ধুকে জানো, শিশু কর্নারে  বই পড়’ স্লোগান নিয়ে গতকাল থেকে যাত্রা শুরু হলো শিশু কর্নার। প্রতি শুক্রবার বিকাল ৩টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত শিশুরা লাইব্রেরিতে এসে বই পড়তে পারবে এবং এলেই বিনামূল্যে বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত আত্মজীবনী বইটি পাবে। এ ছাড়াও শিশুদের জন্য বিভিন্ন রকমের লজেন্স, বিস্কুট, আইসক্রিমের ব্যবস্থা রাখা হবে। গতকাল ৫ হাজার শিশুর মাঝে বই তুলে দিয়ে শিশু কর্নার আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু করে। সভাপতিত্ব করেন যুবলীগ ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি ইসমাইল চৌধুরী সম্রাট। ওমর ফারুক চৌধুরী বলেছেন, ‘সিক্রেট ডকুমেন্টস’ গ্রন্থগুলো পর্যালোচনা করে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নতুন করে আবিষ্কার করা হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদন পেলে ‘সিক্রেট ডকুমেন্টস’টি বাংলায় অনুবাদ করে নতুন প্রজন্মের হাতে তুলে দিতে চাই। যুবলীগ চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ওমর ফারুক চৌধুরী বলেন, যুবলীগ যুব সমাজের মেধা-মনন বিকাশে এবং যুবজাগরণের ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে। াজনীতিতে যে গবেষণা চিন্তা-চেতনা করা যায় যুবলীগই তার পথপ্রদর্শক। আমরা তারুণ্যের বিকাশের জন্য কাজ করছি। তরুণরা রাজনীতি করুক বা না করুক মাদকাসক্ত বা সন্ত্রাসবাদে না জড়িয়ে যাতে একজন সুনাগরিক হয়ে গড়ে ওঠে সে জন্য গবেষণা কাজের বাইরেও সাংগঠনিকভাবে নানামুখী কার্যক্রম পরিচালনা করছি। যুবজাগরণ গবেষণা কেন্দ্রের মাধ্যমে জাতির পিতার আদর্শ ছড়িয়ে দিতে আমরা কাজ করছি।

বিকাল ৪টায় বই বিতরণ কর্মসূচির কথা থাকলেও ২টা থেকে ঢাকার বিভিন্ন এলাকার অভিভাবকদের সঙ্গে শিক্ষার্থীরা এসে উপস্থিত হয়। কাকরাইলে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের নেতা-কর্মীরা তাদের স্বাগত জানান এবং শিশুদের মাঝে কেক, আইসক্রিম, চকলেট বিতরণ করেন। আর অভিভাবকদের মাঝে চা-কফি ও বিকালের নাস্তা বিতরণ করা হয়। বিকালে শিক্ষার্থীরা বই পেয়ে আনন্দে আত্মহারা হয়ে পড়ে।  

বিশেষ অতিথির বক্তৃতায় যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক হারুনুর রশিদ বলেন, আজকে শিশুদের হাতে বই তুলে দিয়ে আমরা প্রমাণ করতে চাই, যুবলীগ শুধু যুবকদের নিয়েই ভাবে না, আগামীর প্রজন্ম নিয়েও ভাবে।

সভাপতির বক্তব্যে ইসমাইল চৌধুরী সম্রাট বলেন, ঘরে ঘরে গড়ে উঠুক দেশপ্রেমিক নতুন প্রজন্ম। তাই শৈশব থেকেই দিতে হবে দেশপ্রেমের পাঠ। শিশুদের শোনাতে হবে বিজয়ের কথা, আমাদের গৌরব গাঁথা, ওরা যার গর্বিত অংশীদার, ওরা যার ধারক, বাহক ও উত্তরাধিকার। সে কারণেই প্রতি শুক্রবার কাকরাইলের যুবজাগরণ কেন্দ্রে শিশু কর্নার খোলা হয়েছে। তিনি বলেন, শিশুদের মাঝে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ছড়িয়ে দিতে আমরা নিজ নিজ পরিবার, আত্মীয়স্বজন ও প্রতিবেশী থেকে শুরু করে সর্বস্তরের শিশুদের নিয়ে কাজ করব। 

এ সময় কেন্দ্রীয় যুবলীগের কাজী আনিসুর রহমান, মিজানুল ইসলাম মিজু, মহানগর যুবলীগের মাইনুদ্দিন রানা, সোহরাব হোসেন স্বপন, সানোয়ার হোসেন মনা, হারুনুর রশিদ, আনোয়ার ইকবাল সান্টু, নাজমুল হোসেন টুটুল, এনামুল হক আরমান, মোরসালিন আহমেদ, খোরশেদ আলম মাসুদ, কাউন্সিলর মমিনুল হক সাঈদ, জাফর আহমেদ রানা, ফারুক হোসেন, মিজানুর রহমান বকুল, গাজী সরোয়ার হোসেন বাবু, মাকসুদুর রহমান, আরমান হক বাবু, ইমদাদুল হক ইমদাদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর