শিরোনাম
প্রকাশ : শনিবার, ২৩ জুন, ২০১৮ ০০:০০ টা
আপলোড : ২২ জুন, ২০১৮ ২৩:২৩

তিন সিটিতে প্রার্থী দিল দুই দল

জাতীয় পার্টি জামায়াত যার যার জোটের সমর্থনে

নিজস্ব প্রতিবেদক

তিন সিটিতে প্রার্থী দিল দুই দল

রাজশাহী, সিলেট ও বরিশাল সিটি করপোরেশন নির্বাচনে দলীয় মেয়র প্রার্থী চূড়ান্ত করেছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ। রাজশাহীতে এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটন, সিলেটে বদরউদ্দিন আহমদ কামরান এবং বরিশাল সিটিতে সেরনিয়াবাত সাদিক আবদুল্লাহকে মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে। গতকাল গণভবনে দলের স্থানীয় মনোনয়ন বোর্ডের সভা ও যৌথ সভায় এই মনোনয়ন চূড়ান্ত করা হয়। বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানিয়েছেন দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। এদিকে বিএনপি প্রার্থী চূড়ান্ত করে তিনজনকে গ্রিন সিগন্যাল দিলেও গাজীপুর সিটির ভোট দেখে তাদের নাম চূড়ান্তভাবে ঘোষণা দেবে। দলের একজন কেন্দ্রীয় নেতা জানিয়েছেন, রাজশাহীতে মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল, সিলেটে আরিফুল হক চৌধুরী এবং বরিশালে মজিবর রহমান সরোয়ারের মনোনয়ন চূড়ান্ত করা হয়েছে। আগামী ২৬ জুন গাজীপুরের ভোটের ফলাফল দেখে ২৭ জুন তিন সিটির মেয়র প্রার্থীর নাম ঘোষণা করা হবে। আগামী ৩০ জুলাই অনুষ্ঠেয় রাজশাহী, বরিশাল ও সিলেট সিটি করপোরেশন নির্বাচনে অংশ নিতে প্রার্থীরা ২৮ জুন পর্যন্ত মনোনয়নপত্র জমা দিতে পারবেন। মনোনয়ন বাছাইয়ের তারিখ ১-২ জুলাই। প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ৯ জুলাই। ১০ জুলাই প্রতীক বরাদ্দের পর প্রার্থীরা আনুষ্ঠানিক প্রচারণা শুরু করতে পারবেন। ভোট ৩০ জুলাই। বাংলাদেশের স্বাধীনতা আন্দোলনের অন্যতম প্রধান সংগঠক ও জাতীয় নেতা এ এইচ এম কামারুজ্জামান হেনার সন্তান এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটন আনুষ্ঠানিকভাবে রাজনীতি শুরু করেন ১৯৮৪ সালে আওয়ামী লীগে যোগদানের মাধ্যমে। ১৯৯৬ এবং ২০০১ সালে জাতীয় সংসদ নির্বাচনে রাজশাহী-২ (পবা-বোয়ালিয়া) থেকে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেন লিটন। তিনি ২০০৮ সালে রাজশাহী সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মহাজোট সমর্থিত নাগরিক কমিটির মেয়র প্রার্থী হন এবং জয়লাভ করেন। বর্তমানে তিনি রাজশাহী মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন। বদরউদ্দিন আহমদ কামরান সিলেটের প্রথম নির্বাচিত মেয়র ছিলেন। ছাত্রজীবন থেকেই রাজনীতির সঙ্গে জড়িত কামরান নিজ দল ক্ষমতার বাইরে থাকা অবস্থায় মেয়র পদে নির্বাচিত হয়ে ইতিহাস গড়েন। ষাটের দশকে আওয়ামী লীগে যোগ দেওয়া সিলেটের সর্বকনিষ্ঠ কমিশনার বদরউদ্দিন আহমদ কামরান এখন কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য ও সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি। বরিশালের মেয়র প্রার্থী সাদিক আবদুল্লাহর বাবা আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সদস্য, বরিশাল জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি। সাদিক মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক। এদিকে রাজশাহী, সিলেট ও বরিশাল সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে বিএনপির তিন প্রার্থীই চূড়ান্ত। তবে তা গাজীপুর সিটি নির্বাচনের আগে ঘোষণা করা হবে না। আগামী ২৬ জুন গাজীপুর সিটি নির্বাচনের পর ২৭ জুন আনুষ্ঠানিকভাবে প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করবে বিএনপি। ২৮ জুন মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার শেষ দিন। তবে জাতীয় পার্টি ও জামায়াত যার যার জোটকে সমর্থন করবে বলে নীতিগত সিদ্ধান্ত হয়েছে। সংশ্লিষ্ট নির্ভরযোগ্য সূত্রে জানা গেছে, রাজশাহীতে বর্তমান মেয়র মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল ও সিলেটে আরিফুল হক চৌধুরীর মনোনয়ন চূড়ান্ত করা হয়েছে। আর বরিশালে মনোনয়ন পাচ্ছেন দলের যুগ্ম মহাসচিব ও সাবেক মেয়র মজিবর রহমান সরোয়ার। তিনি বরিশাল সিটি করপোরেশনের প্রথম মেয়র ছিলেন। গত বৃহস্পতিবার বিকালে গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে তিন সিটি করপোরেশনে মেয়র পদে মনোনয়নপ্রত্যাশী ১৭ জন প্রার্থীর সাক্ষাৎকার গ্রহণ করে দলের বোর্ড। এর মধ্যে মজিবর রহমান সরোয়ার ছাড়া বাকি ১৬ জন দলের মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছিলেন বুধবার। সিলেট সিটি মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী ও রাজশাহীর সিটি মেয়র মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল আগামী নির্বাচন নিয়ে বেশ আত্মবিশ্বাসী। অবাধ, সুষ্ঠু নির্বাচন হলে এবং জনগণ ভোট দেওয়ার সুযোগ পেলে সরকারের অপকর্মের জবাব দেবে। আরিফুল হক চৌধুরী বলেন, সিলেট হজরত শাহজালাল (রহ.) ও হজরত শাহ পরানের (রহ.) পুণ্যভূমি। এখানে খুলনার মতো ‘ভোট ডাকাতি’ করে সরকার পার পাবে না।  অন্যদিকে মজিবর রহমান সরোয়ারও যথেষ্ট আস্থাশীল। তিনি বলেন, দল যাকে মনোনয়ন দেবে তার পক্ষেই আমরা সবাই ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করব। অবাধ, সুষ্ঠু নির্বাচন হলে বিএনপির প্রার্থীই জয়লাভ করবে।


আপনার মন্তব্য

এই বিভাগের আরও খবর