শিরোনাম
প্রকাশ : ২৫ আগস্ট, ২০১৯ ২০:০২

নদীর দু’পাড় ধসে যাওয়ায় হুমকির মুখে ৩ শতাধিক বাড়িঘর

নিজস্ব প্রতিবেদক, বগুড়া

নদীর দু’পাড় ধসে যাওয়ায় হুমকির মুখে ৩ শতাধিক বাড়িঘর

বগুড়ার সোনাতলার সুখদহ নদীর দু’পাড় ধসে যাচ্ছে। সেই সাথে নদীভাঙনে গোসাইবাড়ী পূর্বপাড়া এলাকায় প্রায় ৩ শতাধিক বাড়িঘর হুমকির মুখে পড়েছে। 

সোনাতলা উপজেলার উত্তর বয়ড়া থেকে সুখদহ নদীর উৎপত্তি। চলতি বছরের মে-জুন মাসে প্রায় ১ কোটি টাকা ব্যয়ে পানি উন্নয়ন বোর্ড ওই নদীর উৎপত্তিস্থল থেকে ঠাকুরপাড়া মধ্যপাড়া পর্যন্ত পৌনে দুই কিলোমিটার নদী খনন করেন। খননকৃত নদীর মাটি রাখা হয় নদীটির দু’পাশে। সম্প্রতি অতি বর্ষণ ও বন্যায় ওই নদীর দু’পাড় ধ্বসে যাচ্ছে। এতে করে নদীকুলীয় মানুষগুলো ভাঙন আতংকে ভুগছে। এমনকি গোসাই বাড়ী পূর্বপাড়া নামের একটি পাড়া মানচিত্র থেকে হারিয়ে যেতে বসেছে। 
স্থানীয় লোকজন জানান, ওই পাড়ায় প্রায় ৩শ’ পরিবার বসবাস করেন। নদীর র্তীরবর্তী ফসলী জমির পাশাপাশি বসতবাড়ি, গাছপালা, ঘরবাড়ি নদীগর্ভে বিলীন হওয়ার উপক্রম হয়েছে। 
সোনাতলার গোসাই বাড়ী গ্রামের আল মামুন জানান, সম্প্রতি সুখদহ নদীর ভাঙনে একটি পাড়া হুমকির মুখে পড়েছে। এখনি ভাঙন রোধে পাইলিং করা না হলে পুরো পাড়াটি মানচিত্র থেকে হারিয়ে যাবে। 
সোনাতলার জোড়গাছা ইউপি চেয়ারম্যান রোস্তম আলী মন্ডল জানান, নদী ভাঙনে গোসাইবাড়ী এলাকার প্রায় ৩ শতাধিক বাড়িঘর হুমকির মুখে পড়েছে। এ বিষয়ে তিনি উপজেলা প্রকৌশলীকে অবগত করেছেন। 
এ বিষয়ে উপজেলা প্রকৌশলী মোঃ মোখলেছুর রহমান জানান, নদী ভাঙন রোধ ও নদী শাসন এটি পানি উন্নয়ন বোর্ডের কাজ। 
সোনাতলা উপজেলা চেয়ারম্যান এড. মিনহাদুজ্জামান লীটন জানান, স্থানীয় সংসদ সদস্য আব্দুল মান্নানের সহায়তা নিয়ে খুব দ্রুত ওই স্থানে নদী শাসনের কাজ করা হবে। 
এ ব্যাপারে পানি উন্নয়ন বোর্ডের একজন সাব এসিসটেন্ট ইঞ্জিনিয়ার জানান, বাঙালী নদী শাসনের পরিকল্পনা তাদের থাকলেও আশ পাশের ছোট ছোট নদী শাসনের পরিকল্পনা এখনি তাদের নেই। তবে স্থানীয় সংসদ সদস্য চাইলে ব্যবস্থা গ্রহণ করা যেতে পারে। 

বিডি-প্রতিদিন/সালাহ উদ্দীন


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর