Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ১২ জুলাই, ২০১৮ ০০:০০ টা
আপলোড : ১২ জুলাই, ২০১৮ ০৩:৫৪

স্বর্ণ ব্যবসায়ী প্রবীর হত্যা

সব পরিকল্পনা ভেস্তে যায় ক্ষুদ্র লোভে

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি

সব পরিকল্পনা ভেস্তে যায় ক্ষুদ্র লোভে

নারায়ণগঞ্জ শহরের কালীরবাজার এলাকার স্বর্ণ ব্যবসায়ী প্রবীর চন্দ্র ঘোষকে হত্যায় নিয়োজিত ছিল ভাড়াটে পেশাদার ৪-৫ জন। খুব ঠাণ্ডা মাথায় পূর্বপরিকল্পিতভাবে বন্ধু পিন্টু প্রথমে প্রবীরকে তার বাড়ির ফ্ল্যাটে নিয়ে যায়। প্রবীরকে বালিশচাপা দিয়ে  হত্যা করা হয়। পরে খুনিরা চাপাতি দিয়ে মাথা থেকে হাঁটুর উপর পর্যন্ত পাঁচ টুকরা করে। পরে বাজারের ব্যাগে ভরে ফেলে দেওয়া হয় নিচে থাকা সেপটিক ট্যাংকে। হত্যায় ব্যবহূত  কাপড় ও বালিশ ডুবিয়ে দেওয়া হয় শীতলক্ষ্যা নদীতে। কিন্তু একটি ক্ষুদ্র লোভ বৃহৎ এই খুনের পুরো রহস্যের জট খুলে দেয়। খুনি পিন্টুর দোকান কর্মচারী বাপেন ভৌমিক সেই লোভটি করেছিল। পিন্টু তার কর্মচারী বাপেনকে বলেছিল প্রবীরে মোবাইল সেট  ও সিম নদীত ফেলে দিতে। কিন্তু দামি সেটের লোভ সামলাতে পারেনি বাপেন। নদীতে মোবাইল সেট না ফেলে তা ব্যবহার করতে থাকে। তদন্তকারীদের ট্র্যাকিং জালে ধরা পড়ে বাপেন।

প্রসঙ্গত নিখোঁজের ২১ দিন পর সোমবার ৯ জুলাই রাত ১১টায় শহরের আমলপাড়া এলাকার পিন্টু যে বাড়িতে ভাড়া থাকতো সেই ৪ তলা ভবনের সেপটিক ট্যাংক থেকে প্রবীরের লাশ উদ্ধার করা হয়।


আপনার মন্তব্য