Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ২০ মে, ২০১৯ ১৮:০৩

রাজশাহীতে প্রতি কৃষকের ভাগে ৫৩.৭৫ কেজি ধান

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী

রাজশাহীতে প্রতি কৃষকের ভাগে ৫৩.৭৫ কেজি ধান

রাজশাহীতে সরকারিভাবে বোরো ধান সংগ্রহ শুরু হয়েছে। সোমবার জেলার নয়টি উপজেলায় আনুষ্ঠানিকভাবে এ কার্যক্রম শুরু হয়েছে। গত ২৫ এপ্রিল থেকে ধান সংগ্রহ শুরুর দিনক্ষণ নির্দিষ্ট থাকলেও তালিকা জটিলতার কারণে তা বিলম্বে শুরু হলো বলে জানিয়েছে জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক দফতর।

রাজশাহীতে সরকারিভাবে শুরু হয়েছে ধান সংগ্রহ অভিযান। কিন্তু শুরুতেই হতাশ খাদ্য কর্মকর্তারা। দিনভর মিলেছে মাত্র ৪০ বস্তা ধান। সরকারের ক্রয় নীতি আর নিয়মের কারণে আগ্রহ নেই চাষিদের। 

রাজশাহীতে এবার ধান উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে দুই লাখ ৭৭ হাজার ৩৩৫ মেট্রিক টন।
জেলায় নিবন্ধিত কৃষক আছেন ৩০ হাজার ৭৪৩ জন। সরকার ধান সংগ্রহ করবে দুই হাজার ১২ মেট্রিক টন। প্রতি কৃষকের ভাগে সরকারকে ধান সরবরাহ করার সুযোগ পড়বে মাত্র ৫৩ দশমিক ৭৫ কেজি। ফলে সরকার ধান কিনলেও আগ্রহী হওয়ার সুযোগ কম চাষিদের। খাদ্য কর্মকর্তা বলছেন, কিছু ঝামেলার কারণেও নিরুৎসাহিত হন চাষিরা।

পবা উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক জাকির হোসেন বলেন, ‘আমরা যে ধান সংগ্রহ করি, কৃষক সেই ধান সরবরাহ করতে সক্ষম নয়। এছাড়া সরকার ব্যাংকের মাধ্যমে টাকা পরিশোধ করে। ফলে ঝামেলা মনে করে সরকারকে ধান সরবরাহ করতে আগ্রহ দেখান না। 

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, রাজশাহীর নয়টি উপজেলায় চলতি মৌসুমে বোরো ধান সংগ্রহের লক্ষ্যমাত্রা রয়েছে দুই হাজার ১২ মেট্রিক টন। সোমবার সকালে পুঠিয়ায় ধান সংগ্রহের উদ্বোধন করেন রাজশাহী-৫ (পুঠিয়া-দুর্গাপুর) আসনের এমপি ডা. মনসুর রহমান। 

এছাড়া অন্য উপজেলাগুলোতে এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তারা (ইউএনও)। ২৬ টাকা কেজি দরে তালিকার ভিত্তিতে কৃষকের কাছ থেকে সরকারি গুদামগুলোতে ধান কেনা হয়।

রাজশাহীর জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক নাজমুল হক ভুইয়া জানান, উপজেলার কৃষকদের তালিকা তৈরিতে জটিলতার কারণে কিছুটা বিলম্বে ধান সংগ্রহ কার্যক্রম শুরু হলো। তবে লক্ষ্যমাত্রা অনুযায়ী কৃষকদের কাছ থেকে ধান সংগ্রহ করা হবে। এ কার্যক্রম চলবে আগামী ৩১ আগস্ট পর্যন্ত।

বিডি-প্রতিদিন/সালাহ উদ্দীন


আপনার মন্তব্য