Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ২৪ মে, ২০১৯ ১৪:৩৮

নোয়াখালীতে দুই সন্তানের জননীকে গণধর্ষণ, গ্রেফতার ২

নোয়াখালী প্রতিনিধি

নোয়াখালীতে দুই সন্তানের জননীকে গণধর্ষণ, গ্রেফতার ২
প্রতীকী ছবি

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলার ছয়ানি ইউনিয়নের দোয়ালিয়া গ্রামে দুই সন্তানের এক জননীকে গণধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। নির্যাতিতাকে স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। 

গতকাল বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। শুক্রবার সকালে এই ঘটনার জেরে দুই জনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। গ্রেফতারকৃতরা হলেন একই গ্রামের মোস্তফার ছেলে সাইফুল ও রুদ্রæপুর গ্রামের কফিল উদ্দিনের ছেলে বাবু।

পুলিশ জানায়, এ ঘটনায় রাতেই তিনজনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাত আরও ৬০-৭০ জনকে আসামি করে নির্যাতিতার স্বামী বাদী হয়ে বেগমগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করলে অভিযান নামে পুলিশ। শুক্রবার সকালে দুই আসামিকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এ সময় তাদের কাছ থেকে একটি এলজি ও এক রাউন্ড গুলিও উদ্ধার করা হয়। 

হাসপাতালে নির্যাতিতা ওই নারী জানান, হারুন, সাইফুল ও বাবুর সাথে পুকুরে মাছ চাষকে কেন্দ্র করে তার স্বামীর সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। প্রায় সময় আসামিরা তার স্বামী ও পরিবারের সদস্যদের হুমকি দিয়ে আসছে। তারই জের ধরে বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে ওই তিন আসামির নেতৃত্বে ৬০-৭০ জন তাদের বাড়ি ঘেরাও করে। 

তিনি আরও বলেন, হারুন, সাইফুল ও বাবু দরজা ভেঙে ঘরে ঢুকে তার শ্বাশুড়িকে মারধর করে। তার কক্ষে গিয়ে তাকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। এবং বাহিরে থাকা তাদের সন্ত্রাসীরা ঘরে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করে। এ সময় তার স্বামী বাড়ির বাহিরে ছিল। পরে খবর পেয়ে বাড়িতে এসে ঘটনাটি দেখতে পেয়ে দ্রুত পুলিশে খবর দেয়। পুলিশ খবর পেয়ে রাতেই ওই নারীকে উদ্ধার করে প্রথমে থানায় নিয়ে যায় এবং ভোরে হাসপাতালে ভর্তি করে। 

বেগমগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফিরোজ আলম মোল্লা বলেন, খবর পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে নির্যাতিতাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে। এবং অভিযান চালিয়ে দুই আসামিকে অস্ত্রসহ গ্রেফতার করে। অন্য আসামিদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে। 

জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা (আরএমও) জানান, নির্যাতিতাকে গাইনি ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়েছে। তার স্বাস্থ্য পরীক্ষার উদ্দেশ্যে কিছু আলামত সংগ্রহ করা হয়েছে। আরও কিছু পরীক্ষা করা হবে। 

 

বিডি-প্রতিদিন/তাফসীর


আপনার মন্তব্য