প্রকাশ : ২৪ জানুয়ারি, ২০১৯ ১৬:৫২

শার্শা থেকে নবজাতক চুরি, আটক ১

বেনাপোল প্রতিনিধি:

শার্শা থেকে নবজাতক চুরি, আটক ১

যশোরের শার্শার একটি বেসরকারি ক্লিনিক থেকে চুরি হওয়া নবজাতক শিশুটিকে ৯ ঘণ্টা পর ঝিকরগাছা উপজেলার দোষতিনা গ্রাম থেকে  উদ্ধার করেছে পুলিশ। আজ বুধবার দুপুরের দিকে শার্শা উপজেলার নাভারন বাজারের ‘পল্লী ক্লিনিক এন্ড ডায়াগনোস্টিক সেন্টার’ থেকে নবজাতক শিশুটি চুরি হয়। ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে সালমা খাতুন নামে এক মহিলাকে আটক করেছে পুলিশ। আটক সালমা শার্শা উপজেলার ডিহি ইউনিয়নের ফুলসারা গ্রামের আনার আলীর মেয়ে ও ঝিকরগাছা উপজেলার দোষতিনা গ্রামের শাহ আলমের স্ত্রী।

বেনাপোল পোর্ট থানার মানকিয়া গ্রামের নবজাতকের পিতা শরিফুল ইসলাম বলেন, আমার স্ত্রী নাসরিন বেগমের প্রসব বেদনা উঠলে বুধবার ভোরে নাভারণে পল্লী কিনিক এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারে ভর্তি করা হয়। সেখানে সকাল ৯টায় সিজারিয়ানের মাধ্যমে একটা কন্যা সন্তানের জন্ম হয়। আমরা শিশুটিকে নিয়ে বেডে আসার পর অনেকেই তাকে নিয়ে আদর করছিল। বেলা ১২টা থেকে শিশুটিকে আর খুঁজে পাওয়া যাচ্ছিল না। পরে জেনেছি এক নারী তাকে কিনিক থেকে চুরি করে নিয়ে গেছে। বিষয়টি পুলিশকে জানানোর পর পুলিশ অভিযান চালিয়ে রাত ৯ টার দিকে উদ্ধার করে আমাদের কাছে দিয়েছে।

শার্শা থানার এস আই আবুল হাসান বলেন, ঘটনার পর থেকে আমরা সারাদিন অভিযান চালিয়ে অবশেষে রাত ৯ টার সময় ঝিকরগাছা উপজেলার দোষতিনা গ্রাম থেকে নবজাতক শিশুটিকে উদ্ধার করতে সক্ষম হই। এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে সালমা খাতুন নামে এক নারীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাকে থানায় জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

বিডি প্রতিদিন/এ মজুমদার


আপনার মন্তব্য