শিরোনাম
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ০০:০৫

হাজার কোটি টাকা ব্যয়ের পাঁচ ক্রয় প্রস্তাব অনুমোদন

হবে এলএনজি আমদানি আবাসিক ভবন নির্মাণও

নিজস্ব প্রতিবেদক

এলএনজি আমদানি ও আবাসিক ভবন নির্মাণসহ পাঁচটি দর প্রস্তাবের অনুমোদন দিয়েছে সরকারি ক্রয়সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি। এতে ব্যয় হবে ১ হাজার ৫১ কোটি ৫০ লাখ ৪০ হাজার টাকা। গতকাল এক ভার্চুয়াল সভায় ক্রয় প্রস্তাবগুলো অনুমোদন দেওয়া হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। সভা শেষে অনুমোদিত ক্রয় প্রস্তাবগুলোর বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন অর্থমন্ত্রী ও মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব ড. আবু সালেহ মোস্তফা কামাল। সভা শেষে অর্থমন্ত্রী বলেন, অর্থনৈতিক বিষয়সংক্রান্ত কমিটির অনুমোদনের জন্য তিনটি ও ক্রয়সংক্রান্ত কমিটির অনুমোদনের জন্য পাঁচটি প্রস্তাব উত্থাপন করা হয়। ক্রয়সংক্রান্ত কমিটির প্রস্তাবগুলোর মধ্যে গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের তিনটি এবং জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগের দুটি প্রস্তাব ছিল। ক্রয়সংক্রান্ত কমিটির অনুমোদিত পাঁচটি প্রস্তাবে মোট অর্থের পরিমাণ ১ হাজার ৫১ কোটি ৫০ লাখ ৪০ হাজার ৫১২ টাকা। মোট অর্থায়নের মধ্যে সম্পূর্ণ অর্থই জিওবি থেকে ব্যয় হবে। এরপর অতিরিক্ত সচিব আবু সালেহ মোস্তফা কামাল বলেন, সভায় ‘র‌্যাব ফোর্সেস সদর দফতর নির্মাণ’ প্রকল্পের ডব্লিউডি-১ লটের আওতায় র‌্যাব সদর দফতরে ১২ তলা ব্যাচেলর অফিসার্স কোয়ার্টার্স, ১০ তলা ফোর্স ব্যারাক এবং আট তলা ডিএডি মেস কাম এমটি শেড নির্মাণকাজের জন্য উন্মুক্ত পদ্ধতিতে দরপত্র আহ্বান করলে দুটি দরপত্র জমা পড়ে। যার মধ্যে একটি রেসপনসিভ হয়। দরপত্রের সব প্রক্রিয়া শেষে টিইসি কর্তৃক সুপারিশকৃত একমাত্র রেসপনসিভ দরদাতা প্রতিষ্ঠান মজিদ সন্স কনস্ট্রাকশন লিমিটেডের কাছ থেকে ১৯২ কোটি ৪ লাখ ৩২ হাজার ৩২৬ টাকায় বর্ণিত নির্মাণকাজ কেনার অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। প্যাকেজের আওতায় ১২ তলা ব্যাচেলর অফিসার্স কোয়ার্টার্স, ১০ তলা ফোর্স ব্যারাক ও আট তলা ডিএডি মেস কাম এমটি শেড, অভ্যন্তরীণ স্যানিটারি ও বৈদ্যুতিকীকরণ, গ্যাসসংযোগ, লিফট, পাম্প, মোটর, পিএবিএক্স ইন্টারকম, অগ্নিনির্বাপণ স্থাপন ইত্যাদি কাজ করা হবে।

সভায় ‘বাংলাদেশের বিভিন্ন স্থানে বাংলাদেশ পুলিশের জন্য নয়টি আবাসিক টাওয়ার ভবন নির্মাণ’ প্রকল্পের একটি লটের আওতায় সিলেট জেলা পুলিশ লাইনস এলাকায় একটি ১৫ তলা আবাসিক ভবন নির্মাণকাজের জন্য উন্মুক্ত পদ্ধতিতে দরপত্র আহ্বান করা হয়। এতে দুটি দরপত্র জমা পড়ে যা রেসপনসিভ হয়। দরপত্রের সব প্রক্রিয়া শেষে টিইসি কর্তৃক সুপারিশকৃত রেসপনসিভ সর্বনিম্ন দরদাতা প্রতিষ্ঠান যৌথভাবে মেসার্স বাংলা বিল্ডার্স লিমিটেড (বিবিএল) ও মেসার্স এল জেআইয়ের কাছ থেকে ৫৯ কোটি ৬৩ লাখ ১৩ হাজার ৩৮৭ টাকায় সিলেট জেলা পুলিশ লাইনস এলাকায় একটি ১৫ তলা আবাসিক ভবন নির্মাণকাজ ক্রয় প্রস্তাব অনুমোদন দিয়েছে কমিটি। এ প্যাকেজের আওতায় ১৫ তলা আবাসিক ভবন, প্রতি তলায় ১ হাজার বর্গফুটবিশিষ্ট আটটি ইউনিট, অভ্যন্তরীণ স্যানিটারি ও বৈদ্যুতিকীকরণ, ভূগর্ভস্থ জলাধার, গভীর নলকূপ, পাম্প মোটর, রাস্তা, বাউন্ডারি ওয়াল, অভ্যন্তরীণ আরসিসি রোড ইত্যাদি নির্মাণ করা হবে।

সভায় ঢাকাস্থ আজিমপুর সরকারি কলোনির অভ্যন্তরে (জোন-এ) সরকারি কর্মকর্তাদের জন্য ২০ তলাবিশিষ্ট দুটি আবাসিক ভবন নির্মাণসহ আনুসঙ্গিকপূর্র্ণ কাজ কেনার জন্য উন্মুক্ত পদ্ধতিতে দরপত্র আহ্বান করলে একটি মাত্র দরপত্র জমা পড়ে যা রেসপনসিভ হয়। দরপত্রের সব প্রক্রিয়া শেষে টিইসি কর্তৃক সুপারিশকৃত রেসপনসিভ একমাত্র দরদাতা প্রতিষ্ঠান পদ্মা অ্যাসোসিয়েটস অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ার্স লিমিটেডের কাছ থেকে ১৭৬ কোটি ১৮ লাখ ৭৭ হাজার ৩৩২ টাকায় ঢাকাস্থ আজিমপুর সরকারি কলোনির অভ্যন্তরে সরকারি কর্মকর্তাদের জন্য ২০ তলাবিশিষ্ট দুটি আবাসিক ভবন নির্মাণকাজ কেনার প্রস্তাবে অনুমোদন দিয়েছে কমিটি।

অতিরিক্ত সচিব বলেন, ‘বিদ্যুৎ ও জ্বালানির দ্রুত সরবরাহ বৃদ্ধি (বিশেষ বিধান) আইন-২০১০’ (২০১৮ সালের সর্বশেষ সংশোধনীসহ)-এর আওতায় স্পট মার্কেট থেকে ষষ্ঠ এলএনজি কার্গো আমদানির প্রত্যাশাগত অনুমোদন দিয়েছে কমিটি। ২০১৯ সালের ৮ আগস্ট সিসিইএ সভার অনুমোদনক্রমে স্পট মার্কেট থেকে এলএনজি কেনার জন্য সংক্ষিপ্ত তালিকাভুক্ত ১৪টি প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে মাস্টার সেল অ্যান্ড পারচেজ অ্যাগ্রিমেন্ট (এমএসপিএ) চুক্তি চূড়ান্ত করা হয়। পেট্রোবাংলা ১৪টি প্রতিষ্ঠানের কাছে ষষ্ঠ এলএনজি কার্গো সরবরাহের দর প্রস্তাব আহ্বান করলে মাত্র একটি প্রতিষ্ঠান তা দাখিল করে। দরপত্রের সব প্রক্রিয়া শেষে পিপিসির সুপারিশের পরিপ্রেক্ষিতে দরদাতা প্রতিষ্ঠান সিঙ্গাপুরভিত্তিক মেসার্স ভিটল এশিয়া প্রাইভেট লিমিটেডের কাছ থেকে প্রতি এমএমবিটিইউ এলএনজি ৯ দশমিক ৩১২৩ মার্কিন ডলার হিসেবে ৩৩ লাখ ৬০ হাজার এমএমবিটিইউ এলএনজি ৪৫ কোটি ১৮ লাখ ৬৪ হাজার ৮৩০ মার্কিন ডলার সমপরিমাণ বাংলাদেশি মুদ্রায় ৩১০ কোটি ৯৮ লাখ ৯৩ হাজার ২৪৩ টাকায় আমদানির প্রত্যাশাগত অনুমোদন দিয়েছে কমিটি। এর আগে অর্থমন্ত্রীর সভাপতিত্বে অর্থনৈতিক বিষয়সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর