শিরোনাম
প্রকাশ : ৩ ডিসেম্বর, ২০২০ ১৫:৩৬
আপডেট : ৩ ডিসেম্বর, ২০২০ ১৮:১৭
প্রিন্ট করুন printer

দেশে ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্ত ও মৃত্যুর সর্বশেষ তথ্য

অনলাইন ডেস্ক

দেশে ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্ত ও মৃত্যুর সর্বশেষ তথ্য

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরও ৩৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে দেশে করোনায় মোট মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৬ হাজার ৭৪৮ জনে।

এদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত বলে শনাক্ত হয়েছেন ২ হাজার ৩১৬ জন। সবমিলিয়ে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে চার লাখ ৭১ হাজার ৭৩৯ জনে।

আজ বৃহস্পতিবার বিকেলে স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহা-পরিচালক অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ১৬ হাজার ৮০৭টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এর মধ্যে ২ হাজার ৩১৬ জন। এগুলো সরকারি ও বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ১১৮টি ল্যাবে নমুনা সংগ্রহ ও পরীক্ষা হয়েছে।

এদিকে ২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়া ৩৫ জনের মধ্যে ২৩ জন পুরুষ ও নারী ১২ জন রয়েছেন। এর মধ্যে ঢাকা বিভাগে ২২ জন, চট্টগ্রাম ও রংপুর বিভাগে তিনজন, ময়মনসিংহ বিভাগে পাঁচজন। এছাড়া রাজশাহী ও বরিশাল বিভাগে একজন করে রয়েছেন। তারা সবাই হাসপাতালে মারা গেছেন।

উল্লেখ্য, দেশে গত ৮ মার্চ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার প্রথম রোগী শনাক্ত হয়। এর ঠিক ১০ দিন পর ১৮ মার্চ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রথম একজনের মৃত্যু হয়।

বিডি প্রতিদিন/আবু জাফর


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৬ জানুয়ারি, ২০২১ ১৩:১৬
আপডেট : ২৬ জানুয়ারি, ২০২১ ১৩:১৭
প্রিন্ট করুন printer

ফাইজারকে সতর্ক করে ইতালির চিঠি, উত্তেজনা

অনলাইন ডেস্ক

ফাইজারকে সতর্ক করে ইতালির চিঠি, উত্তেজনা
প্রতীকী ছবি

মার্কিন টিকা উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান ফাইজারকে সতর্ক করে আনুষ্ঠানিকভাবে চিঠি পাঠিয়েছে ইতালি। 

ওই চিঠিতে ফাইজারকে টিকা সরবরাহের বিষয়ে চুক্তিভিত্তিক প্রতিশ্রুতি রক্ষার আহ্বান জানিয়েছে ইউরোপের দেশটি।

সরকারের বিশেষ কমিশনার এই তথ্য জানিয়েছেন। খবর রয়টার্সের।

এরই মধ্যে চিঠিটি ইউরোপীয় ইউনিয়ন এবং মার্কিন ড্রাগ প্রস্তুতকারকের মধ্যে উত্তেজনা বাড়িয়েছে। গত সপ্তাহে টিকা সরবরাহে সাময়িক মন্দার ঘোষণা দিয়েছিল ফাইজার।


ইতালির বিশেষ কমিশনার অফিসের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, স্টেট অ্যাটর্নি জেনারেলের অফিস ফাইজারকে টিকা সরবরাহে চুক্তিগত বাধ্যবাধকতা মেনে চলার জন্য আনুষ্ঠানিক নোটিশ পাঠিয়েছে।

তবে এ বিষয়ে তাৎক্ষণিক কোনো মন্তব্য করেনি ফাইজার। সম্প্রতি সংস্থাটি জানিয়েছে, উৎপাদন সংক্রান্ত পরিবর্তনের কারণে টিকা সরবরাহে প্রভাব ফেলেছে।

সূত্রের বরাত দিয়ে রয়টার্স জানিয়েছে, যদি ফাইজার চুক্তিগত বাধ্যবাধকতা পূরণ না করে তাহলে চুক্তি লঙ্ঘনের দায়ে সংস্থাটিকে অভিযুক্ত করতে পারে ইউরোপীয় ইউনিয়ন। এ বিষয়ে সঠিক জবাব দেওয়ার জন্য সংস্থাটিকে কমপক্ষে এক সপ্তাহ সময় দেওয়া হবে।

শনিবার ইতালির প্রধানমন্ত্রী জিউসেপ্পে কন্তে বলেন, টিকা সরবরাহ চুক্তির গুরুতর লঙ্ঘন হলে ইতালি তাদের বিরুদ্ধে সমস্ত আইনি পদক্ষেপ গ্রহণ করবে।

বিডি প্রতিদিন/কালাম


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৬ জানুয়ারি, ২০২১ ১৩:১০
প্রিন্ট করুন printer

ভ্যাকসিন নিয়ে ধনী-দরিদ্রের বিভাজন খারাপের দিকে যাচ্ছে: বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

অনলাইন ডেস্ক

ভ্যাকসিন নিয়ে ধনী-দরিদ্রের বিভাজন খারাপের দিকে যাচ্ছে: বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা
তেদ্রোস আধানম গেব্রিয়েসুস

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন নিয়ে ধনী ও দরিদ্র দেশগুলোর মধ্যে বিভাজন বাড়ছে। এই বিভাজন দিন দিন খারাপের দিকে যাচ্ছে বলে সতর্ক করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।

সংস্থাটির প্রধান তেদ্রোস আধানম গেব্রিয়েসুস সোমবার জোর দিয়ে বলেছেন, টিকার ডোজ সমভাবে বিতরণে ব্যর্থ হলে বিশ্বকে কোটি কোটি ডলার অর্থনৈতিক খরচ মোকাবিলা করতে হবে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা জানিয়েছে, করোনা মহামারী মোকাবিলায় টিকা তৈরি, উৎপাদন ও সরবরাহ এবং করোনার চিকিৎসা ও পরীক্ষার জন্য সংস্থাটির ২ হাজার ৬শ’ কোটি ডলার প্রয়োজন।

সংস্থাটির প্রধান বলছেন, ধনী দেশগুলো ভ্যাকসিন দেওয়ার কাজ শুরু করেছে। কিন্তু বিশ্বের স্বল্পোন্নত দেশগুলো দেখছে এবং অপেক্ষা করছে।

এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি আরও বলেন, দিন চলে যাচ্ছে। করোনার টিকা পাওয়া এবং না পাওয়ার মধ্যে ব্যবধান ব্যাপক হচ্ছে।

তেদ্রোস আধানম বলেন, টিকা জাতীয়তাবাদের মাধ্যমে স্বল্প সময়ের রাজনৈতিক লক্ষ্য অর্জিত হতে পারে। কিন্তু প্রত্যেক দেশের স্বল্প ও দীর্ঘমেয়াদি অর্থনৈতিক স্বার্থের জন্য টিকার সমবণ্টনকে সমর্থন করতে হবে।

ইন্টারন্যাশনাল চেম্বার অব কমার্স এর রিসার্চ ফাউন্ডেশনের এক গবেষণা উদ্ধৃত করে তিনি বলেন, টিকা জাতীয়তাবাদের কারণে বিশ্ব অর্থনীতির ৯ দশমিক ২ ট্রিলিয়ন ক্ষতি হবে।

ডব্লিউএইচও প্রধান বলেন, টিকা আমাদের আশা দিচ্ছে। এ কারণে আমরা এখন যে জীবন হারাচ্ছি তা আরও মর্মান্তিক হয়ে যাচ্ছে। আমাদের অবশ্যই আশা রাখতে হবে; পদক্ষেপও নিতে হবে।

বিডি প্রতিদিন/কালাম


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৬ জানুয়ারি, ২০২১ ১১:৩৩
প্রিন্ট করুন printer

চট্টগ্রামে নতুন করে করোনায় আক্রান্ত ৬৮

অনলাইন ডেস্ক

চট্টগ্রামে নতুন করে করোনায় আক্রান্ত ৬৮

চট্টগ্রামে গত ২৪ ঘণ্টায় ১ হাজার ৬১৭টি নমুনা পরীক্ষায় করোনা শনাক্ত হয়েছে ৬৮ জনের। এ নিয়ে চট্টগ্রামে মোট করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৩২ হাজার ৭৩৮ জন। এ সময়ে নতুন করে করোনায় মৃত্যুবরণ করেনি কেউ।

মঙ্গলবার সকালে সিভিল সার্জন কার্যালয় থেকে প্রকাশিত প্রতিবেদনের তথ্য অনুযায়ী, এইদিন কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ ল্যাব ও চট্টগ্রামে ৮টি ল্যাবে নমুনা পরীক্ষা হয়।  

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ল্যাব ৮৪টি নমুনা পরীক্ষা করে ১৬ জনের করোনা শনাক্ত  হয়েছে।

বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ট্রপিক্যাল অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজেসে (বিআইটিআইডি) ৮৫৪টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এতে শনাক্ত হয় ১০ জন।

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) ল্যাবে ৪৬৭টি নমুনা পরীক্ষা করে ১০ জনের শরীরে করোনাভাইরাস পাওয়া গেছে।

চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি অ্যান্ড অ্যানিমেল সায়েন্সেস বিশ্ববিদ্যালয় (সিভাসু) ল্যাবে ২৮টি নমুনা পরীক্ষা করে ৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।  

তাছাড়া ইম্পেরিয়াল হাসপাতাল ল্যাবে ৭২টি নমুনা পরীক্ষা করে ১০ জন, শেভরণ ক্লিনিকেল ল্যাবরেটরিতে ৭১টি নমুনা পরীক্ষা করে ৭ জন এবং চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতাল ল্যাবে ১৬টি নমুনা পরীক্ষা করে ৪ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।  
 
জেনারেল হাসপাতালের রিজিওনাল টিবি রেফারেল ল্যাবরেটরিতে (আরটিআরএল) ৮টি নমুনা পরীক্ষা করে ৬ জনের করোনা পজেটিভ শনাক্ত হয়েছে।

আবার কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ ল্যাবে চট্টগ্রামের ১৭টি নমুনা পরীক্ষা করে করোনার অস্তিত্ব মেলেনি।

চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি জানান, গত ২৪ ঘণ্টার নমুনা পরীক্ষায় ৬৮ জন নতুন আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছেন। এইদিন নমুনা পরীক্ষা করা হয় ১ হাজার ৬১৭টি। এর মধ্যে নগরে ৫৮ জন এবং উপজেলায় ১০ জন। 

বিডি-প্রতিদিন/বাজিত হোসেন


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৬ জানুয়ারি, ২০২১ ০৯:০৮
প্রিন্ট করুন printer

করোনায় সংক্রমিতের সংখ্যা ১০ কোটি ছাড়াল

অনলাইন ডেস্ক

করোনায় সংক্রমিতের সংখ্যা ১০ কোটি ছাড়াল
ফাইল ছবি

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও প্রাণহানির সংখ্যা বেড়েই চলছে। প্রতিদিন সারাবিশ্বে অদৃশ্য এই ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হচ্ছেন লাখো মানুষ। মৃতের সংখ্যা বাড়ছে হাজারে হাজারে। মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত বিশ্বে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ১০ কোটি ২ লাখ। মৃতের সংখ্যা ২১ লাখ ৪৯ হাজার ছাড়িয়েছে।

ওয়ার্ল্ডওমিটারের তথ্যানুযায়ী, মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ১০ কোটি ২ লাখ ৮০ হাজার ২৫২ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ২১ লাখ ৪৯ হাজার ৩৮৭ জন। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন সাত কোটি ২২ লাখ ৮৯ হাজার ১৬৯ জন।

করোনায় এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ ও মৃত্যু হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে। তালিকায় শীর্ষে থাকা দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন দুই কোটি ৫৮ লাখ ৫১ হাজার ৪০ জন। মৃত্যু হয়েছে চার লাখ ৩১ হাজার ২৯৭ জনের।

আক্রান্তে দ্বিতীয় ও মৃত্যুতে তৃতীয় অবস্থানে থাকা ভারতে এখন পর্যন্ত সংক্রমিত হয়েছেন এক কোটি ছয় লাখ ৭৭ হাজার ৭১০ জন এবং মারা গেছেন এক লাখ ৫৩ হাজার ৬২৪ জন।

আক্রান্তে স্থানে অবস্থানে থাকা লাতিন আমেরিকার দেশ ব্রাজিলে এখন পর্যন্ত করোনায় ৮৮ লাখ ৭২ হাজার ৯৬৪ জন সংক্রমিত হয়েছেন। মৃত্যু হয়েছে দুই লাখ ১৭ হাজার ৭১২ জনের। 

বিডি-প্রতিদিন/সালাহ উদ্দীন


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর

প্রকাশ : ২৬ জানুয়ারি, ২০২১ ০৯:০৭
আপডেট : ২৬ জানুয়ারি, ২০২১ ১১:১১
প্রিন্ট করুন printer

কোভিড-১৯ এর নতুন ধরনের বিরুদ্ধে কার্যকরী মডার্নার টিকা

অনলাইন ডেস্ক

কোভিড-১৯ এর নতুন ধরনের বিরুদ্ধে কার্যকরী মডার্নার টিকা

করোনাভাইরাসের যে নতুন ধরনটি পাওয়া গেছে যুক্তরাজ্য ও দক্ষিণ আফ্রিকায়, তার বিরুদ্ধে মডার্নার কোভিড-১৯ টিকাটি কার্যকরী বলে দাবি করেছে মার্কিন ওষুধ নির্মাতা কোম্পানির বিজ্ঞানীরা।

গবেষণাগারের প্রাথমিক পরীক্ষায় দেখা গেছে, এই টিকা দেয়ার পর শরীরের ভেতরে যে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতার তৈরি হয়, সেটি নতুন ধরনটি শনাক্ত ও ঠেকাতে সক্ষম হয়েছে।

তবে টিকা নেয়া মানুষদের ক্ষেত্রে এটি কতটা সত্যি, তা পুরোপুরি নিশ্চিত হতে আরও গবেষণার দরকার হবে।

বেশ কয়েকটি দেশে দ্রুত হারে ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাসের নতুন ধরনটি।

ধারণা করা হয় যে, করোনাভাইরাসের এই নতুন ধরনটি আগেরটির তুলনায় দ্রুত ছড়িয়ে পড়তে পারে। তবে সেটি আগের চেয়ে বেশি বিপজ্জনক নয় বলেই মনে করা হচ্ছে।

বিশেষজ্ঞরা মনে করেন, গত সেপ্টেম্বর মাসে যুক্তরাজ্যে শনাক্ত হওয়া ভাইরাসের ধরনটি অন্তত ৭০ শতাংশ বেশি হারে বিস্তার ঘটাতে পারে।

বর্তমানে বিশ্বে যে টিকাগুলো আবিষ্কার করা হয়েছে, সেগুলো করোনাভাইরাসের প্রথমদিকের ধরন ঠেকানোর চিন্তা করে তৈরি করা হয়েছে। তবে বিজ্ঞানীদের বিশ্বাস, এটি নতুন ধরন ঠেকাতেও কাজ করবে, যদিও তা নিয়ে তারা পুরোপুরি নিশ্চিত নন।

যদিও প্রাথমিক কিছু ফলাফলে দেখা গেছে, ফাইজারের টিকাটি যুক্তরাজ্যের নতুন ধরনের বিরুদ্ধে কার্যকরী।

মডার্নার এই গবেষণায় বিজ্ঞানীরা এমন আটজনের রক্তের নমুনা নিয়েছেন যারা মডার্নার টিকার দুইটি ডোজই গ্রহণ করেছেন।

তাদের গবেষণার ফলাফলের এখনো বিশেষজ্ঞ পর্যালোচনা হয়নি, তবে ধারণা করা হচ্ছে যে, টিকাটি করোনাভাইরাসের নতুন ধরনটি শনাক্ত করতে পারে।

টিকার কারণে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা ব্যবহার করে তৈরি হওয়া অ্যান্টিবডি ভাইরাসটিকে শরীরের কোষে প্রবেশে বাধা তৈরি করে।

যে রক্তের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে, সেখানে ভাইরাসের নতুন ধরনটি ঠেকাতে যথেষ্ট অ্যান্টিবডির অস্তিত্ব পাওয়া গেছে। তবে সেটি যুক্তরাজ্যে ভাইরাসের নতুন ধরন ঠেকাতে যতটা সক্ষম বলে দেখা গেছে, দক্ষিণ আফ্রিকায় পাওয়া ধরনটি ঠেকাতে ততটা সক্ষম নয়।

এখন মডার্না গবেষণা করে দেখছে যে, তৃতীয় আরেকটি ডোজ দেয়া হলে তা উপকারী হয় কিনা।

সেই সঙ্গে অন্যান্য বিজ্ঞানীদের মতো তারাও পরীক্ষা করে দেখছে যে, টিকাটি নতুন করে তৈরি করা হলে তা নতুন ধরন মোকাবেলায় আরও কার্যকরী হয়ে উঠতে পারে কিনা।

সূত্র: বিবিসি বাংলা

বিডি প্রতিদিন/ফারজানা


আপনার মন্তব্য

পরবর্তী খবর