২৬ জুন, ২০২২ ১৭:৩২

হিজলায় আসামি গ্রেফতারের পর ছিনিয়ে নেয়ার অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক, বরিশাল

হিজলায় আসামি গ্রেফতারের পর ছিনিয়ে নেয়ার অভিযোগ

বরিশালের হিজলা উপজেলার আলীগঞ্জ বাজারে পুলিশের উপর হামলার মামলার আসামি নিজাম ঢালীকে (৪২) পুলিশ গ্রেফতার করে হাতকড়া পরানোর পর ধস্তাধস্তি করে হাত কড়া খুলতে বাধ্য করে তাকে ছিনিয়ে নেয়ার অভিযোগ উঠেছে আওয়ামী লীগ পরিচয়ধারী স্থানীয় একদল দুর্বৃত্তের বিরুদ্ধে। গতকাল শনিবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে এই ঘটনা ঘটে। বিষয়টি স্থানীয় পুলিশ প্রথম দিকে চেপে যাওয়ার চেস্টা করলেও লোকমুখে জানাজানি হওয়ার পর আইনী পদক্ষেপ নেয়ার নিতে তৎপর হয়েছেন জেলা পুলিশ কর্মকর্তারা। 

ছিনিয়ে নেয়া আসামীর নাম নিজাম ঢালী ওরফে ‘নিজা গুন্ডা’। তিনি ও তার ভাই সালাউদ্দিন সাল্লুসহ ৩৫ জন স্থানীয় প্রভাবশালী ব্যক্তি গত ১৫ জুন হিজলার আলীগঞ্জে ইউপি নির্বাচনে প্রভাব বিস্তার এবং পুলিশের উপর হামলা মামলার আসামি। তারা ১৫ জুনের ইউপি নির্বাচনে নৌকার বিদ্রোহী প্রার্থী জামাল ঢালীর কর্মী-সমর্থক ছিলেন। বিদ্রোহী জামাল ঢালী মেহেন্দিগঞ্জের সাবেক এক উপজেলা চেয়ারম্যান এবং জেলা আওয়ামী লীগের এক নেতার অনুসারী হিসেবে এলাকায় পরিচিত। ওই মামলায় ৩২ জন আসামি জামিন নিয়েছে। একজন হাজত বাস করছে। অধরা রয়েছে ওই মামলার ২ নম্বর আসামী সালাউদ্দিন সাল্লু এবং তার ভাই মামলার ৩ নম্বর আসামি নিজাম ঢালী। 

মেহেন্দিগঞ্জ ও হিজলা থানার সিমান্তবর্তী আলীগঞ্জ বাজারে একটি আরআরএফ ক্যাম্প রয়েছে। ক্যাম্পটি দুই থানার পুলিশ তদারকি করে। রবিবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে মেহেন্দিগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক শফিক হিজলার থানা সিমানার মধ্যে থাকা আলীগঞ্জ আরআরএফ ক্যাম্পের কয়েকজন সদস্য নিয়ে বাজারে আসামী ধরতে যায়। বাজারের একটি রেস্তোরায় নাস্তা খাওয়া অবস্থায় নিজাম ঢালীকে প্রথমে অবরুদ্ধ এবং পরে তাকে হাতকড়া পরিয়ে গ্রেফতার করে পুলিশ। মুহূর্তের মধ্যে তাকে গ্রেফতারের খবর ছড়িয়ে পড়লে সহযোগী ও সমর্থকরা পুলিশকে ঘিরে ফেলে। এ সময় তারা পুলিশের সাথে ধাক্কাধাক্কি করে হাতকড়া খুলতে বাধ্য করে মামলার আসামি নিজাম ঢালীকে ছিনিয়ে নেয়। বাজারের শত শত মানুষ এই দৃশ্য প্রত্যক্ষ করে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় মো. জসিম উদ্দিন মাওলানা। 

এ বিষয়ে জানতে চাইলে হিজলা থানার ওসি মো. ইউনুস মিয়া বলেন, হিজলা থানার মামলা হলেও আলীগঞ্জ বাজারে স্থানীয় আরআরএফ এর সহায়তায় আসামী ধরতে গিয়েছিলো মেহেন্দিগগঞ্জ থানা পুলিশ। একটি মামলার আসামী ধরার সময় ধস্তাধস্তি করে সে পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় সংশ্লিস্ট পুলিশ কর্মকর্তা অভিযোগ দিলে আইনগত ব্যবস্থা নেবে হিজলা থানা পুলিশ। 

মেহেন্দিগঞ্জ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. তৌহিদুজ্জামান বলেন, আগে নিজাম ঢালীর বাড়ি ছিলো হিজলায়। এখন সে মেহেন্দিগঞ্জে বাড়ি করেছে। হিজলা থানার একটি মামলার আসামী ধরতে আলীগঞ্জ বাজারে অভিযান চালায় পুলিশ। তাকে গ্রেফতারের ধরার সময় তার অন্যান্য সহযোগীরা পুলিশের সাথে ধস্তাধস্তি করে তাকে ছিনিয়ে নেয়। এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার কথা বলেন তিনি। 

বিডি প্রতিদিন/এএ

এই বিভাগের আরও খবর

সর্বশেষ খবর