শিরোনাম
প্রকাশ : ১০ এপ্রিল, ২০২১ ১৭:০২
প্রিন্ট করুন printer

সালথা তাণ্ডব; বিচার বিভাগীয় তদন্ত চাইলো বিএনপি

কামরুজ্জামান সোহেল, ফরিদপুর:

সালথা তাণ্ডব; বিচার বিভাগীয় তদন্ত চাইলো বিএনপি
Google News

গত ৫ এপ্রিল ফরিদপুরের সালথা উপজেলা পরিষদে তাণ্ডব চালিয়ে ব্যাপক ভাঙচুর, অগ্নিসংযোগের ঘটনায় বিচার বিভাগীয় তদন্ত দাবি করেছে জেলা বিএনপি। শনিবার দুপুরে ফরিদপুরের থানারোডের একটি চাইনিজ হোটেলে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলন থেকে এ দাবি জানানো হয়। একই সাথে বিএনপির নেতা-কর্মীদের নামে মিথ্যা মামলা দায়েরের প্রতিবাদ জানানো হয়। 

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত থেকে বিস্তারিত তুলে ধরে বক্তব্য রাখেন বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির ফরিদপুর বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক শামা ওবায়েদ ইসলাম রিংকু। সংবাদ সম্মেলন থেকে শামা ওবায়েদ ইসলাম জানান, লকডাউনের প্রথম দিনে সালথার ফুকরা বাজারে এসিল্যান্ড গিয়ে কয়েক মুরব্বীদের সাথে খারাপ আচরণ করেন এবং লাঠিপেটার ঘটনা ঘটান। এরই সূত্র ধরে স্থানীয়রা বিক্ষুব্ধ হয়ে উঠে। পরবর্তীতে একটি অনাকাঙ্খীত ঘটনার সূত্রপাত হয় যা নিন্দনীয়। 

শামা ওবায়েদ অভিযোগ করে বলেন, শুধুমাত্র প্রতিহিংসার কারণে বিএনপির নেতা-কর্মীদের টার্গেট করে মামলা দেওয়া হচ্ছে। যা অত্যান্ত দুঃখজনক। তিনি বলেন, পুলিশের গুলিতে যে দুটি ছেলে মারা গেছে তাদের পরিবারের সদস্যদেরও মামলায় আসামি করা হয়েছে। আর বিএনপির নেতা-কর্মীদের মিথ্যা মামলা দিয়ে আসামি করায় তারা এখন এলাকাছাড়া। তিনি বলেন, যে ঘটনাটি ঘটেছে তা অনাকঙ্খীত। কিন্তু এ ঘটনাকে পূজি করে বিএনপির নেতা-কর্মীদের হয়রানি করা হচ্ছে। 
শামা ওবায়েদ বিএনপির নেতা-কর্মীদের নামে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানান। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন জেলা বিএনপির সাবেক সাধারন সম্পাদক সৈয়দ মোদাররেস আলী ইছা, সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক আলী আশরাফ নাননু, সাবেক যুগ্ম সম্পাদক সৈয়দ জুলফিকার হোসেন জুয়েল, বিএনপি নেতা এবি সিদ্দিকী মিতুল, হাবিবুর রহমান, এমটি আখতার টুটুল, দেলোয়ার হোসেন দিলা, আফজাল হোসেন খান পলাশ, হাবিবুর রহমান হাফিজ, যুবদল নেতা রাজিব হোসেন, জাহাঙ্গীর হোসেন, বেনজির আহমেদ তাবরিজ প্রমুখ। 

বিডি প্রতিদিন/হিমেল

এই বিভাগের আরও খবর