শিরোনাম
প্রকাশ : ২৫ মে, ২০২০ ১৪:৩৫
আপডেট : ২৫ মে, ২০২০ ১৫:২০

কয়েক মিনিটের ঝড়-বৃষ্টিতে লন্ডভন্ড লালমনিরহাট

লালমনিরহাট প্রতিনিধি

কয়েক মিনিটের ঝড়-বৃষ্টিতে লন্ডভন্ড লালমনিরহাট

কয়েক মিনিটের ঝড় ও বৃষ্টিতে লন্ডভন্ড হয়ে গেছে উত্তরের জেলা লালমনিরহাট। রবিরাব ভোর ৬টার দিকে হঠাৎ করে ব্যাপক ঝড় শুরু হয়। ঝড়ো হাওয়ার সঙ্গে প্রবল বৃষ্টিও হয়। কয়েক মিনিটের ঝড়ে প্রায় লন্ডভন্ড হয় জেলার অনেক গ্রাম। 

বিভিন্ন জায়গায় গাছ ভেঙে বেশকিছু বাড়ি ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। তার ছিঁড়ে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায় বিদুৎ সরবরাহ। ফলে অন্ধকারে ডুবে যায় অনেক এলাকা।

সরেজমিনে জানা গেছে, প্রবল ঝড়ো হাওয়ার ফলে বেশ কয়েকশ গাছও বাড়ির উপরেও ভেঙে পড়েছে। এমনকি জেলার সড়কের উপরেও গাছ ভেঙে পড়ে থাকতে দেখা গেছে। ঝড়ের তাণ্ডবে অন্তত ১৫ জন ব্যক্তি আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে।  

তবে কয়েক মিনিটের ঝড়ে সবচেয়ে বেশি ক্ষতি হয়েছে লালমনির হাট জেলার কালিগঞ্জের শিয়াল খোওয়া, নিথক, গোড়ল, চাপারহাট এবং ভোটমারি এলাকা। 

এছাড়াও ঝড়ে লন্ডভন্ড হয়েছে আদিতমারি, হাজিগঞ্জ, নামুড়ী, হাতিবান্ধা, বড়খাতা, ডাউয়াবাড়ী ও পাটগ্রামের জোংরা ও বাউরা এলাকা। প্রবল ঝড়ের সঙ্গে হয় শিলা বৃষ্টি। যার ফলে পাকা ধানের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। 

জানা গেছে, সকালে হঠাৎ করে আকাশে ঘন মেঘ দেখা দেওয়ার পরেই ঝড়ের আঘাতে মুহূর্তে অর্ধশত বসতবাড়ি, গাছপালা, বিদ্যুৎতের খুঁটি, সবজি ক্ষেত, ধান ক্ষেত লন্ডভন্ড হয়ে যায়। ঝড়ে উড়ে গেছে ঘরের টিন। ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারগুলো খোলা আকাশের নিচে আশ্রয় নিয়ে মাবনবেতর জীবন কাটাচ্ছেন । ঝড়ে শিশু শিক্ষার্থীদের বই খাতাসহ অনেক কিছুই নষ্ট হয়ে গেছে। এসময় ঝড়ে আশ্রয় নিতে গিয়ে ১৫ জন আহত হয়েছেন।

ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্থ রুসতম আলী বলেন, ঘুম থেকে উঠে ঈদের নামাজ পড়তে বের হবো সেই মুহুর্তে শুরু হল ঝড়। এতে আমার থাকার একটি ঘর ঝড়ে গেছে। এতে এখন নিরুপায় হয়ে আছি।

চলবলা ইউনিয়নের পরিষদের চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান মিজু জানান, সকালে হঠাৎ ঝড়ের আঘাতে তার ইউনিয়নের অন্তত ৯টি গ্রামে ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। ঝড়ে গাছপালা ভেঙে ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন। 

কালীগঞ্জ উপজেলার প্রকল্প ও বাস্তবায়ন কর্মকর্তা ফেরদৌস আহম্মেদ বলেন, ক্ষতিগ্রস্তদের পরিবারগুলোর ঘরবাড়ি পরিদর্শনের জন্য ইতোমধ্যে রওনা করেছি। পরিবারগুলোর তালিকা করে দ্রুত পুনর্বাসনের ব্যবস্থা করা হবে।

এ বিষয়ে কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রবিউল হাসান বলেন, ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোকে দ্রুত ত্রাণ সামগ্রী ও পুনর্বাসনের ব্যবস্থা করা হবে।

জেলা প্রশাসক আবু জাফর জানান, হঠাৎ ঝড়ের তাণ্ডবে জেলা ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। উপজেলা নির্বাহী অফিসারদের ক্ষতিগ্রস্তদের তালিকা করার জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

বিডি প্রতিদিন/এনায়েত করিম


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর