শিরোনাম
প্রকাশ : ১৩ জুলাই, ২০২১ ১৮:০০
প্রিন্ট করুন printer

স্ত্রী-কন্যা হত্যার ১২ দিন পর গ্রেফতার স্বামী

বরগুনা প্রতিনিধি

স্ত্রী-কন্যা হত্যার ১২ দিন পর গ্রেফতার স্বামী
সিআইডির হাতে গ্রেফতার স্বামী শাহীন মুন্সী।
Google News

বরগুনার পাথরঘাটা উপজেলার সদর ইউনিয়নের পূর্ব হাতেমপুর গ্রামে স্ত্রী ও শিশু কন্যা হত্যার ১২ দিন পর ঘাতক স্বামী শাহীন মুন্সীকে চট্টগ্রাম থেকে গ্রেফতার করেছে সিআইডি। পরে শাহীন মুন্সী হত্যার দায় স্বীকার করেছে। মঙ্গলবার সকালে চট্টগ্রামে সিআইডি কার্যালয়ে প্রেস ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য জানানো হয়।

প্রেস ব্রিফিংয়ে বলা হয়, ১ জুলাই রাতে স্ত্রী সুমাইয়া ঘরের বাইরে বাথরুমে গেলে সেখানে লাইলনের সুতা গলায় ফাঁস দিয়ে তাকে হত্যা করে শাহীন মুন্সী। পরে ঘরে কোদাল নিতে এসে মেয়েকে কাদঁতে দেখে তাকেও পানিতে চুবিয়ে হত্যা করে দুজনকে মাটি চাপা দেয় সে।

শাহিন মুন্সী ঘটনার পর পালিয়ে প্রথমে খুলনায় এক বোনের বাসায় আশ্রয় নিতে চাইলে আশ্রয় না পেয়ে খাগড়াছড়ি আরেক বোনের বাসায় আশ্রয় নিতে আসে। সেখানেও তাকে আশ্রয় না দেওয়ায় চট্টগ্রামে দুদিন রাস্তায় ঘুরে বেড়ায়। পরে বন্দর থানা এলাকায় একটি গ্যারেজে কাজ নেয়। সোমবার রাতে সিআইডি বন্দর থানা এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করে।

প্রেস ব্রিফিংয়ে আরও বলা হয়, শাহিন মুন্সী প্রেম করে সুমাইয়ার সাথে শারীরিক সম্পর্ক গড়ে তোলে। পরে তাকে বিয়ে করতে অস্বীকার করলে সুমাইয়া শাহিন মুন্সীর বিরুদ্ধে আদালতে ধর্ষণের মামলা করেন। পরে শাহিন মুন্সী ৩ মাস কারাভোগ করার পরে বিয়ের শর্তে জামিনে এসে সুমাইয়াকে বিয়ে করেন। বিয়ের পরে তাদের মধ্য পারিবারিক কলহ চলতে থাকে। এই পারিবারিক বিরোধের জের ধরে সুমাইয়া ও তার শিশু কন্যা সামিরাকে হত্যা করে সে।

পাথরঘাটা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল বাশার বলেন, সিআইডি সোমবার রাতে চট্টগ্রামের বন্দর থানা এলাকা থেকে শাহীন মুন্সীকে গ্রেফতারের কথা আমাদের জানিয়েছে।

বিডি প্রতিদিন/এমআই

এই বিভাগের আরও খবর