শিরোনাম
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ২৮ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৭ নভেম্বর, ২০১৯ ২২:৪২

শস্যদানার ঘোষণা দিয়ে চকলেট ও পানীয় আমদানি

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম

শস্যদানার ঘোষণা দিয়ে চকলেট ও পানীয় আমদানি

চীন থেকে দুই ধরনের শস্যাদানা আমদানির ঘোষণা দিয়ে বিভিন্ন ধরনের পানীয় ও চকলেট নিয়ে এসেছে ঢাকার গুলশানের একটি প্রতিষ্ঠান। কোটি টাকার ঘোষণা-বহির্ভূত পণ্য আমদানির মধ্য দিয়ে প্রতিষ্ঠানটি প্রায় ৮০ লাখ টাকা রাজস্ব ফাঁকি দিয়েছে। চট্টগ্রাম কাস্টমস সূত্রে জানা গেছে, ঢাকার গুলশানের উত্তর বাড্ডা এলাকার স্টার অ্যালায়েন্স নামে একটি প্রতিষ্ঠান ১৩ মেট্রিক টন সুইটকর্ন (মিষ্টি ভুট্টার দানা) এবং ৯ মেট্রিক টন কিডনি বিন (মটরশুটি দানা) আমদানির ঘোষণা দিয়ে ব্যাংকে ঋণপত্র (এলসি) খুলেছিল।

চীনের আনাস পি ট্রেডিং পিটিই লিমিটেড  নামে একটি প্রতিষ্ঠান থেকে এই পণ্য আমদানির ঘোষণা দেওয়া হয়েছিল। চট্টগ্রাম কাস্টমসের উপ-কমিশনার নুরউদ্দিন মিলন বলেন, ‘কনটেইনারটির ওপর গোয়েন্দা নজরদারি ছিল। সে জন্য সিঅ্যান্ডএফ প্রতিষ্ঠান গত ১০ মাস ধরে সেটি খালাস না করে বন্দরের ইয়ার্ডে রেখে দেয়। কিন্তু আমরা নিজস্ব ব্যবস্থায় দীর্ঘদিন ধরে পড়ে থাকা কনটেইনারটির কায়িক পরীক্ষার উদ্যোগ নেই। আমদানিকারক প্রতিষ্ঠানের ঘোষণা অনুযায়ী কনটেইনারে কোনো শস্যাদানা পাওয়া যায়নি। আর ১৩ টন আমদানির ঘোষণা দিলেও সুইট কর্ন পাওয়া গেছে মাত্র ৫ কেজি। কনটেইনারে বিভিন্ন ধরনের সফট ও হার্ড ড্রিংকস, এনার্জি ড্রিংকস, চকোলেট ও ওয়েফার মিলিয়ে ২২ টন পণ্য পাওয়া গেছে। এসব পণ্যের মধ্যে শুধু ২টি আইটেম ছাড়া সবই মেয়াদোত্তীর্ণ। আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান ৭ লাখ টাকার পণ্য আমদানির ঘোষণা দিয়ে প্রায় এক কোটি টাকার পণ্য আমদানি করে। এর মাধ্যমে তারা প্রায় ৮০ লাখ টাকা রাজস্ব ফাঁকি দিয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। 

 


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর