শিরোনাম
প্রকাশ : ২৬ মার্চ, ২০২০ ১৭:১১

বিরলে জুটমিলে বকেয়া বেতনের দাবিতে বিক্ষোভ, গুলিতে নিহত ১

দিনাজপুর প্রতিনিধি

বিরলে জুটমিলে বকেয়া বেতনের দাবিতে বিক্ষোভ, গুলিতে নিহত ১

বকেয়া বেতনের দাবিতে দিনাজপুরের বিরলে রূপালী বাংলা জুটমিলে শ্রমিকদের বিক্ষোভ ও ভাঙচুরে পুলিশের গুলিতে এক চা দোকানদার নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় শ্রমিক, পথচারী ও পুলিশসহ ১০ জন আহত হয়েছেন। 

বুধবার দিবাগত রাত ৯টার দিকে বিরলের রূপালী বাংলা জুটমিলে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে অজ্ঞাত এক হাজারের অধিক ব্যক্তিকে আসামি করে মামলা করেছে বলে জানায় বিরল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ নাসিম হাবিব।  

নিহত চা দোকানদার সুরত আলী(৩০) দিনাজপুরের বিরল পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ডের হুসনা গ্রামের মোহাম্মদ আলীর ছেলে। 

গুরুতর আহতরা হলেন, রূপালী বাংলা জুটমিলের শ্রমিক হুসনা গ্রামের প্রফুল্ল চন্দ্রের পুত্র রাজ কুমার (২৪), বিরল হাসপাতাল এলাকার আহাম্মেদ আলীর পুত্র রায়হান (১৯) এবং হুসনা গ্রামের মৃত ফয়জুল হকের পুত্র ইব্রাহিম (৫৫)। তাদের মধ্যে রাজকুমারের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে দিনাজপুর এম, আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়েছে। বাকীরা বিরল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিচ্ছে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, করোনাভাইরাসের কারণে বিরলের রূপালী বাংলা জুটমিল বন্ধ করে দেয়া হবে বলে বুধবার বিকালে বকেয়া পাওনা টাকার জন্য শ্রমিকরা মিলের অফিসের সামনে বিক্ষোভ করতে থাকেন। শ্রমিকদের কারও চার সপ্তাহের কারও তিন সপ্তাহের বেতন বকেয়া রয়েছে। মিল কর্তৃপক্ষ ২ সপ্তাহের বেতন দিতে চাইলেও তারা মানতে রাজী হয় না। এসময় মিলের এমডি আলহাজ এম, আব্দুল লতিফ উপস্থিত হয়ে শ্রমিকদের শান্ত করার চেষ্টা করলে উল্টো শ্রমিকরা আরও ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে এবং মিলের অভ্যন্তরে ও বাইরে ভাঙচুর শুরু করে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি শান্ত করার চেষ্টা করে। কিন্তু পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গেলে বুধবার রাত ৯টার দিকে পুলিশ লাঠিচার্জ, শর্টগানের রাবার বুলেট ও কাদানি গ্যাস ছুড়ে। এসময় পুলিশের গুলিতে মিলের পাশের চা দোকানদার সুরুত আলী আহত হলে তাকে দ্রুত বিরল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আনা হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। আহত হয় আরও ১০ জন।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বিরল থানার ওসি শেখ নাসিম হাবিব জানান, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে কাদানি গ্যাস ও ১২ রাউন্ড শর্টগানের রাবার বুলেট ছোড়া হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশের ৬ জন আহত হয়েছে বলেও তিনি জানান। 

তিনি আরও জানান, বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে এক হাজারের অধিক অজ্ঞাত ব্যক্তিকে আসামি করে মামলা দায়ের করেছে। 

বিডি প্রতিদিন/এনায়েত করিম


আপনার মন্তব্য