শিরোনাম
প্রকাশ : ২৮ জানুয়ারি, ২০২০ ১৬:০৮

উপজেলা ছাত্রলীগের সম্পাদকের ওপর কলেজ শাখা সভাপতির হামলার অভিযোগ

গলাচিপা (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি

উপজেলা ছাত্রলীগের সম্পাদকের ওপর কলেজ শাখা সভাপতির হামলার অভিযোগ
প্রতীকী ছবি

পটুয়াখালীর গলাচিপায় ইউনিয়ন ছাত্রলীগের নতুন কমিটি গঠনকে কেন্দ্র করে উপজেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক মো. জাহিদ হোসেনের ওপর কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি মো. রনি খান ও তার অপর সহযোগী মো. নাজমুল হামলা করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। সোমবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে গলাচিপা বালিকা বিদ্যালয়ের সামনের রাস্তার মোড়ে এ হামলার ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় মঙ্গলবার গলাচিপা থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন জাহিদ হোসেন। 

এদিকে, হামলার ঘটনাকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে বলে জানিয়েছেন সাধারণ নেতা-কর্মীরা। তবে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে এবং ঘটনার তদন্ত চলছে বলে দাবি করেছেন গলাচিপা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আখতার মোর্শেদ।

জানা গেছে, গত সোমবার গলাচিপা উপজেলার রতনদীতালতলী ইউনিয়ন ছাত্রলীগের নতুন কমিটির নাম ঘোষণা করাকে কেন্দ্র করে সরকারি কলেজ শাখার সভাপতি মো. রনি খানের সাথে মতের পার্থক্য ঘটে উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মো. জাহিদ হোসেনের। এ নিয়ে সোমবার রাতে গলাচিপা বালিকা বিদ্যালয়ের সামনের রাস্তার মোড়ে জাহিদের সাথে বাকবিতণ্ডা হয় রনি ও তার বন্ধু নাজমুলের। এরপর রনি ও জাহিদের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এ নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে বলে সাধারণ কর্মীরা জানিয়েছেন।

এ বিষয় গলাচিপা উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক মো. জাহিদ হোসেন বলেন, ‘সোমবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে গাড়ি নিয়ে বালিকা বিদ্যালয়ের রাস্তার মোড়ে দাঁড়িয়ে ছিলাম। এসময় পিছন থেকে অতর্কিতভাবে এসে কলেজ শাখার সভাপতি ও তার সহযোগী নাজমুল রড ও ইট দিয়ে আমার ওপর হামলা করে এবং আমার মোটরসাইকেল ভাঙচুরের চেষ্টা চালায়। পরে চিৎকারে লোকজন চলে আসলে ওরা পালিয়ে যায়।’

এ বিষয়ে গলাচিপা সরকারি কলেজ শাখার সভাপতি মো. রনি খান বলেন, ‘উপজেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক জাহিদ টাকার বিনিময়ে রতনদীতালতলী ইউনিয়নের ছাত্রলীগের কমিটির নাম ঘোষণা করেছে। এ কথা বলতে গেলে সে আমাকে গালাগাল দেয়। আমি কিছু না বলে চলে আসি। কিন্তু এর আধা ঘণ্টা পরই একটি মহল ফেসবুকে আমাকে জড়িয়ে নানা মিথ্যা কথা লেখে- যা সত্য নয়।’

এ প্রসঙ্গে গলাচিপা থানার অফিসার ইনচার্জ আখতার মোর্শেদ বলেন, ‘ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ও কলেজ শাখার সভাপতির মধ্যে পূর্বের কোনো বিরোধ থাকতে পারে। তবে এখন পর্যন্ত যতটুকু জানলাম, তাতে মনে হলো-কমিটি নিয়ে তাদের মধ্যে বিরোধ রয়েছে। এ ঘটনায় জাহিদ হোসেন থানায় একটি জিডি করেছেন, আমরা তদন্ত করছি।’

বিডি প্রতিদিন/এনায়েত করিম


আপনার মন্তব্য