মঙ্গলবার, ৫ এপ্রিল, ২০২২ ০০:০০ টা

আট মাসে চারবার ভেঙেছে ব্রিজ, বন্ধ যান চলাচল

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি

আট মাসে চারবার ভেঙেছে ব্রিজ, বন্ধ যান চলাচল

টাঙ্গাইল-আরিচা মহাসড়কের নাগরপুর উপজেলার টেংরিপাড়া গ্রামে নয়নদী শাখা খালের ওপর বেইলি ব্রিজটি আবারও ভেঙে গেছে। গত বুধবার পিঁয়াজ বোঝাই একটি ট্রাক পারাপারের সময় ব্রিজের পাটাতন ভেঙে চাকা আটকে যায়। পরে ট্রাকটি উদ্ধার করা গেলেও বিচ্ছিন্ন রয়েছে যান চলাচল। এ নিয়ে গত আট মাসে চারবার ভেঙে পড়ল এই বেইলি ব্রিজ। জানা যায়, ২০১৩ সালে ধলেশ্বরী সেতু চালু হওয়ার পর এই সড়ক ব্যবহার বেড়ে যায় কয়েকগুণ। ফলে টাঙ্গাইল থেকে আরিচা ও পাটুরিয়াঘাট যেতে ফেরি পারাপারের জন্য বেইলি ব্রিজ নির্মাণ করে টাঙ্গাইল সড়ক ও জনপথ (সওজ) বিভাগ। প্রতিদিন কয়েক শ ছোট-বড় যানবাহন এই ব্রিজ পার হয়ে টাঙ্গাইল-আরিচা-পাটুরিয়া এলাকায় চলাচল করছে। গুরুত্বপূর্ণ এই সড়কের বেইলি সেতুর অবস্থা নাজুক হওয়ায় প্রতিদিনই বিপুলসংখ্যক যানবাহন চলছে ঝুঁকি নিয়ে। সেতুটিতে স্টিলের পাটাতন ক্ষয়ে গেছে। মোটরসাইকেলসহ হালকা যানবাহন প্রায়ই চাকা পিছলে দুর্ঘটনার শিকার হয়। ভারী যানবাহন উঠলে কেঁপে ওঠে পুরো সেতু। এ ছাড়া ব্রিজ দিয়ে ভারী যান চলাচল নিষেধ হলেও তা মানছে না কেউ। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষও কোনো পদক্ষেপ নিচ্ছে না। স্থানীয়রা জানায়, গত বছরের ২৩ আগস্ট বালুভর্তি ট্রাক পারাপারের সময় পাটাতন ভেঙে ব্রিজের মাঝখানে আটকে যায়। একই বছরের ১৭ সেপ্টেম্বর ব্রিজের অন্য স্থানে আবার দুর্ঘটনা ঘটে। চলতি বছরের ১০ মার্চ আবার ভেঙে যায় ব্রিজের পাটাতন। সর্বশেষ গত ৩০ মার্চ পিঁয়াজভর্তি ট্রাক উঠলে ব্রিজের পাটাতন ভেঙে যায়। বিভিন্ন স্থানে ভাঙা থাকার কারণে গত কয়েক বছরে ঘটে যাওয়া ছোট-বড় দুর্ঘটনায় বহু মানুষ আহত হয়েছেন। অনেকেই পঙ্গুত্ব বরণ করছেন। এখন ব্রিজ দ্রুত মেরামত না করলে দুই পারের কয়েক হাজার মানুষের জীবনযাত্রা স্থবির হয়ে পড়বে। স্থানীয় ভাদ্রা ইউপি চেয়ারম্যান শওকত আলী বলেন, চলতি মার্চ মাসেই দুবার রিপেয়ারিং করা হয়েছে। কাজের মান ভালো না হওয়ায় আবার ব্রিজ ভেঙে দুর্ঘটনা ঘটে। এ ব্রিজের ওপর দিয়ে আট টনের বেশি মালামাল বোঝাই ট্রাক চলাচল বন্ধ করতে না পারলে বারবারই এ রকম দুর্ঘটনা ঘটবে। নাগরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ওহিদুজ্জামান মিলন জানান, সওজ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলীর সঙ্গে কথা বলে মেরামতের বিষয়টি নিশ্চিত হয়েছি। সাময়িকভাবে মানুষ চলাচলের উপযোগী করার জন্য দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। টাঙ্গাইল সওজ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী আলিউল হোসেন জানান, ব্রিজের ওপর দিয়ে অতিরিক্ত মালামাল বোঝাই ট্রাক চলার কারণে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে।

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর