শিরোনাম
প্রকাশ : ১০ জুন, ২০২১ ১৫:০৪
প্রিন্ট করুন printer

জিফাইভ গ্লোবালে পাকিস্তানি ওয়েব সিরিজ ‘ধুপ কি দিওয়ার’

প্রেস বিজ্ঞপ্তি

জিফাইভ গ্লোবালে পাকিস্তানি ওয়েব সিরিজ ‘ধুপ কি দিওয়ার’
Google News

দক্ষিণ এশিয়ার বৃহত্তম ভিডিও স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্ম জিফাইভে আসছে তৃতীয় পাকিস্তানি প্রডাকশন এবং জিন্দেগি অরিজিনাল ‘ধুপ কি দিওয়ার’। ভালবাসা সব বাধা পেরিয়ে যায়। ‘জিন্দেগি’ তার শোগুলোতে এ বিষয়টি তুলে ধরতে পেরে গর্বিত। প্রেমের এই অতুলনীয় শক্তিকে মনে করিয়ে ‘ধুপ কি দিওয়ার’ বৃহত্তর মানবতার ওপর জোর দেবে যা দূর করবে ঘৃণা। ‘ধুপ কি দিওয়ার’ ওয়েব সিরিজে অভিনয় করেছেন জনপ্রিয় পাকিস্তানী জুটি সজল আলি এবং আহাদ রাজা মীর। 

জিফাইভে আগামী ২৫ জুন থেকে ‘ধুপ কি দিওয়ার’ দেখা যাবে যা উপভোগের সুযোগ পাবেন সারা বিশ্বের দর্শকরা। আর এর মাধ্যমে জিফাইভে সমৃদ্ধ পাকিস্তানি শোগুলোর তালিকায় যুক্ত হবে ‘ধুপ কি দিওয়ার।’ 

উমেরা আহমেদ লিখিত হাসিব হাসান পরিচালিত ধুপ কি দিওয়ার সিরিজে ‘হার্ট ওভার হেইট’ বার্তাকে তুলে ধরা হয়েছে। আন্ত-সীমান্ত প্রেম, পরিবার এবং হারানোর কাহিনী ‘ধূপ কি দিওয়ার’। ভারতের বিশালের চরিত্রে আহাদ রাজা মীর এবং পাকিস্তানের সারা চরিত্রে সজল আলী যুদ্ধে তাদের বাবাকে হারায়। সেই বেদনার প্রেক্ষাপটেই তারা খুঁজে পায় তাদের জীবনের সাদৃশ্য। উভয়ের একই শোক গড়ে  তোলে বন্ধুত্বের নিগূঢ় বন্ধন।

সিরিজটিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকায় যারা অভিনয় করেছেন তাদের মধ্যে রয়েছেন শামিয়া মমতাজ, জায়েব রেহমান, সাবেরা নাদিম, সামিনা আহমেদ, মানজার সেহবাই, রাজা তালিশ, আলী খান এবং আদনান জাফর। দুটি পরিবারের ওপর যুদ্ধ এবং মৃত্যুর প্রভাব তুলে ধরা হয়েছে ওয়েব সিরিজটিতে। তারা বুঝতে পারে- একমাত্র শান্তিই এর সমাধান। ওয়েব সিরিজটি প্রযোজনা করেছে মোশন কনটেন্ট গ্রুপ এবং হামদান ফিল্মস। 

পরিচালক হাসীব হাসান বলেন, ‘সীমানা, ধর্ম এবং সামাজিক ভেদাভেদের বাইরে এক ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গির প্রতিচ্ছবি ‘ধুপ কি দিওয়ার’। গল্পের সরলতাই সিরিজটির মাধুর্য এবং মুখ্য বার্তা। ক্রস-বর্ডার প্রেম কাহিনীর মত একটি বিষয়কে সম্পূর্ণ ভিন্ন ধাঁচে তুলে ধরা হয়েছে কনটেন্টটিতে। আর এর অন্তর্নিহিত বার্তা হল জীবনের শান্তি, সম্প্রীতি ও আনন্দ। আশা করি ভালবাসার এ গল্প নির্মাণে মিসবাহ শফিকসহ আমাদের পুরো টিমের আন্তরিক পরিশ্রম দর্শকদের ভালবাসায় সিক্ত হবে।”  

লেখিকা উমেরা আহমেদ বলেন, আমি হৃদয় দিয়ে অনুভব করি ‘ধুপ কি দিওয়ার’। আমি এ গল্পের প্রেরণা পাই একান্ত এক ভাবনা থেকে; আপনি-আমি যে দেশের, যে ধর্মের এবং যে বিশ্বাসেরই হই না কেন- দিন শেষে হৃদয়ে যে শোক বিরাজ করে তার স্বরূপ সবখানেই এক, ছাপিয়ে যায় আপনার-আমার নিজস্ব গণ্ডিকে। এটি এক ভালবাসা, বেদনা ও হারানোর গল্প যা সীমানা পেরিয়ে মানুষকে মানবতার বন্ধনে আবদ্ধ করতে পারে। 

