শিরোনাম
প্রকাশ : ১০ এপ্রিল, ২০২১ ২১:৫৫
প্রিন্ট করুন printer

২০০ টাকার জন্য বন্ধুকে গলা কেটে হত্যা!

লাশ উদ্ধারের তিন ঘণ্টার মধ্যে খুনি আটক

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি:

২০০ টাকার জন্য বন্ধুকে গলা কেটে হত্যা!

বন্ধুকে জবাই করে হত্যায় ব্যবহৃত রক্তমাখা ছুরিসহ তিন ঘণ্টার মধ্যে ঘাতককে গ্রেফতার করেছে সাতক্ষীরা পুলিশ। ২০০ টাকার জন্য বন্ধু সালাউদ্দিনকে খুন করেন বলে স্বীকার করেছেন সাগর হোসেন (১৪)। সাগর সাতক্ষীরা সিটি কলেজ এলাকার শহিদুল ইসলামের ছেলে। 

সাতক্ষীরার গোয়েন্দা পুলিশ পরিদর্শক ইয়াসিন আলম চৌধুরী জানান, শনিবার বিকেলে নিহতের লাশ উদ্ধারের তিন ঘণ্টার মধ্যে শহরের পলাশপোলের সরকারি কবরস্থানের কাছ থেকে গ্রেফতার করা হয় খুনি সাগর হোসেনকে। তার স্বীকারোক্তি অনুযায়ী শহরতলির লাবসা বাইপাসের পাশের একটি গ্যারেজ থেকে হত্যায় ব্যবহৃত ধারালো ছুরি উদ্ধার করা হয়েছে। তার দেওয়া জবানবন্দি অনুযায়ী শুক্রবার রাত ৩ টার সময় সে তার বন্ধু সালাউদ্দিনকে হত্যা করে। 

সে পুলিশকে আরও জানায় বন্ধু সাগর হোসেন সালাউদ্দিনের কাছে গাঁজা কেনার জন্য ২০০ টাকা দিয়েছিল। সালাউদ্দিন গাঁজা কিংবা টাকা কোনোটাই ফেরত না দেওয়ায় সে তাকে খুন করেছে বলে জানিয়েছে। 

এর আগে শনিবার দুপুরে সাতক্ষীরা কাশেমপুর মালীপাড়া এলাকা থেকে সালাউদ্দিনের জবাই করা মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। নিহত ইজিবাইক চালক কিশোর সালাউদ্দিন হোসেন (১৫) শহরতলীর কাশেমপুর মালীপাড়া শাহজাহান আলী ওরফে বাবুর ছেলে।

সালাউদ্দিনের বাবা শাহজাহান আলী ও সাতক্ষীরা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত ওসি মো: বোরহান উদ্দিন জানান, বাড়িতে কেউ না থাকার সুযোগে বন্ধু সাগর হোসেন ইজিবাইক চালক সালাউদ্দিন আহমেদের (১৫) ঘরে ঢোকে। এক পর্যায়ে সে তাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে জবাই করে হত্যা করে পালিয়ে যায়। পরে সাগর হোসেন তার বাবা শহিদুল ইসলামকে এ খবর জানায়। নিহত সালাউদ্দিন বাড়ির একটি কক্ষে একাই থাকতো।

বিডি প্রতিদিন/হিমেল