শিরোনাম
প্রকাশ : ৫ আগস্ট, ২০২০ ১৬:৩১

পাখি প্রেম!

দীপংকর ভট্টাচার্য লিটন, শ্রীমঙ্গল

পাখি প্রেম!

একেই বুঝি বলে পাখি প্রেম! শিকারী দু'টি বকের ছানা ধরে খাঁচায় বন্দি করে বিক্রির জন্য বাজারে নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল। খাঁচার ভেতর ওই দুটি বক ছানার ছটফটানি দেখে মন কেঁদে উঠে মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল উপজেলার ভাড়াউড়া চা বাগানের বাসিন্দা পাখি প্রেমিক কাজল হাজরার। তিনি ওই শিকারীকে অনেক অনুরোধ করেন ছানা দু'টি ছেড়ে দেয়ার জন্য। কিন্তু কোন অনুরোধেই মন গলেনি নিষ্টুর শিকারীর। 

সে তার সিদ্ধান্তে অটল থাকে। বকের ছানা দু'টি সে বিক্রি করবেই। পরে নিজের পকেট থেকে ৩৫০ টাকা দিয়ে শিকারীর নিকট থেকে বক ছানা দু'টি কিনে নেন কাজল। গতকাল মঙ্গলবার (৪ আগস্ট) চা বাগানের জলাশয়ের পাড়ে মুক্ত আকাশে ছেড়ে দেন বকের ছানা দু'টি। 

কাজল হাজরা জানান, গত সোমবার বিকেলে এক কিশোর দু'টি বকের ছানা বিক্রির জন্য শহরের নতুন বাজারে নিয়ে আসে। ছানা দু'টি কিনে নেয়ার জন্য অনেকেই দামদর শুরু করেন। তিনি এক ক্রেতার নিকট জানতে চান ছানা দু'টি কিনে তিনি কি করবেন- উত্তরে ওই ক্রেতা বলেন কেটে রান্না করে খাবেন। এ কথা শুনেই কেঁপে উঠে তার বুক। সাথে সাথে তিনি নিজেই ছানা দু'টি কিনে নেন। 

তিনি আরও জানান, শখের বসে বন বাদরে ঘুরে ঘুরে পাখির ছবি তুলতে তুলতে তার মনে পাখির প্রতি একটা মায়া জন্মে গেছে। যখনই কোথাও কোন বন্য প্রাণীর প্রাণ সংশয়ে পরতে দেখেন তখনই তিনি নিজে নতুবা বন বিভাগ নয়তো বন্য প্রাণী সেবা ফাউন্ডেশনে খবর দিয়ে সেই প্রাণীর প্রাণ বাচাঁনের চেষ্টা করেন। 

বাংলাদেশ বার্ড ক্লাবের প্রেসিডেন্ড ইনাম আল হক বলেন, আমাদের জন্য এটা খুব ভাল খবর। শুনলেও খুব ভাল লাগে। নতুন প্রজন্ম যে বন্য প্রাণীদের প্রতি খুব বেশী সচেতন কাজলের এই পাখি প্রেম দেখেই বুঝা যায়। তার মতো নতুন প্রজন্মের সকল তরুন-তরুনীর মনে পশু পাখির প্রতি মায়া মমতা জাগোক এটাই কমনা করি। 

 

বিডি-প্রতিদিন/সিফাত আব্দুল্লাহ


আপনার মন্তব্য