জিফাইভ গ্লোবাল’র চিফ বিজনেস অফিসার অর্চনা আনন্দ বলেন, “বৈশ্বিক দর্শকদের জন্য আমাদের অনন্য সব পাকিস্তানি অরিজিনাল প্রডাকশনের তালিকায় আরও একটি কনটেন্ট- ‘ধুপ কি দিওয়ার’ যুক্ত করতে পেরে আমরা আনন্দিত। আকর্ষণীয় এ কাহিনী শুধু ভারত, পাকিস্তানের দর্শকদের নয় বরং বিশ্বজুড়ে সমস্ত দক্ষিণ এশীয় প্রবাসী এবং যে কোন বিনোদনপ্রেমী যারা ভাল গল্প খোঁজেন তাদেরও ভাল লাগবে। ওয়েব সিরিজটি সমাজে সাড়া ফেলবে এবং জরুরি ও প্রাসঙ্গিক কয়েকটি বিষয়কে সামনে তুলে ধরবে বলে আমাদের বিশ্বাস। তরুণ ও প্রতিভাবান জুটি সজল আলি এবং আহাদ রাজা মীর অভিনীত সমৃদ্ধ গল্প নির্ভর এই কনটেন্টটি বিশ্বব্যাপী দর্শকদের সামনে হাজির করতে পেরে আমরা গর্বিত।”  

গ্রুপ এম পাকিস্তানের চিফ ইনভেস্টমেন্ট অফিসার আতিক রেহমান বলেন, “সমস্ত প্রতিকূলতার বিরুদ্ধে গিয়ে এবং আগে কখনো হয়নি এমন কিছু করা সহজ কাজ নয়। ‘ধুপ কি দিওয়ার’ মোশন অ্যান্ড গ্রুপ এম পাকিস্তানের এমনই একটি উদ্যোগ। মার্কেট লিডার হিসেবে প্রথা ভেঙে নতুন কিছু করার দায় আমাদের রয়েছে। তেমন কিছু করার জন্য আমাদের টিমের যেমন উদ্যোগ প্রয়োজন, তেমনি প্রয়োজন পারিপার্শ্বিক দিক থেকে আন্তরিক প্রেরণা। ‘ধুপ কি দিওয়ার’একটি প্রেম এবং হারানোর গল্প যা শান্তির কথা বলে।”  

যখন যুদ্ধ আর ঘৃণা আমাদের জীবনকে আঁকড়ে ধরেছে, তখন ‘ধুপ কি দিওয়ার’ বলে- সীমান্তের কোনো পাড়েই কোনো সৈনিকের মৃত্যু কাম্য নয়। রাজনৈতিক সীমানায় যেন ভূলুণ্ঠিত না হয় মানবতা। দুই দেশের মধ্যে যুদ্ধ পরবর্তী পরিস্থিতি এবং যেসব পরিবার তাদের প্রিয়জনকে হারিয়েছেন, ভৌগোলিক ও রাজনৈতিক সীমানা পেরিয়ে শোক তাদের কি করে একই বন্ধনে আবদ্ধ করে সে চিত্রই তুলে ধরা হয়েছে সিরিজটিতে। 

আকর্ষণীয় এবং হৃদয় ছোঁয়া কাহিনীর জন্য দর্শকনন্দিত ‘জিন্দেগি’। এর আগের দুটি সিরিজ ‘চুরাইলস’ এবং ‘এক ঝুঠি লাভ স্টোরি’র দুর্দান্ত সাফল্যের পর নতুন এই কনটেন্ট দিয়ে কাহিনীর দিক থেকে নিজেদের অবস্থান আরও দৃঢ় করতে চায় কনটেন্ট ব্র্যান্ডটি। 

গুগল প্লে­স্টোর অথবা আইওএস অ্যাপ স্টোর থেকে গ্রাহকরা জি ফাইভ অ্যাপ ডাউনলোড করতে পারবেন। www.ZEE5.com ওয়েবসাইটটির মাধ্যমেও উপভোগ করা যাবে জি ফাইভ। সামস্যাং স্মার্ট টিভি, অ্যাপল টিভি, অ্যান্ড্রয়েড টিভি ও অ্যামাজন ফায়ার টিভিতেও রয়েছে অ্যাপটি।

বিডি প্রতিদিন/আবু জাফর

এই বিভাগের আরও খবর