Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ২৬ মে, ২০১৯ ১৮:০২

‘নিয়ন্ত্রণহীন রাঙামাটির ঈদ বাজার’

ফাতেমা জান্নাত মুমু, রাঙামাটি

‘নিয়ন্ত্রণহীন রাঙামাটির ঈদ বাজার’

সামনে ঈদ। তাই জমজমাট মার্কেট। বাহারি নামের পোশাকে সরব শপিংমল। ভিড়ও রয়েছে চোখে পড়ার মতো। তবে নিয়ন্ত্রণহীন বাজারদর। তাই স্বাধ থাকলেও, স্বাধ্যের বাইরে সব বয়সের পোশাক। এমন অভিযোগ ক্রেতাদের। তবে বিক্রেতারা বলছে কাপড়ের মান আর ডিজাইন দেখে রাখা হচ্ছে দাম।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, রাঙামাটি জুড়ে রয়েছে হাতেগুনা মাত্র কয়েকটি মার্কেট। যার মধ্যে অন্যতম রাঙামাটি বিএম শপিং কমপ্লেক্স, এস কে মার্কেট, আই সি আর মার্কেট, রিজার্ভ বাজার মসজিদ মার্কেট ও মাতব্বর মার্কেট। তাই অতি সহজে স্থানীয়দের কাছে জনপ্রিয়তা লাভ করেছে এসব শপিংমলগুলো।

প্রতি বছরের মতো ঈদকে সামনে রেখে এসব মার্কেটগুলোতে ভারতীয় টিভি সিরিয়ালের নাটকের সাথে নাম মিল রেখে আনা হয় বাহারি ডিজাইনের কাপড়।

নাম শুনে মার্কেটে ক্রেতাদের ভিড় জমলেও, দাম শুনে মুখ ঘুরিয়ে নিচ্ছে অনেকে। পোশাকের দাম নিম্ন বিত্ত ও মধ্য বিত্তের নাগালের বাইরে। কিন্তু ঈদ বলে কথা। নতুন জামার আমেজ ঈদের আনন্দটা বাড়িয়ে দেয় বহুগুণ। তাই বাধ্য হয়ে বিক্রেতাদের কাছে জিম্মি হয়ে পড়ছে সাধারণ মানুষ। মার্কেটগুলোয় ক্রেতা আকর্ষণের জন্য বার্বি ডলের গায়ে সাঁজিয়ে রাখা হয়েছে ‘পরকীয়া’ নামের পোশাক। দাম হাঁকানো হচ্ছে ইচ্ছে মতো। সংশ্লিষ্টদের নজরদারি না থাকার কারণে ঈদ বাজারে অসাধু ব্যবসায়ীরা বেপরোয়া হয়েছে বলে অভিযোগ।

এ ব্যাপারে রাঙামাটি জেলা প্রশাসক একেএম মামুনুর রশিদ বলেন, ঈদ বাজারের কাপড়সহ সব জিনিসপত্রের দাম নিয়ন্ত্রণে রাখতে ও গ্রাহক হয়রানি বন্ধ করতে কাজ করছে জেলা প্রশাসনের বিশেষ ভ্রাম্যমাণ আদালত। তাদের অভিযান অব্যাহত রয়েছে। বিশেষ কোন মার্কেট কিংবা দোকানের বিরুদ্ধে অভিযোগ পাওয়া গেলে, অভিযান চলবে। কোন অসাধু ব্যবসায়ীকে ছাড় দেওয়া হবে না।

বিডি-প্রতিদিন/সালাহ উদ্দীন


আপনার মন্তব্য