শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ১ এপ্রিল, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ১ এপ্রিল, ২০২০ ০০:১০

অসহায়ের পাশে কামরান, বড় হচ্ছে আরিফের ফান্ড

শাহ্ দিদার আলম নবেল, সিলেট

অসহায়ের পাশে কামরান, বড় হচ্ছে আরিফের ফান্ড

করোনাভাইরাস আতঙ্কে ঘরবন্দী অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন সিলেট সিটি করপোরেশনের সাবেক ও বর্তমান মেয়র। হোম কোয়ারেন্টাইনের মেয়াদপূর্তির পর অসহায়দের খাদ্য সহায়তায় নেমেছেন সাবেক মেয়র বদর উদ্দিন আহমদ কামরান। আর ‘খাদ্য ফান্ড’ গঠন করে ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে ছুটছেন বর্তমান মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী। এরই মধ্যে তার ফান্ডে সরকারি ও বেসরকারি প্রচুর অনুদান এসে জমা হয়েছে। গতকাল সন্ধ্যা থেকে শুরু হয়েছে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ। গত ১৫ মার্চ যুক্তরাজ্য থেকে দেশে ফেরেন সিলেট সিটি করপোরেশনের সাবেক মেয়র বদর উদ্দিন আহমদ কামরান। ২৮ মার্চ শেষ হয় তার হোমকোয়ারেন্টাইনের মেয়াদ। পরদিন থেকে তিনি মাঠে নামেন অসহায় মানুষদের সহায়তায়। করোনাভাইরাস সংক্রমণ রোধে জনসাধারণকে অতি প্রয়োজনীয় কাজ ছাড়া ঘর থেকে বের না হওয়ার নির্দেশ দেওয়ায় খেটে খাওয়া মানুষ পড়েন বিপাকে। শ্রমজীবী অসহায়রা যখন তাকিয়ে আছেন বিত্তবানদের সহায়তার দিকে তখন কামরান পাশে দাঁড়ান তাদের। ২৯ মার্চ থেকে তিনি নগরীর কালিঘাট, ছড়ারপাড়, কামালগড়সহ বিভিন্ন এলাকার গরিবদের মধ্যে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করে যাচ্ছেন। আপদকালীন সময়ে সাবেক মেয়রকে পাশে পেয়ে কৃতজ্ঞ সাহায্যগ্রহণকারী অসহায় গরিব লোকজন।

সাবেক মেয়র বদর উদ্দিন আহমদ কামরান বলেন, জনপ্রতিনিধি না হলেও সিলেট নগরবাসীর সঙ্গে তার সম্পর্ক আত্মীক। এই সম্পর্ক কখনো ছিন্ন হওয়ার নয়। নগরীর অসহায় মানুষের এই দুঃসময়ে তাই তাদের পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করছেন। সমাজের বিত্তশালীদেরও সাধ্য মতো গরিব-দুস্থদের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান জানান তিনি। এদিকে নগরীর গরিব মানুষের খাদ্য নিরাপত্তার জন্য জেলা প্রশাসকের কাছে চালের বরাদ্দ চেয়েছিলেন সিটি করপোরেশনের বর্তমান মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী। নিজে উদ্যোগী না হয়ে জেলা প্রশাসকের কাছে সাহায্য চাওয়া নিয়ে ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েন মেয়র। এরপর তিনি সিটি করপোরেশনের পক্ষ থেকে গঠন করেন ‘খাদ্য ফান্ড’। নিজের এক মাসের সম্মানী ওই ফান্ডে দেওয়ার ঘোষণা দিয়ে নগরীর বিত্তবান ও প্রবাসীদের সহযোগিতা চান তিনি। তার এই আহ্বানে সাড়া দিয়ে অনেকেই খাদ্যসামগ্রী ও নগদ টাকা পাঠাচ্ছেন ‘খাদ্য ফান্ডে’। গতকাল পর্যন্ত ফান্ডে প্রায় কোটি টাকার সহায়তা এসেছে বলে জানিয়েছেন মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী। বেসরকারি সহায়তা ছাড়াও ত্রাণ মন্ত্রণালয় থেকে সিটি করপোরেশনকে বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে ৫০ মেট্রিক টন চাল।

সিটি করপোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী জানিয়েছেন, পর্যায়ক্রমে নগরীর প্রায় ৬৬ হাজার পরিবারের কাছে খাদ্য সহায়তা পৌঁছে দেওয়া হবে। খাদ্য ফান্ড গঠনের পর নগরীর বিত্তশালীদের কাছ থেকে আশাতীত সাড়া পাওয়া যাচ্ছে। কেউ দিচ্ছেন নগদ টাকা, আবার কেউ নিজ উদ্যোগে নগরভবনে পৌঁছে দিচ্ছেন খাদ্যসামগ্রী। সবার সহযোগিতায় নগরীর অসহায়দের খাদ্য সংকট দূর করা সম্ভব হবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর