শিরোনাম
প্রকাশ : ১৩ আগস্ট, ২০২০ ১৪:৪৩

যশোরে চোর চক্রের তিন সদস্য আটক

নিজস্ব প্রতিবেদক, যশোর:

যশোরে চোর চক্রের তিন সদস্য আটক

যশোরে চুরি হওয়া একটি ইজিবাইক উদ্ধার করতে গিয়ে ১৮টি চোরাই ইজিবাইক উদ্ধার করেছে পুলিশ। এর সাথে জড়িত সন্দেহে তিন জেলা থেকে তিন জনকে আটক করেছে। আটকরা হলেন- বরগুনা জেলার নয়াপাড়া গ্রামের আলম ফারাজি মহারাজ, যশোরের সীতারামপুরের রবিউল ইসলাম ও কুষ্টিয়া সদরের চৌড়হাস এলাকার মিজানুর রহমান।

পুলিশ জানায়, দুইজন ব্যক্তি গত ২৭ জুলাই নড়াইল সদরের রফিক গাজী নামে এক জনের ইজিবাইক ভাড়া নিয়ে বিভিন্ন স্থানে ঘোরাঘুরি করে। পরে যশোরের অভয়নগর এলাকার এলাকার একটি বাড়িতে তারা একসাথে খাওয়া দাওয়া করে। এক পর্যায়ে ইজিবাইক চালক রফিক গাজী অচেতন হয়ে পড়লে ওই দুই ব্যক্তি রফিক গাজীর কাছে থাকা নগদ আড়াই হাজার টাকা, মোবাইলফোন ও ইজিবাইক নিয়ে পালিয়ে যান। পরে স্থানীয়রা রফিক গাজীকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে। রফিক গাজী সুস্থ হয়ে এ ব্যাপারে অভয়নগর থানায় মামলা করেন। পুলিশ সুপার মামলাটির তদন্তভার ডিবি পুলিশের ওপর ন্যস্ত করেন। 

তদন্তের এক পর্যায়ে যশোর ডিবি পুলিশ বুধবার গোপালগঞ্জ সদরের গোলাবাড়িয়া এলাকায় ওয়াজেদ আলী মুন্সির গোড়াউনে হানা দিয়ে ইজিবাইক চোর চক্রের দুই সদস্য আলম ফারাজি ও রবিউল ইসলাকে আটক করে এবং তাদের হেফাজত থেকে একটি ইজিবাইক, ৮টি মোবাইলফোন, ৭০ পিস চেতনানাশক ওষুধ জব্দ করা হয়। আটক দুজনের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী কুষ্টিয়া সদর থানার চৌড়হাস এলাকা থেকে মিজানুর রহমানের গ্যারেজে অভিযান চালিয়ে রফিক গাজীর চুরি হওয়া ইজিবাইকসহ ১৮টি ইজিবাইক উদ্ধার করা হয় ও মিজানুর রহমানকে আটক করা হয়। 

যশোরের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আশরাফ হোসেন বৃহস্পতিবার দুপুরে এক প্রেস কনফারেন্সে জানিয়েছেন, আটকরা যশোর, ঝিনাইদহ, সাতক্ষীরা, মাগুরা জেলার বিভিন্ন স্থানে একই পদ্ধতিতে ইজিবাইক চুরির কথা স্বীকার করেছেন। তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

বিডি প্রতিদিন/মজুমদার


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর