শিরোনাম
১১ অক্টোবর, ২০২১ ১১:৩৫

ফুড ভ্লগিংয়ের নামে সবাই ইচ্ছেমতো কবিতা আবৃত্তি করে যাচ্ছেন!

ইফতেখায়রুল ইসলাম

ফুড ভ্লগিংয়ের নামে সবাই ইচ্ছেমতো কবিতা আবৃত্তি করে যাচ্ছেন!

ইফতেখায়রুল ইসলাম

প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পড়ার সময় স্কুলে যেদিন সাংস্কৃতিক আসর বসতো, সেদিন যারা কিছু না পারতো তাদেরকে শ্রদ্ধেয় শিক্ষকগণ বলতেন, দাও না কষ্ট করে একটা কবিতা আবৃত্তিই করে দাও না হয়! 

শিক্ষকগণ ছাত্র, ছাত্রীদের অনুপ্রেরণা যোগাতেন তা নিঃসন্দেহে প্রশংসার দাবিদার ছিল! কিন্তু অনেক পরিণত ও পরিপক্ক হওয়ার পরও, আজও অনেককে প্রায়ই বলতে শুনি, আহা কিছু না পারলে অনুষ্ঠানে, একটা কবিতা আবৃত্তি করে দাও দেখিনি। 
হায় কবিতা, হায় আবৃত্তিশিল্পী! 
ইদানিং ফুড ভ্লগিংয়ের নামে সবাই ইচ্ছেমতো কবিতা আবৃত্তি করে যাচ্ছেন! ভ্লগারদের দোষারোপ করছি না, কিন্তু সবকিছুরই একটা উপস্থাপন ঢং তো রয়েছে! 
যদি ভ্লগিংয়ের নামে সকলে শুধু বলতে থাকেন, জানেন তো এটা বেশ মাখামাখা হয়েছে! আর আমার মনে হচ্ছে, এখানে বাটা মসলা ব্যবহার করা হয়েছে! আর ওহ হ্যা, মাংসটা যা সফট না, টিপ দিলেই গলে যায়! এভাবে এই বলাকে ভ্লগিং বলে না ভাইয়া, আপুগণ!

ভ্লগিং করতে হলে যারা খুব অভিজ্ঞ, তাদের দেখে শিখুন। তারপর না হয় উপস্থাপন করুন! সবকিছুকেই মাখামাখা আর টিপ দিলে গলে যায় অবস্থা থেকে বের করে এনে একটু রিয়্যাল ফুড ভ্লগিং করুন! 
হ্যাপি ইটিং এন্ড ফুড ভ্লগিং 

লেখক : এডিসি, ক্যান্টনমেন্ট ও খিলক্ষেত, ডিএমপি

(ফেসবুক থেকে সংগৃহীত)


বিডি প্রতিদিন/ফারজানা

সর্বশেষ খবর