Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ২২:৫৯

‘বাণিজ্যিক ভালোবাসা বেড়েছে’

‘বাণিজ্যিক ভালোবাসা বেড়েছে’

বিশ্ব ভালোবাসা দিবস আজ। ভালোবাসার বন্ধনে শক্ত গিঁট এঁটে দেয় এন্ডোরফিনস নামক রাসায়নিক উপাদান এবং অক্সেটোসিন নামক হরমোন। আর মন বলে ভালোবাসা নাকি মায়াজাল। এ মায়াজাল প্রসঙ্গে মুখোমুখি হয়েছিলেন হালের আলোচিত অভিনেত্রী বুবলী। সাক্ষাৎকারটি নিয়েছেন-  শামছুল হক রাসেল

 

আপনার চোখে ভালোবাসার রং কেমন?

হা. হা.. হা... খুব মিষ্টি একটা প্রশ্ন। আসলে ভালোবাসার রং বলতে শুধু একটি নির্দিষ্ট রং বুঝি না, কারণ ভালোবাসা শব্দটা ছোট হলেও এর তাৎপর্য অনেক বড়। তাই একটি রং দিয়ে এটা বোঝানো সম্ভব নয়। আমার চোখে ভালোবাসার রং সবসময় অনেক সুন্দর রঙের সংমিশ্রণ। সাদা-লাল-নীল-সবুজ-বেগুনি সব মিলিয়ে সত্যিকারের ভালোবাসা অনেক রঙিন আর আনন্দময়।  আর মনের মিল থাকলে সব ভালোবাসাই রঙিন আর মনের মিল না থাকলে সব রংকেই ফ্যাকাশে মনে হবে।

 

ভালোবাসার মানুষ বলতে কাকে বোঝেন?

ভালেবাসার মানুষ বলতে তাদের বুঝি- যে মানুষগুলো আপনাকে সম্মান করবে, মূল্যায়ন করবে, স্বার্থহীনভাবে ভালোবাসবে, ভালো রাখতে চেষ্টা করবে, হাজার ব্যস্ততায় আপনার জন্য সময় দেবে, নিজের থেকেও আপনাকে বেশি বুঝবে। উপকার করতে না পারুক কখনো ক্ষতি করবে না। সেই আসলে প্রকৃত ভালোবাসার মানুষ, আর ভালোবাসার মানুষ যে কেউ হতে পারে।

 

ভালোবাসা কি একটি দিবসে আটকে থাকতে পারে?

কেউ কেউ ভালোবাসার মতো গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নির্দিষ্ট দিন ঘটা করে পালন করে বাকি ৩৬৪ দিন কীভাবে ভুলে যায় তা বোঝে আসে না। এগুলো লোক দেখানো মনে হয়। তবে কমপক্ষে একটি দিনও যে মানুষ এটাকে উদযাপন করছে আর তাদের ভালোবাসার মানুষকে ভালোবাসি বলছে এটাও বা কম কিসের। কিন্তু এই ধারাবাহিকতা সব সময় রাখতে হবে। খুব করে সবসময় পালন সম্ভব না হলেও প্রতিদিন একটু সময়ের জন্য হলেও ভালোবেসে ভালো থাকা সম্ভব।

 

অনেকেই বলে এখনকার ভালোবাসা বাণিজ্যিক, এর মানে কী?

যে ভালোবাসা বাণিজ্যিক তা আবার ভালোবাসা হয় কী করে! বাণিজ্য ব্যবসায় হয়, ভালোবাসায় নয়। ওসব তথাকথিত বাণিজ্যিক ভালোবাসা মানুষ বোঝে, কেউ দেরিতে আর কেউ বা খুব সহজেই। আর মানুষ একটু সচেতন হলেই বুঝবে কে সত্যি ভালোবাসছে আর কোনটা বাণিজ্যিক। এ সমাজে মুখোশধারী বাণিজ্যিক ভালোবাসা এখন বেড়েছে বলেই মানুষ সত্যিকারের ভালোবাসাকেও ‘ফেক’ ভাবে।

 

কখনো ভালোবাসা বাসা বেঁধেছিল?

ওই যে আগেই বলেছি ভালোবাসা একেক জন মানুষের জন্য একেক রকম। পরিবারের বাবা-মা-ভাই-বোন সবার জন্য অনেক ভালোবাসা। হয়তো সবসময় প্রকাশ করি না। আমি অন্য সব ব্যাপারে অনেক শক্ত মানসিকতার কিন্তু পরিবারের ব্যাপারে একদম তার উল্টো। আর কে জীবনসঙ্গী হবেন, তা তো এখনো জানি না। তাই তার জন্য সব ভালোবাসা জমিয়ে রেখেছি। বিয়ের পর সব ভালোবাসা পাবেন সেই ভদ্রলোক, হা.. হা.. হা...।

 

ভালোবাসার রসায়ন বলতে কী বোঝেন?

আমি আসলে খুব সিম্পল, তাই ভালোবাসার রসায়নটাও আমার কাছে খুব সিম্পল। ভালোবেসে একসঙ্গে কোনো সমুদ্রের পাড়ে ক্যান্ডেল লাইট ডিনারেও যেমন দুজন মানুষের রসায়ন পাবেন, তেমনি নিজের হাতের রান্না করা খাবার খেয়ে, আবার হঠাৎ সন্ধ্যায় ফুচকা খেয়ে। আমার কাছে এসবও ভালোবাসার মিষ্টি রসায়ন।


আপনার মন্তব্য