Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : ১৬ জুলাই, ২০১৯ ১৮:৫৯

মাদারীপুরে কিশোরী হত্যার বিচারের দাবিতে মানববন্ধন

মাদারীপুর প্রতিনিধি:

মাদারীপুরে কিশোরী হত্যার বিচারের দাবিতে মানববন্ধন

মাদারীপুরে কিশোরীকে হত্যা করে মুখমন্ডল পুড়িয়ে লাশের সাথে ইট বেঁধে লাশ পুকুরে ফেলে দেওয়ার ঘটনায় বিচারের দাবিতে মানববন্ধন করেছে স্থানীয়রা। মঙ্গলবার সকালে সদর উপজেলার বলাইরচর শামসুন্নাহার বালিকা দাখিল মাদ্রাসার শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা ঘণ্টাব্যাপী এ মানববন্ধন করেন। 

এদিকে হত্যার ঘটনায় কয়েক দিন পেড়িয়ে গেলেও অপরাধীদের গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। তবে পুলিশ গুরুত্ব দিয়ে বিষয়টি তদন্ত করছে বলে দাবি পুলিশ সুপারের। এদিকে এই আলোচিত হত্যাকাণ্ড নিয়ে পুলিশের পাশাপাশি র‌্যাব -৮ মাদারীপুরের ক্যাম্পও ছায়া তদন্ত করছে। তারাও বলছে তদন্ত অগ্রগতি অনেক, শিগগিরই অপরাধী সনাক্ত হবে।

মানববন্ধনে দিপ্তির সহপাঠী ও মাদ্রাসার শিক্ষকরা জানান, যে বা যারা নৃশংস ভাবে দিপ্তীকে হত্যা করেছে তাদের অতি দ্রুত চিহ্নিত করে সর্বোচ্চ শাস্তির দাবি জানাই। দিপ্তীকে শারীরিকভাবে নির্যাতন করে যেভাবে হত্যা করেছে তা খুবই অমানবিক। 

এ সময় উপস্থিত ছিলেন মাদ্রাসার ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও কালিকাপুর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আক্কেল আলী মোল্লা, মাদ্রাসার সুপার মাওলানা খলিলুর রহমান, শিক্ষক কর্মচারী ও মাদ্রাসার ২ শতাধিক ছাত্রী।

উল্লেখ্য, নিখোঁজের দুইদিন পর গত শনিবার (১৩ জুলাই) মাদারীপুর শহরের পাদকী এলাকা থেকে এক কিশোরীর মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। প্রথম দিন মরদেহের পরিচয় নিশ্চিত হওয়া যায়নি। রবিবার গণমাধ্যমে সংবাদ প্রচার হওয়ার পরে তার পরিচয় নিশ্চিত হওয়া গেছে। নিহত কিশোরী মাদারীপুর সদর উপজেলার চরনাচনা গ্রামের মজিবর ফকিরের মেয়ে দিপ্তী আক্তার (১৫)। দিপ্তী স্থানীয় একটি মাদ্রাসার দশম শ্রেণির শিক্ষার্থী ছিলেন।

স্থানীয় ও পরিবার সূত্রে জানা গেছে, নিহত কিশোরীর শরীরে একাধিক আঘাতের চিহ্ন ছিল। মুখমন্ডল আগুন দিয়ে পুড়িয়ে ঝলসে দেয়া হয়েছে। পেটে ছুড়িকাঘাত করা হয়েছে। লাশটি ছিলো বিবস্ত্র। 

মাদারীপুর পুলিশ সুপার সুব্রত কুমার হালদার বলেন, মেয়েটি খুব নৃশংসভাবে খুন করা হয়েছে। খুনের পর ঘাতকরা লাশ গুম করতে নিহতের শরীরে ইট বেঁধে লাশ পুকুরে ফেলে দিয়েছিল। মুখমন্ডলও পুড়িয়ে দেয়া হয়েছিল। আমরা বিষয়টি নিয়ে তদন্ত করছি। তদন্ত কাজের অগ্রগতি অনেক। আপাতত বিস্তারিত বলতে চাই না। শিগগিরই এই ক্লুলেস হত্যাটির সাথে জড়িত অপরাধীদের গ্রেফতার করতে সক্ষম হবো।

বিডি প্রতিদিন/হিমেল


আপনার মন্তব্য