শিরোনাম
প্রকাশ : ২৮ মে, ২০২১ ২০:০২
আপডেট : ২৮ মে, ২০২১ ২০:১০
প্রিন্ট করুন printer

করোনায় ভয় নেই বউ বাজারের ক্রেতাদের!

রিয়াজুল ইসলাম, দিনাজপুর:

করোনায় ভয় নেই বউ বাজারের ক্রেতাদের!
Google News

করোনার এই সময়েও দিনাজপুরের ব্যতিক্রমধর্মী বউ বাজারেও উপচে পড়া ভিড় লক্ষ্য করা গেছে। এ বাজারে সব ধরণের কাপড় পাওয়া গেলেও ক্রেতারা সব মহিলা হওয়ায় বাজারের নাম ‘বউ বাজার’। কিন্তু বাজারে মানা হচ্ছে না কোনো স্বাস্থ্যবিধি।

শহরের বাসুনিয়াপট্টিতে এই বউ বাজার বসে প্রতি শুক্রবার। সকাল ৭টা থেকে শুরু হয়ে বিকাল পর্যন্ত এই বউ বাজারের কেনা-বেচা চলে। ক্রেতা বিক্রেতার পদভারে মুখরিত থাকে বউ বাজার।

এখানে অস্থায়ী ২ শতাধিক কাপড়ের দোকানের মালিক, দোকান কর্মচারী। তারা বিভিন্ন স্থান থেকে কাপড় কিনে এনে এসব দোকানে বিক্রি করে। এখানে আগে সাধারণত গরীব ও মধ্যবিত্ত পরিবারের নারীরা কাপড় কিনতে আসত। কিন্তু বর্তমানে ধনী পরিবারের নারীরাও আসছেন এখানে কাপড় কিনতে।

কাপড় ব্যবসায়ী রহিম জানায়, এ বাজারে মূলত মহিলারা আসেন এবং বিক্রি ভালো হয়। অন্যান্য বাজারের চেয়ে এখানে কাপড়ের দাম তুলনামূলক একটু কম থাকে। কিভাবে কম মূল্যে কাপড় বিক্রি করেন জিজ্ঞাসা করলে বউ বাজারের ব্যবসায়ীরা জানান, এখানে যারা ব্যবসা করেন তাদের দিতে হয় না দোকান ভাড়া, নেই কর্মচারীদের বেতন এবং নেই কোন ইলেট্রিক বিল বা খাজনা। তাই বাইরে থেকে কাপড় যে দামে কেনা হয় তার উপর কিছুটা লাভ রেখেই সেসব কাপড় বিক্রি করা হয়। 

এ ব্যাপারে উপশহর এলাকার গৃহবধূ মোসলেমা বেগম, চাকরিজীবি বৃষ্টি জানান, কম মূল্যে কাপড় পাওয়া যায় সেজন্যই প্রতি শুক্রবার এসব দোকানে কাপড় কিনতে আসি। তাছাড়া মেয়েদের জন্য এ বউ বাজার অত্যন্ত নিরাপদ।  

বউ বাজারের বিমল আগাওয়াল জানান, বউ বাজারের নিরাপত্তায় নিজেদের ব্যবস্থাপনায় গার্ড নিয়োগ করে দেয়া হয়। বাসুনিয়াপট্টির যে রাস্তায় বউ বাজার বসছে সে রাস্তা দিয়ে সকাল থেকে দুপুর পর্যস্ত বউ বাজার চলাকালীন যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকে। ফলে ক্রেতারা স্বাছন্দে কেনাকাটা করতে পারেন। শুক্রবার সকল মার্কেট বন্ধ থাকায় এ বাজারটি এ এলাকায় বসে।

বিডি প্রতিদিন/হিমেল

এই বিভাগের আরও খবর