শিরোনাম
প্রকাশ : ১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ০১:০৪

হত্যা মামলা তুলে নিতে নিহতের মায়ের পর হামলা

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি

হত্যা মামলা তুলে নিতে নিহতের মায়ের পর হামলা

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় হত্যা মামলা তুলে নিতে বাদীর বাড়িতে গিয়ে তার ওপর হামলা করেছে আসামি। মঙ্গলবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) শহরের পৌরএলাকার সরকারপাড়ায় এই ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় হত্যা মামলার আসামি কাইয়ুমকে এলাকাবাসী আটক করে পুলিশে দিয়েছে। কাইয়ুমের দায়ের কোপে রক্তাক্ত হন হত্যা মামলার বাদী বাছিয়া বেগম। এই ঘটনায় মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করে এলাকাবাসী।

জানা যায়, গত ২ জানুয়ারি সকালে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা শহরের সরকারপাড়া এলাকার নিজ বাড়ি থেকে কাজের উদ্দেশ্য বের হন নির্মাণ শ্রমিক মাহফুজুর রহমান লিমন (২৪)। বাড়ি থেকে বের হয়ে কিছুদূর যাওয়ার পর স্থানীয় সন্ত্রাসীরা তাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপায়। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন। অবস্থার অবনতি হলে তাকে ঢাকায় নেয়ার পর চিকিৎসাধীন অবস্থায় সে ৮ জানুয়ারি মারা যান। এ ঘটনায় ১০ জনের বিরুদ্ধে সদর থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন রিমনের মা বাছিয়া বেগম।

মঙ্গলবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে নিহত রিমনের বাড়িতে দা নিয়ে যান রিমন হত্যা মামলার অন্যতম আসামি কাইয়ুম। এসময় রিমনের মাকে হত্যা মামলাটি তুলে নিতে হুমকি দেন তিনি। রিমনে মা অস্বীকার জানালে কাইয়ুম তার হাতে থাকা দা দিয়ে তাকে কোপাতে শুরু করেন। খবর পেয়ে এলাকাবাসী রিমনের বাড়ি ঘিরে ফেলে কাইয়ুমকে আটক করে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে।

এই ঘটনার প্রতিবাদে ও হত্যা মামলার আসামিদের গ্রেফতারের দাবিতে এলাকাবাসী কুমিল্লা-সিলেট মহাসড়কের দক্ষিণ পৈরতলা মোড়ে অবরোধ করে বিক্ষোভ করে। এতে উভয় পাশে যান চলাচল বন্ধ হয়ে দীর্ঘ যানযটের সৃষ্টি হয়। প্রায় আধা ঘন্টা পর সদর মডেল থানা পুলিশ বিক্ষুব্ধদের সড়ক থেকে সরিয়ে দিলে যান চলাচল স্বাভাবিক হয়। 

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. সেলিম উদ্দিন জানান, যান চলাচল এখন স্বাভাবিক আছে। মামলার আসামিরা উচ্চ আদালত থেকে জামিনে রয়েছেন।

 

বিডি প্রতিদিন/সিফাত আব্দুল্লাহ


আপনার মন্তব্য