২৭ মে, ২০২৪ ১৯:৫৪

খাগড়াছড়িতে টানা বৃষ্টি, পাহাড় ধসের শঙ্কা

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি

খাগড়াছড়িতে টানা বৃষ্টি, পাহাড় ধসের শঙ্কা

খাগড়াছড়িতে ঘূর্ণিঝড় রিমালের প্রভাবে টানা বৃষ্টি হচ্ছে। ভারী বর্ষণে রয়েছে পাহাড় ধসের শঙ্কা। পাহাড়ের পাদদেশে ও পাহাড়ের উপর ঝুঁকিপূর্ণভাবে বসবাস করছে প্রায় সাড়ে ৩ হাজার পরিবার। ইতিমধ্যে এসব বসবাসকারীদের সরে যাওয়ার নির্দেশ দিয়েছে প্রশাসন। পাহাড় ধসে সড়ক যোগাযোগ যাতে বিচ্ছিন্ন না হয়, সেজন্য কাজ করছে সড়ক ও জনপদ বিভাগ।

বৃষ্টি বাড়লে জেলার সবুজবাগ, শালবাগান, কুমিল্লাটিলা, কলাবাগানসহ শহরতলীর বিভিন্ন এলাকায় পাহাড় ধস দেখা দিতে পারে। পাহাড় ধসের আতঙ্ক নিয়ে স্থানীয়রা বসবাস করছে এসব এলাকায়।

শালবন এলাকার বাসিন্দা মোতালেব, আবু হানিফ মহিউদ্দিন জানান, টানা বৃষ্টি হচ্ছে। এর মধ্যে বেশ কিছু এলাকায় পাহাড়ের মাটি ধসে গেছে। খুব আতঙ্ক নিয়ে বসবাস করছেন তারা। বৃষ্টি হলে রাতের বেলায় ভয়ে ঘুমাতে পারেন না। পাহাড় ধসের ভয় নিয়েই দিন পার করছেন তারা।

খাগড়াছড়ি সড়ক বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. মাকসুদুর রহমান জানান, খাগড়াছড়ির দীঘিনালা-মারিশ্যা সড়ক ও মহালছড়ি-সিন্দুকছড়ি সড়কে পাহাড় ধস মোকাবিলায় কাজ করছে সড়ক বিভাগ। পাহাড় ধসে যাতে যান চলাচল বিঘ্নিত না হয়, সে ব্যাপারে পর্যাপ্ত প্রস্তুতি নেওয়ার কথা জানিয়েছে সড়ক বিভাগের এ নির্বাহী প্রকৌশলী।

খাগড়াছড়ি জেলা প্রশাসক মো. সহিদুজ্জামান জানান, পাহাড় ধসের ক্ষয়ক্ষতি কমাতে এবং দুর্যোগ কবলিতদের জন্য সার্বিক প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে প্রশাসন। ইতিমধ্যে খাগড়াছড়ির বিভিন্ন স্থানে পাহাড় ধসের শঙ্কা রয়েছে। স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের মাধ্যমে সার্বক্ষণিক খোঁজ-খবর রাখছেন। তা ছাড়া খাগড়াছড়িতে দুর্যোগ মোকাবিলায় সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সব ধরনের ছুটি বাতিল করেছে জেলা প্রশাসন। জেলায় খোলা হয়েছে ১০০টি  আশ্রয় কেন্দ্র।

বিডি প্রতিদিন/এমআই

সর্বশেষ খবর