শিরোনাম
প্রকাশ : ৩১ মে, ২০২০ ০৯:৩২
আপডেট : ৩১ মে, ২০২০ ১১:৩১

করোনামুক্ত রোগীদের অস্ত্রোপচারের পর মৃত্যু ঝুঁকি অনেক বেশি: গবেষণা

অনলাইন ডেস্ক

করোনামুক্ত রোগীদের অস্ত্রোপচারের পর মৃত্যু ঝুঁকি অনেক বেশি: গবেষণা

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের তাণ্ডবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে গোটা বিশ্ব। এই ভাইরাসের বিষাক্ত ছোবলে দিশেহারা হয়ে পড়েছে বিশ্বের আধুনিক চিকিৎসাবিজ্ঞান।

এখন পর্যন্ত (রবিবার সকাল সোয়া ৯টা পর্যন্ত) বিশ্বব্যাপী আক্রান্ত হয়েছে ৬১ লাখ ৫৬ হাজার ৯১৪ জন। এর মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ৩ লাখ ৯০ হাজার ৯১৮ জনের।

এদিকে, এই ভাইরাসের থাবা থেকে সুস্থ হয়ে ফিরেছেন ২৭ লাখ ৩৭ হাজার ৩৯ জন।

কিন্তু এত সংখ্যক মানুষ প্রাণঘাতী এই ভাইরাস থেকে সুস্থ হলেও তাদের নিয়ে আশঙ্কা রয়েই যাচ্ছে। কেননা, একবার করোনায় আক্রান্ত হলে পরবর্তীকালে সেই রোগীর কোনও জটিল অপারেশনের প্রয়োজন হলে তার মৃত্যুর ঝুঁকি অনেকটাই বেড়ে যায়।

চিকিৎসকদের গবেষণায় এমন তথ্য উঠে এসেছে।

শুধু তা-ই নয়, এমনকি ছোটখাটো অপারেশনের পরও এই ধরনের রোগীর মৃত্যুর ঝুঁকি থেকে যায় বলে জানাচ্ছেন গবেষকরা। লন্ডনের চিকিৎসকদের এমন গবেষণা প্রতিবেদন দেখে চোখ কপালে উঠছে অনেকেরই।

ল্যাঞ্চেট জার্নালে প্রকাশিত ওই গবেষণায় ২৪টি দেশের ২৩৫টি হাসপাতালের ১ হাজার ১২৮ জন রোগীকে পর্যবেক্ষণ করা হয়েছিল। তারপরই তারা এই সিদ্ধান্তে উপনীত হন। 

গবেষকরা বলছেন, অস্ত্রোপচারের পর নানারকম প্রতিক্রিয়া তৈরি হয় রোগীদের মধ্যে। এটা খুব স্বাভাবিক। কিন্তু করোনাকে জয় করে ফিরে আসা রোগীদের মধ্যে এই প্রতিক্রিয়াগুলো জটিল আকার নেয়। ফলে প্রাণের ঝুঁকি অনেকটাই বেড়ে যায়। তাই করোনামুক্ত রোগীদের অপারেশনের পর খুব সাবধানে রাখতে হবে। 

গবেষণাপত্র অনুযায়ী, এই ধরনের রোগীদের থার্টি ডেজ মর্টালিটি রেট অর্থাৎ অপারেশনের পর ৩০ দিনের মধ্যে মৃত্যুর হার ২৪ শতাংশ, যা সাধারণ রোগীর চেয়ে অনেকটাই বেশি। এমনকি খুব ছোট অপারেশনের ক্ষেত্রেও এই ঝুঁকি অনেকটাই বেশি।

এ প্রসঙ্গে গবেষকরা জানাচ্ছেন, জরুরি অস্ত্রোপচারের ক্ষেত্রে করোনামুক্ত রোগীদের মৃত্যুর হার ২৫.৬ শতাংশ। আবার জরুরি নয় এমন অপারেশের ক্ষেত্রে মৃত্যু ভয় ১৬.৩ শতাংশ। আবার নারীদের তুলনায় পুরুষদের ঝুঁকি বেশি বলে জানাচ্ছে গবেষণাপত্র। 

বয়স অনুযায়ীও এই ঝুঁকির তারতম্য রয়েছে। ৭০ বছরের ঊর্ধ্বে যাদের বয়স তাদের ক্ষেত্রে মৃত্যুভয় অনেকটাই বেড়ে যায়।

এ প্রসঙ্গে গবেষণাপত্রের লেখক বার্মিংহাম বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক অনিল ভঙ্গু জানান, “মহামারী ছড়ানোর আগে অস্ত্রোপচারের সময় যে সমস্ত রোগীদের ঝুঁকিপূর্ণ বলে মনে হত, যাদের মৃত্যুর আশঙ্কা থাকত তাদের তুলনায় করোনা জয়ী রোগীদের মৃত্যুহার অনেকটাই বেশি, যা পরবর্তী সময় আরও সমস্যা তৈরি করবে।”

বিডি প্রতিদিন/কালাম


আপনার মন্তব্য