শিরোনাম
প্রকাশ : ১ মে, ২০২১ ২০:৩৫
প্রিন্ট করুন printer

মৃত্যুপুরী ভারত : বিজ্ঞানীদের হুঁশিয়ারিতে কান না দেয়াই কাল হয়েছে

অনলাইন ডেস্ক

মৃত্যুপুরী ভারত : বিজ্ঞানীদের হুঁশিয়ারিতে কান না দেয়াই কাল হয়েছে
Google News

করোনা মহামারী নিয়ে গত বছরের মার্চেই মোদি সরকারকে এ বিষয়ে সতর্ক করে বিশেষজ্ঞদের একটি ফোরাম। ফোরামের বিজ্ঞানীরা ভারতে করোনা নিয়ে হুঁশিয়ারি বার্তা দিয়ে কার্যকরী পদক্ষেপের কথা জানান। তবে তাদের কোনো পরামর্শ কানে নেয়নি কর্তৃপক্ষ। ভারত সরকারের এমন গাফিলতিই কাল হয়ে দাঁড়াল, করোনা তাণ্ডবে বাড়ছে মানুষের মৃত্যুর মিছিল। খবর রয়টার্সের।

করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে কাবু গোটা ভারত। দিন যত যাচ্ছে ততই উত্তরোত্তর বাড়ছে সংক্রমণের দাপট। স্বস্তি নেই। চারিদিকে অক্সিজেন, বেডের আকাল। অব্যাহত মৃত্যু মিছিল। ভারতের দৈনিক সংক্রমণের রেশ ইতিমধ্যে চার লাখের ঘরে পৌঁছেছে। এই অবস্থায় দিনরাত এক করে অসুস্থ রোগীদের চিকিৎসা করে যাচ্ছেন ভারতের প্রথম সারির করোনা যোদ্ধারা চব্বিশ ঘণ্টা নাওয়া খাওয়া ভুলে প্রাণ বাঁচাতে মরিয়া তারা।

মৃত্যুপুরী ভারতে প্রতিদিনই করোনায় আক্রান্ত ও মৃত্যুর রেকর্ড হচ্ছে। গতকাল শুক্রবার হলো নতুন রেকর্ড। এদিন (২৪ ঘণ্টায়) আগের সব রেকর্ড ভেঙে দেশটিতে করোনা রোগী শনাক্ত হয় সর্বোচ্চ ৪ লাখ ২ হাজার ১১০ জন, যা এর আগে আর হয়নি। এ দিন করোনায় মারা যায় ৩ হাজার ৫২২ জন। একই সময়ে করোনা থেকে সুস্থ হয় ২ লাখ ৮৮ হাজার ৫৮৫ জন।

ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্যমতে এ সংখ্যা জানা গেছে। শনিবার সকাল সোয়া ১০টা পর্যন্ত ভারতে করোনায় মোট আক্রান্ত হয়েছেন ১ কোটি ৯১ লাখ ৬৪ হাজার ৯৬৯ জন। মোট মৃত্যু বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২ লাখ ১১ হাজার ৮৫৩। আর সুস্থ হয়েছেন ১ কোটি ৬৮ লাখ ৪৪ হাজার ৬ জন।

এর আগে বৃহস্পতিবার (২৯ এপ্রিল) একদিনে দেশটিতে ৩ লাখ ৮৬ হাজার ৪৫২ জনের করোনা শনাক্ত এবং ৩ হাজার ৪৯৮ জনের মৃত্যু হয়। তার আগের দিন (২৮ এপ্রিল) ২৪ ঘণ্টায় ৩ লাখ ৭৯ হাজারের বেশি শনাক্ত এবং ৩ হাজার ৬৪৫ জনের মৃত্যু হয়। অর্থাৎ মৃতের সংখ্যা গত দুইদিন কিছুটা কমলেও আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েছে।

বিডি-প্রতিদিন/শফিক