শিরোনাম
প্রকাশ : ১০ জুলাই, ২০২০ ১৯:৪৬

বগুড়ায় করোনায় নেগেটিভ হয়েও অধ্যাপক আব্দুল মান্নানের মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক, বগুড়া

বগুড়ায় করোনায় নেগেটিভ হয়েও অধ্যাপক আব্দুল মান্নানের মৃত্যু
অধ্যাপক আব্দুল মান্নান

বগুড়ায় করোনা আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসা শেষে নেগেটিভ হয়েও সবুজ নাসার্রীর স্বত্ত্বাধিকারী অধ্যাপক আব্দুল মান্নান মারা গেছে। শুক্রবার বিকাল ৪টায় টিএমএসএস মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি।

বগুড়া টিএমএসএস মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, বগুড়ার শিবগঞ্জ এম এইচ ডিগ্রী কলেজের সাবেক ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ ও সবুজ নাসার্রীর স্বত্ত্বাধিকারী অধ্যাপক আব্দুল মান্নান করোনায় আক্রান্ত হয়ে গত ১৩ জুন এই হাসপাতালে ভর্তি হন। এরপর থেকে সেখানেই চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। ভর্তির পরপরই তিনি শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন। পরে তাকে লাইফ সার্পোট দেয়া হয়। এরপর শুক্রবার বিকালে তিনি মারা যান। 

অধ্যাপক আব্দুল মান্নানের হাতে গড়া সবুজ নার্সারী বগুড়াসহ উত্তরাঞ্চলের মধ্যে নামকরা। তিনি একাধিকবার জাতীয়ভাবে পুরস্কার পেয়েছেন। 

প্রত্নসামগ্রী সংগ্রাহক আব্দুল মান্নান বগুড়া সদর উপজেলার গোকুল উত্তরপাড়া গ্রামে আয়েজ উদ্দিনের ছেলে। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৬৪ বছর। ব্যক্তি জীবনে তিনি এক ছেলে ও দুই মেয়ের জনক।

বগুড়া টিএমএসএস মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সহকারী নির্বাহী কর্মকর্তা আব্দুর রহিম রুবেল জানান, আব্দুল মান্নান করোনা আক্রান্ত হয়ে ১৩ জুন হাসপাতালে ভর্তি হন। সেখানেই চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত ৮ জুলাই তিনি করোনা নেগেটিভ হন। তবে ডায়াবেটিস এবং হার্টে নানা সমস্যা থাকায় করোনার সংক্রমণে তিনি কাহিল হয়ে পড়েছিলেন।  

টিএমএসএসের উপ-নির্বাহী পরিচালক ডা. মতিউর রহমান জানান, আগে থেকেই শারীরিক নানা জটিলতা থাকায় আব্দুল মান্নানকে হাসপাতালের ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিটে (আইসিইউ) নেওয়া হয়েছিল। শুক্রবার বিকেল সোয়া ৪টার দিকে আইসিইউতেই তার মৃত্যু হয়। 

তিনি আরও বলেন, মাঝে আব্দুল মান্নানের শারিরিক অবস্থার কিছুটা উন্নতি হয়েছিল। কিন্তু পরবর্তীসময়ে আবার তা অবনতির দিকে যায়। এমনকি করোনা নেগেটিভ হওয়ার পরও তার শারীরিক অবস্থার উন্নতি হচ্ছিল না। 

অধ্যাপক আব্দুল মান্নান একাধারে শিক্ষাবিদ, লেখক, গবেষক ও পরিবেশবিদ। তাঁর গবেষণামূলক বই “ইতিকথা পৌন্ড্রবর্ধন” ইতোমধ্যেই পাঠকমহলে সমাদৃত হয়েছে। কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশন এর বগুড়ার স্বেচ্ছাসেবীরা লাশ জীবাণুমুক্ত করে দাফনের ব্যবস্থা করে।

বিডি প্রতিদিন/এনায়েত করিম


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর