শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ২৩ ডিসেম্বর, ২০২০ ০০:০০ টা
আপলোড : ২৩ ডিসেম্বর, ২০২০ ০১:০৩

মাধ্যমিকে পরের ক্লাসে আগের বইও পড়ানোর উদ্যোগ

করোনাকালে শিক্ষার্থীদের শিখন ঘাটতি পূরণের লক্ষ্যে এনসিটিবির নির্দেশনা

নিজস্ব প্রতিবেদক

করোনার সময়ে শিক্ষার্থীদের শিখন ঘাটতি চিহ্নিত করে সেগুলো পরের ক্লাসে পড়ানোর উদ্যোগ নিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। এ জন্য ২০২০ শিক্ষাবর্ষের বর্তমান ক্লাসের বইগুলো শিক্ষার্থীদের সংরক্ষণ করতে বলেছে জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ড (এনসিটিবি)। সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকে অবহিত করতে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা (মাউশি) অধিদফতর ও মাদরাসা শিক্ষা অধিদফতরে এ-সংক্রান্ত নির্দেশনা দিয়েছে এনসিটিবি। নির্দেশনায় বলা হয়, ২০২১ শিক্ষাবর্ষের ষষ্ঠ থেকে নবম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের পূর্ববর্তী শ্রেণির শিখন ঘাটতি পূরণের লক্ষ্যে কিছু কার্যক্রম পরিচালনা করা প্রয়োজন। এ জন্য শিক্ষার্থীদের বর্তমান ক্লাসের (২০২০ শিক্ষাবর্ষের) বই প্রয়োজন হতে পারে।

এনসিটিবির কর্মকর্তারা বলছেন, নতুন শ্রেণির সঙ্গে আগের ক্লাসের শিখনের সমন্বয় করার জন্য বর্তমান শ্রেণির বইগুলো প্রয়োজন হবে। শিক্ষকরা নতুন শিক্ষাবর্ষের পাঠদান করাতে গিয়ে শিক্ষার্থীর আগের ক্লাসের কোনো পাঠের দুর্বলতা থাকলে তা চিহ্নিত করে পাঠদান করবেন। এনসিটিবির চেয়ারম্যান অধ্যাপক নারায়ণ চন্দ্র সাহা বলেন, করোনার কারণে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় শিক্ষার্থীদের সরাসরি পাঠদান বন্ধ ছিল। টেলিভিশন, বেতার, সামাজিক মাধ্যমসহ বিভিন্ন মাধ্যমে পাঠদান করানো হলেও শিক্ষার্থীদের মধ্যে একাডেমিক পাঠের ঘাটতি থাকতে পারে। তাই কোনো শিক্ষক ছাত্রছাত্রীর পাঠের ঘাটতি মনে করলে আগের ক্লাসের বিষয় পড়াবেন। এ জন্য শিক্ষার্থীদের চলতি শিক্ষাবর্ষের বই সংরক্ষণ করতে বলা হয়েছে।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর