শিরোনাম
প্রকাশ : ২৬ অক্টোবর, ২০২০ ২০:৫৪
আপডেট : ২৬ অক্টোবর, ২০২০ ২১:০৩

বখাটের লাথিতে অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূর সন্তান নষ্ট!

চকরিয়া (কক্সবাজার) প্রতিনিধি

বখাটের লাথিতে অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূর সন্তান নষ্ট!

কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলায় তুচ্ছ বিষয় নিয়ে বখাটের লাথিতে অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূ কুলছুমা বেগমের (২২) ২ মাসের সন্তান নষ্ট হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

শনিবার বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে উপজেলার পূর্ব বড় ভেওলা ইউনিয়নের সেকান্দর পাড়ায় এ ঘটনা ঘটে।

সোমবার বিকেলে বিষয়টি জানাজানি হয়। কুলছুমা ওই এলাকার মো. রিয়াজ উদ্দিনের স্ত্রী।

তবে ঘটনার সময় বাধা দিতে গেলে কুলছুমার মা মনোয়ারা বেগম (৪৫), মেয়ে রিক্তা মনি (১৮) ও মারিয়া সুলতানাকে (১৮) পিটিয়ে গুরুতর জখম করা হয়। আহতরা সবাই চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

জানা গেছে, গৃহবধূ কুলছুমা বেগম বাবার বাড়ির পাশে ভাড়া বাড়িতে থাকেন। তিনি উঠানে কাপড় শুকাতে দিলে তার একটি ব্লাউজ হারিয়ে যায়। বিষয়টি বাড়ির পাশে রুহুল কাদেরের স্ত্রীকে জিজ্ঞাসা করেন তিনি।

এরই পরিপ্রেক্ষিতে তার তিন ছেলে আনোয়ারুল আকবর, আনোয়ারুল সাদেক ও সোহরাব হোসেন অতর্কিত এসে কুলছুমাকে মারধর করেন। মারধরের এক সময় কুলছুমার পেটে লাথি লাগে। এসময় বাধা দিতে গেলে তার মা ও দুই বোনকেও পেটায়।

পরে স্থানীয় লোকজন তাদের উদ্ধার করে চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। ভর্তি করার পর কুলছুমার ব্যথা শুরু হলে তার আল্ট্রাসনোগ্রাফী করা হয়। রিপোর্টে বাচ্চা নষ্টের বিষয়টি উঠে আসে।

অভিযুক্ত আনোয়ারুল সাদেক বলেন, ঝগড়া থামাতে গিয়ে এ ধরনের ঘটনা ঘটেছে।

চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাকের মোহাম্মদ জুবায়ের বলেন, এ ধরনের ঘটনা ঘটে থাকলে ভুক্তভোগী অভিযোগ নিয়ে আসলে মামলা নেওয়া হবে।

বিডি প্রতিদিন/এমআই


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর