৩ নভেম্বর, ২০২১ ১৬:৩৮

নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় উপজেলা চেয়ারম্যানসহ ৪ জন ছুরিকাহত

নিজস্ব প্রতিবেদক, বগুড়া

নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় 
উপজেলা চেয়ারম্যানসহ ৪ জন ছুরিকাহত

বগুড়ার সোনাতলায় পৌরসভার নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় উপজেলা চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগের সভাপতিসহ ৪ জন ছুরিকাহত হয়েছেন। ছুরিকাহত চারজনকে প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হলেও পরে তাদের বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। বুধবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে উপজেলা সদরের মাইক্রোবাস স্ট্যান্ড এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

আহত ৪ জন হলেন সোনাতলা উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট মিনহাদুজ্জামান লীটন, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি নাহিদ হাসান জিতু, সাধারণ সম্পাদক উৎপল চন্দ্র ও উপজেলা মৎস্যজীবী লীগের সভাপতি মোমিনুল ইসলাম সোহেল। 
এরপর উপজেলা চেয়ারম্যান ও নব নির্বাচিত মেয়রের কর্মী ও সমর্থকরা মুখোমুখি অবস্থান নেয়। পুলিশ উভয় পক্ষের মাঝে অবস্থান নিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে। 

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, মঙ্গলবার ভোট চলাকালে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী জাহাঙ্গীর আলম আকন্দ নান্নু (নব নির্বাচিত মেয়র) কানুপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্র ভোট পরিদর্শনে গিয়ে ধাওয়ার মুখে পরেন। ওই ঘটনার জের ধরে বুধবার দুপুরে মেয়র ও উপজেলা চেয়ারম্যানের সমর্থকদের মধ্যে কথা কাটাকাটি শুরু হয়। সেসময় উপজেলা চেয়ারম্যানসহ আহত অন্যরা সেখানে গেলে সংঘর্ষ বাধে। এসময় তারা ধারালো অস্ত্রের আঘাতে আহত হয়। পরে স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে তাদের বগুড়া শজিমেক হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। শজিমেকে স্থানান্তরের বিষয়টি নিশ্চিত করেন উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. এহিয়া কামাল।

বগুড়ার সোনাতলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রেজাউল করিম জানান, উভয় পক্ষ এনিয়ে মুখোমুখি অবস্থান নিলে পুলিশ তাদের হটিয়ে দেয়। বর্তমানে সেখানে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নেয়া হয়েছে। 
বগুড়ার সোনাতলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাদিয়া আফরিন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন এবং উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের টহল জোরদার করার নির্দেশ প্রদান করেন।

বিডি প্রতিদিন/এএ

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর