শিরোনাম
প্রকাশ : ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ২১:৫১
আপডেট : ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০২১ ২২:০৫
প্রিন্ট করুন printer

সম্পত্তি হাতিয়ে নিতে বৃদ্ধকে পাগল সাজানোর অভিযোগ

মাদারীপুর প্রতিনিধি

সম্পত্তি হাতিয়ে নিতে বৃদ্ধকে পাগল সাজানোর অভিযোগ
স্ত্রী ও ছেলেমেয়ের যোগসাজশে হাত-পা বাঁধা হচ্ছে বৃদ্ধের।
Google News

মাদারীপুরের রাজৈর উপজেলায় সম্পত্তি হাতিয়ে নিতে স্ত্রী ও ছেলেমেয়ের যোগসাজশে খলিল শেখ (৬০) নামে এক ব্যক্তিকে পাগল সাজিয়ে হাসপাতালে ভর্তির অভিযোগ উঠেছে। সম্প্রতি উপজেলার খালিয়া ইউনিয়নের বৌলগ্রামে এ ঘটনা ঘটে। 

ঘরের মধ্যে হাত-পা বেঁধে নির্যাতন করার ৫৩ সেকেন্ডের একটি ভিডিও ফেসবুকে ভাইরাল হলে, এলাকায় ব্যাপক সমালোচনার সৃষ্টি হয়। ভিডিওতে দেখা যায়, কয়েকজন মিলে বৃদ্ধ খলিল শেখের হাত-পা বাঁধছেন। এসময় বৃদ্ধ কান্নাকাটি করছে।

জানা গেছে, বৌলগ্রাম এলাকার মো. খলিল শেখের সংসারে স্ত্রী হায়াতুন বেগম (৫০), দুই ছেলে নাজমুল শেখ (২৮) ও আসিব শেখ (১৮), দুই মেয়ে রাবেয়া আক্তার (২৫) ও ছোট মেয়ে মাহমুদা আক্তার (২২) রয়েছে। বিভিন্ন কারণে স্ত্রী ও ছেলেমেয়েদের উপর ক্ষিপ্ত খলিল তার সম্পত্তি আপন ভাই তারা মিয়াকে লিখে দিতে পারে-এমন আশঙ্কায় স্ত্রী ও ছেলেমেয়ে খলিলকে গত শুক্রবার জুমার নামাজের সময় ঘরের মধ্যে আটকে রাখন। একপর্যায়ে পাগল সাজিয়ে হাত-পা বেঁধে বাড়ি থেকে বের করে নিয়ে যান। এরপর মঙ্গলবার পর্যন্ত তার কোনো খোঁজখবর পাওয়া যায়নি।

নির্যাতনের শিকার খলিলের ভাই তারা মিয়া শেখ বলেন, আমার ভাই পাগল না। আমার ভাইয়ের স্ত্রী ও ছেলেমেয়েরা তাকে পাগল সাজিয়ে হাত-পা বেঁধে কোথায় যেন নিয়ে গেছে। এখন পর্যন্ত তার কোনো সন্ধান পাচ্ছি না। আমি আমার ভাইকে ফিরে পেতে চাই। স্থানীয় একাধিক বাসিন্দাও তাকে সুস্থ দাবি করেছেন।

খলিলের স্ত্রী হায়াতুন বেগম বলেন, ‘আমার স্বামী পাগল। সে প্রায়ই বাড়িঘর ভাঙচুর করে। তাই তাকে বেঁধে প্রথমে ফরিদপুর এবং পরে পাবনার একটি মানসিক হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করেছি।’ 

এ বিষয়ে রাজৈর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ সাদিক জানান, এ ব্যাপারে অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বিডি প্রতিদিন/এমআই

এই বিভাগের আরও খবর