শিরোনাম
প্রকাশ : ৪ এপ্রিল, ২০২০ ১৬:২৬

হাওরাঞ্চলে করোনা উপসর্গ নিয়ে দিনমজুরের মৃত্যু, নমুনা সংগ্রহ

নেত্রকোনা প্রতিনিধি:

হাওরাঞ্চলে করোনা উপসর্গ নিয়ে দিনমজুরের মৃত্যু, নমুনা সংগ্রহ

নেত্রকোনার খালিয়াজুরি উপজেলায় শনিবার ভোরে করোনা উপসর্গ নিয়ে নৃপেন্দ্র দাস নামের (৫৫) এক দিনমজুরের মৃত্যু হয়েছে। সকাল ১০ টার দিকে বিভিন্ন মানুষের মাধ্যমে খবর পেয়ে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল অফিসার ডা. রাজিব ভূইয়া শ্মশানঘাট থেকে মৃতের শরীর হতে নমুনা সংগ্রহ করেন। 

উপজেলার ভারপ্রাপ্ত টিএইচও ডা. মাশরুর সিয়াম এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, নৃপেন্দ্র ঢাকায় স্ত্রী সন্তান নিয়ে কাজ করতেন। গত ২০ থেকে ২৫ দিন পূর্বে বড়হাটি গ্রামে ভাতিজার বাড়িতে তিনি একা এসেছেন বলে তাদের স্বজনদের সূত্রে জানা গেছে। তারা আরো জানায়, তিনি যক্ষার রোগী ছিলেন। কিন্তু যক্ষার কোন কাগজপত্র আমরা পাইনি। হাসপাতালেও কোন রেকর্ড নেই। যেখানে থাকতেন হয়তো সেখানে চিকিৎসা করিয়েছেন। তবে সর্দি কাশি জ্বর নিয়ে তিনি একাই এসেছিলেন। পরবর্তীতে কমে আবার বেড়ে গিয়ে শ্বাসকষ্ট হয়ে তিনি মারা গেছেন। কিন্তু তারা জানিয়েছেন সকাল সাড়ে নয়টায়। 

ডা. মাশরুর সিয়াম বলেন, পরে আমরা খোঁজ নিয়ে জেনেছি তিনি ভোরেই মারা গেছেন। সাথে সাথে নমুনা সংগ্রহ করি। দুর্গম এলাকা হওয়ায় আমরা প্রসেস করে রেখেছি রবিবার (০৫ এপ্রিল) সকালের মধ্যে সিভিল সার্জন অফিসে পাঠাবো। শনিবার (৪ এপ্রিল) সকাল ১০ টায় পূর্বের দিনে দুজনের নমুনা পাঠিয়েছি। এদিকে ওই বাড়ি ও আশপাশের কয়েকটা বাড়ি লকডাউন করে রাখা হয়েছে। 

এলাকাবাসী জানায়, গত ২০ দিন পূর্বে তিনি ঢাকা থেকে সর্দি-জ্বর নিয়ে আসেন। এরপর এভাবেই কমে বেড়ে গিয়ে শনিবার ভোরে মারা গেলে প্রতিবেশী সহ সকলের সন্দেহ হয়। 

সিভিল সার্জন মো. তাজুল ইসলাম, বলছেন নমুনা পরীক্ষার পর বোঝা যাবে তিনি করোনায় আক্রান্ত ছিলেন কি-না। 

নেত্রকোনা পুলিশ সুপার মো. আকবর আলী মুনসী জানান, ওই বৃদ্ধের ভাজিতা সঞ্জিত দাসের বাড়িতে তিনি এসেছিলেন। আমরা খোঁজ নিচ্ছি কতদিন আগে এসেছেন। সঞ্জিতকে পাওয়া যাচ্ছে না। তাকে পেলে পুরো তথ্য নেওয়া যাবে। পুলিশ নজরদাড়িতে রেখেছে। পুলিশ সৎকারেও এগিয়ে গিয়েছে। 

বিডি প্রতিদিন/হিমেল


আপনার মন্তব্য